আজ শনিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২১ ইং

যুক্তরাজ্যের সঙ্গে সুসম্পর্ক থাকলেও ব্যবসা-বাণিজ্যে সাফল্য নেই

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৮-২০ ১১:৫৮:১২

সিলেটভিউ ডেস্ক :: যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সুসম্পর্ক থাকলেও ব্যবসা-বাণিজ্য আর বিনিয়োগে কাঙ্ক্ষিত সাফল্য নেই। এ জন্য দুই দেশের বাণিজ্যিক সংগঠনসহ সরকারি পর্যায়ে দ্বিপক্ষীয় সংলাপ বাড়ানোর পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া দেশটিতে রপ্তানি বাড়াতে পণ্য বহুমুখীকরণসহ প্রবাসী বাঙালিদের প্রয়োজনীয় পণ্যের ওপর জোর দেওয়ার কথা বলা হয়।

‘যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাণিজ্য এবং বৈদেশিক বিনিয়োগের সম্ভাবনা’ শীর্ষক ওয়েবিনারে বক্তারা এসব কথা বলেন। গতকাল বুধবার ঢাকা চেম্বার অব কমার্স অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রি (ডিসিসিআই) এই আয়োজন করে। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী মো. শাহরিয়ার আলম।

ওয়েবিনারে বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের অর্থনীতির গতি চলমান রাখা, কর্মসংস্থানের সুযোগ তৈরি এবং কডিভ-পরবর্তী অর্থনীতির চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশি পণ্যের রপ্তানিতে শুল্ক ও কোটা সুবিধা যেন অব্যাহত থাকে, এ জন্য এখনই দুই দেশের সরকারের মধ্যে সংলাপ শুরু করা জরুরি।

বিনিয়োগ বাড়ানোর উল্লেখ করে বলা হয়, ২০২০ সালের মার্চ মাস পর্যন্ত যুক্তরাজ্যভিত্তিক ২০০ প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশে ২৪৫ কোটি ডলার বিনিয়োগ করেছে। নীতিমালা ও কৌশল প্রণয়ন, ব্যবসা পরিচালনার ব্যয় হ্রাস, দ্রুততম সময়ে অবকাঠামো এবং বিশেষ অর্থনৈতিক অঞ্চলগুলোর (এসইজেড) কার্যক্রম বাস্তবায়ন খুবই জরুরি।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে শাহরিয়ার আলম বলেন, ‘যুক্তরাজ্যের সঙ্গে বাংলাদেশের ঐতিহাসিক সম্পর্ক রয়েছে। বাংলাদেশ স্বাধীন হওয়ার পর বঙ্গবন্ধু পাকিস্তান থেকে লন্ডন হয়ে দেশে ফিরেছিলেন। এ ছাড়া প্রায় ৪০০ বছর আগে আমাদের মসলিন কাপড় ও জাহাজের বাণিজ্য ছিল দেশটির সঙ্গে।’ সাম্প্রতিক সময়ে আরো বেড়েছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, ব্রেক্সিট-পরবর্তী সময়ে বাংলাদেশ ২০২৭ সাল পর্যন্ত ব্রিটেনে শুল্ক ও কোটা মুক্ত সুবিধা পাবে।

সৌজন্যে : কালের কণ্ঠ

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২০ আগস্ট ২০২০/ডেস্ক/মিআচৌ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন