আজ বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১ ইং

যে শর্তে মিলবে যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিকত্ব

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-১২-১৪ ১৭:১৪:২১

ব্যারিস্টার অ্যা ল :: যুক্তরাষ্ট্রে নাগরিকত্ব পেতে বেশ কিছু শর্ত পূরণ করতে হয়। কারা নাগরিকত্বের জন্য আবেদন করতে পারবে। স্থানীয়রা যেসব অধিকার ভোগ করেন তার মধ্যে রয়েছে, ভোট দেয়ার অধিকার, পরিবারের অন্য সদস্যদের জন্য গ্রিনকার্ডের আবেদন করতে পারা এবং আমেরিকার বাইরে যতদিন ইচ্ছা বসবাস করে আবার ফেরার অধিকার।

ন্যাচারালাইজেশনের মাধ্যমে নাগরিক হওয়ার জন্য একজন আবেদনকারীকে অবশ্যই গ্রিনকার্ডধারী হতে হবে এবং নিচের শর্তগুলো পূরণ করতে হবে

আবেদনের যোগ্যতা:
আপনি যদি কমপক্ষে পাঁচ বছর ধরে আমেরিকার গ্রিনকার্ডধারী হন।
আপনার স্বামী/স্ত্রী যদি কমপক্ষে তিন বছর ধরে মার্কিন নাগরিক হয় এবং আপনি যদি তার সঙ্গে কমপক্ষে তিন বছর বৈবাহিক সূত্রে আবদ্ধ থেকে একত্রে বসবাস করেন।
আপনার জন্য যদি ইমিগ্রেশন অ্যান্ড ন্যাশনালিটি অ্যাক্টের ৩১৯ (বি) ধারা প্রযোজ্য হয় অর্থাৎ আপনার মার্কিন নাগরিক স্বামী/স্ত্রী যদি আমেরিকার বাইরে কোনো স্পেসিফিক এমপ্লয়মেন্টে নিয়মিতভাবে এঙ্গেজড থাকে।
অথবা আপনি যদি কোয়ালিফাইং মিলিটারি সার্ভিসের বেসিসে আবেদন করতে চান।

কখন আবেদন করবেন:
ন্যাচারালাইজেশনের মাধ্যমে আমেরিকার নাগরিকত্বের জন্য কখন আবেদন করবেন তা সঠিকভাবে নিরূপণ করতে হলে নিম্নলিখিত বিষয়গুলো আপনাকে খেয়াল রাখতে হবে-
তিন বছর অথবা পাঁচ বছর যে সময়টা গ্রীষ্মকাল নিয়ে কাটিয়ে তারপর আপনি ন্যাচারালাইজেশনের আবেদন করছেন, সে সময় আপনি একটানা এক বছরের বেশি আমেরিকার বাইরে বসবাস করেননি।
ন্যাচারালাইজেশনের আবেদন করার সময় আপনি ওই তিন অথবা পাঁচ বছরের কমপক্ষে অর্ধেক সময় সশরীরের আমেরিকায় ছিলেন।
আমেরিকার যে অঙ্গরাজ্য থেকে আপনি আবেদন করছেন, আবেদন করার আগে সেই অঙ্গরাজ্যে আপনি কমপক্ষে তিন মাস বসবাস করেছেন।

এর বাইরে আরও যেসব বিষয় আপনাকে প্রমাণ করতে হবে-
আপনার বয়স ১৮ বছরের বেশি।
আপনার গুড মোরাল ক্যারেক্টার (উত্তম নৈতিক চরিত্র) রয়েছে।
কিছু ব্যতিক্রম বাদে যা এই লেখার পরবর্তীতে উল্লেখ রয়েছে-আপনি ইংরেজি ভাষা বলতে, পড়তে ও লিখতে জানেন, আমেরিকার ইতিহাস ও সরকারের বিষয়ে একটি পরীক্ষায় অবতীর্ণ হয়ে আপনি উত্তীর্ণ হতে পারবেন।
আপনি সর্বাবস্থায় সংবিধানের প্রতি অনুগত থাকবেন।

আবেদনের প্রক্রিয়া:
ফরম এন-৪০০ নির্ভুলভাবে পূরণ করে আপনাকে আবেদন করতে হবে। এর সঙ্গে আপনাকে গ্রিনকার্ডের উভয় পাশের কপি, দুই কপি ছবি ও ৭২৫ মার্কিন ডলার ফি সংযুক্ত করতে হবে। তবে বার্ষিক হাউসহোল্ড আয় যদি আমেরিকার কেন্দ্রীয় পভার্টি গাইড লাইনের ১৫০ শতাংশের কম হয় অথবা আপনি যদি স্বাস্থ্যসেবা, খাদ্য সহায়তা বা আবাসনের মতো কোনো একটি মিনস-টেস্টেড বেনিফিট পান, তাহলে একটি আই-৯১২ ফরম নির্ভুলভাবে পূরণ করে প্রয়োজনীয় প্রমাণ সংযুক্ত করে ফরম এন-৪০০-এর সঙ্গে বিনামূল্যে জমা দিতে পারবেন।
প্রযোজ্য ক্ষেত্রে আপনার বিয়ের কাবিননামা সংযুক্ত করতে হতে পারে।

আবেদনের কয়েক মাস পরে প্রথমে আপনাকে ফিঙ্গার প্রিন্টিং ও পরে ইন্টারভিউয়ের জন্য ডাকা হবে। ইন্টারভিউয়ের আগেই ইউএসসিআইএস সতর্কভাবে আপনার ব্যাকগ্রাউন্ড চেক করবে। যদি কোনো সমস্যা তারা খুঁজে না পায় যেমন আপনি গ্রিনকার্ডটি নেয়ার সময় অথবা অন্য কোনো সময় নাম পরিবর্তনসহ কোনো রকম প্রতারণা আশ্রয় নেননি অথবা আমেরিকার বাইরে নির্ধারিত সময়ের বেশি বসবাস করে আপনার স্থায়ী আবাসন ইতোমধ্যে পরিত্যাগ করেননি, তখন তারা আপনাকে শপথ অনুষ্ঠানে অংশ নেয়ার জন্য অ্যাপয়েন্টমেন্ট দিয়ে দেবে।

যদি আপনার এমন কোনো ফিজিক্যাল অথবা ডেভেলপমেন্টাল ডিজঅ্যাবিলিটি থাকে যার জন্য আপনি আপনার ইংরেজি ভাষার দক্ষতা এবং সিভিক বিষয়ে জ্ঞানের ডেমন্সট্রেশন করতে পারছেন না, তখন আপনাকে আপনার চিকিৎসক কর্তৃক ফরম এন-৬৪৮, মেডিকেল সার্টিফিকেশন ফর ডিজঅ্যাবিলিটি এক্সেম্পশন পূরণ করে জমা দিতে হবে। এসব ক্ষেত্রে আপনাকে কোনো রকম পরীক্ষা ছাড়াই নাগরিকত্ব প্রদানের আইন রয়েছে।

আর দুটি ক্ষেত্রে আপনি ইন্টারভিউয়ের সময় যে টেস্ট হয়, তা আপনার মাতৃভাষায় দিতে পারবেন

আপনার বয়স যদি ৫০ বছরের বেশি হয় এবং আপনি যদি আমেরিকায় ২০ বছরের বেশি সময় গ্রীষ্মকাল নিয়ে বসবাস করে থাকেন।

আপনার বয়স যদি ৫৫ বছরের বেশি হয় এবং আপনি যদি আমেরিকায় ১৫ বছরের বেশি সময় গ্রীষ্মকাল নিয়ে বসবাস করে থাকেন।

আপনার বয়স যদি ৬৫ বছরের বেশি হয় এবং আপনি যদি আমেরিকায় ২০ বছরের বেশি সময় গ্রীষ্মকাল নিয়ে বসবাস করে থাকেন, সেক্ষেত্রে আপনার জন্য একটি সহজ সংস্করণের (সিমপ্লিফাইড ভার্সন) টেস্টের ব্যবস্থা করা হবে।

(এই নিবন্ধ কোনোরকম আইনি পরামর্শ নয়। এটি কেবল ইউএসসিআইএস ও মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে প্রদর্শিত এ সংক্রান্ত তথ্যের সন্নিবেশ মাত্র)

ভিসা সম্পর্কিত বার্তা:
পরিবারভিত্তিক এবং চাকরিভিত্তিক ভিসা প্রদানের বার্ষিক সংখ্যা কংগ্রেস কর্তৃক সীমাবদ্ধ। এই ক্যাটাগরির আবেদনকারীদের সাক্ষাৎকার নির্ধারিত হয় যদি তাদের অগ্রাধিকার তারিখ হালনাগাদ থাকে ও ভিসার সংখ্যা বর্তমান থাকে। যদিও সম্ভাবনা আছে, অগ্রাধিকার তারিখের পরিবর্তন হতে পারে এবং সাক্ষাৎকারের সময় ভিসার সংখ্যা আর বর্তমান নাও থাকতে পারে।

আপনার ক্যাটাগরির ভিসার সংখ্যা যদি বর্তমান না থাকে, তবুও আপনার সাক্ষাৎকার যথা সময়ে হবে, তবে আপনার ভিসা ততদিন পর্যন্ত ইস্যু হবে না, যতদিন পর্যন্ত অগ্রাধিকার তারিখ হালনাগাদ হয় এবং নতুন ভিসার সংখ্যা বর্তমান হয়। সকল অভিবাসী ভিসা আবেদনকারীগণ তাদের অগ্রাধিকার তারিখের অগ্রগতি সম্পর্কে জানার জন্য পররাষ্ট্র দফতরের ওয়েবসাইটে ভিসা বুলেটিন দেখতে পারেন।

লেখক : নিউইয়র্ক প্রবাসী
 

সিলেটভিউ২৪ডটকম / ১৪ ডিসেম্বর, ২০২০ /  জাগোনিউজ / ডালিম

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সাম্প্রতিক প্রবাস জীবন খবর

  •   মাদ্রিদে ‘বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন ইন স্পেনে’র বিজয় দিবস উদযাপন
  •   ঐক্যবদ্ধ হয়ে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠা করতে হবে : ভার্চুয়াল সভায় মির্জা ফখরুল
  •   বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজার দাফন সম্পন্ন
  •   আহমেদ সাজার মাগফিরাত কামনায় করে বার্সেলোনায় দোয়া মাহফিল
  •   কানাডায় যাওয়ার সুবর্ণ সুযোগ!
  •   বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি আহমেদ সাজার মৃত্যুতে ফিনল্যান্ড বিএনপির শোক
  •   বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি সাজার মৃত্যুতে যুক্তরাজ্য বিএনপির শোক
  •   লন্ডনে মেয়র আরিফের জন্মদিন উদযাপন
  •   বেলজিয়াম বিএনপির সভাপতি সাজার সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল
  •   মালয়েশিয়ায় অবৈধ অভিবাসীদের বৈধতা দেওয়ার ঘোষণা