আজ বুধবার, ২৭ মার্চ ২০১৯ ইং

স্বপ্নের রাজনীতি, রাজনীতির স্বপ্ন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০১-০৭ ১১:৪৮:৫২

অনিরুদ্ধ মজুমদার পলাশ :: অনেক স্বপ্ন নিয়ে রাজনীতিতে এসেছিলাম। অন্য ৮/১০টা ছেলের মতো স্বাভাবিক জীবন কাটাতে পারি নাই। অন্যরা যখন ক্লাস শেষে বন্ধুদের সাথে আড্ডা দিচ্ছিলো আমি তখন তৎকালীন বিএনপি -জামাত সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলন করছিলাম।

রাজনীতি করার কারনে সাথের বন্ধুরা এমনকি শিক্ষকরাও ভালো করে কথা বলতে চাইতো না। প্রখর রোদে কিংবা বৃষ্টিতে ঘরে বসে না থেকে রাস্তায় পিকেটিং করতে হয়েছে। বিকেল বেলায় অন্যরা যখন খেলা বা আড্ডায় ব্যস্ত থাকতো তখন কোর্ট পয়েন্টে বিক্ষোভ সমাবেশে যোগ দিতে হতো। যেখানে জন্মের পর থেকে আজ অবধি বাবা মায়ের হাতে একবারও মার খাইনি সেখানে পিকেটিং কিংবা বিক্ষোভ করা কালীন কতোবার পুলিশের মার খেয়েছি তার হিসেব নেই।

সাথের বন্ধুরা যখন দলবেঁধে ঘুরে বেড়াতো আমি তখন সিনিয়র নেতাদের সাথে মিছিলে যেতাম। একবারও খারাপ লাগে নাই। গর্ব হতো, যে বঙ্গবন্ধুর হাতে গড়া সংগঠনের সাথে জড়িত হতে পেরেছিলাম। বাবার পাঠানো খরচের টাকা জমিয়ে সংগঠনের জুনিয়র ভাইদেরকে নিয়ে খরচ করতাম। ২০০৬-২০০৯ পুরোটা সময়ই মূলত বিরোধী দলের স্বাদ  নিতে হয়েছে। ছাত্রদল -শিবির এর অনেক নির্যাতন এবং হুমকি সহ্য করতে হয়েছে। এমন অনেক সময় গিয়েছে যখন পরিক্ষা মিস করেও দলীয় কাজে যোগ দিয়েছি। ২০১৩/১৪ সালে যখন সারাদেশে বিএনপি-জামাত একযোগে সন্ত্রাসী কর্মকান্ড চালিয়েছে, তখন জীবনের ঝুঁকি নিয়ে প্রতিরোধ গড়েছি। আজও মনে হয় প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে পরিক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে পরিক্ষা দিতে হয়েছিলো। নিজ বাড়িতে জামাত শিবির হামলা করেছিলো। প্রাণভয়ে সেদিন মা আর বোন দরজা বন্ধ করে কোনরকম জীবন রক্ষা করেছিলেন।

আজ যেখানে সাথের বন্ধুরা চাকরি করে পরিবারের হাল ধরেছে, আমি সেখানে আজও বাবার হাতের দিকেই চেয়ে থাকি। কষ্টগুলো বলে শেষ করার মতো না ।অন্য বাবা মায়েরা যেখানে সন্তানদের সাফল্য নিয়ে গর্ব করে, আমার বাবা মা সেখানে নিজ সন্তানের ভবিষ্যৎ চিন্তা করে চোখের জল মুছে।তারপরও স্বপ্ন দেখি। হয়তো বাকি জীবনটাও দেখবো।

লেখক : জেলা ছাত্রলীগ নেতা

(লেখাটি অনিরুদ্ধ মজুমদার পলাশের ফেসবুক থেকে নেয়া।)

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   চিকিৎসার জন্য মুক্তি পেলেন নওয়াজ শরিফ
  •   যার অনুরোধে আইপিএলে ফিরছেন মালিঙ্গা
  •   স্বামীর প্রথম বিয়ের খবর জানার পর যা বললেন সালমা
  •   এভারেস্ট চূড়া থেকে বেরিয়ে আসছে পুরোনো অনেক লাশ
  •   আইসিইউ থেকে কেবিনে কাদের
  •   বাংলাদেশ-বিশ্ব একাদশ ম্যাচ আয়োজনে ভাবছে বিসিবি
  •   ঝড় ও বজ্রবৃষ্টি হতে পারে দেশের বিভিন্ন স্থানে
  •   ২৬ মার্চকে 'বাংলাদেশ দিবস' ঘোষণা করেছে ওয়াশিংটন ডিসি সরকার
  •   পেছালো তৃতীয় সিলেট চলচ্চিত্র উৎসবের আয়োজন
  •   সিলেটে ৫৫ কোটি টাকায় সরছে ‘জঞ্জাল’
  •   উদারের ‘হাতল’ ধরেও শেষ রক্ষা পায়নি ওয়াসিম
  •   ৫ বছরে রাজনগরের পরিবর্তন দেখবেন: শাহজাহান খান
  •   ১৬ জন মুক্তিযোদ্ধাকে সম্মাননা দিলো সিলেট মেট্রোপলিটন চেম্বার
  •   শাহগলী আদর্শ শিশু বিদ্যানিকেতনে মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপন
  •   ক্রেড়াপ্রেমীদের বিশাল সমাবেশ প্রমাণ করে ফুটবল এখনো জনপ্রিয়: অ্যাড. সামসুল
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   দোলের রঙে জীবনের একাত্মতা
  •   মৃত্যুকালে রাসূল (সা:) যে কথাটি বারবার বলেছিলেন
  •   দৌড়ে ছিনতাইকারী ধরা বিসিএস ক্যাডার সালমার গল্প
  •   ফেরিওয়ালা থেকে সেরা করদাতা হয়ে ওঠার গল্প
  •   শহীদ জগৎজ্যোতি: আমাদের দীপশিখা
  •   হিমোফিলিয়া: একটি রাজকীয় রোগের নাম
  •   স্কুলগুলো একেকটা ব্যবসা প্রতিষ্ঠান ছাড়া কিছুই নয়
  •   নারী-পুরুষের যেসব শারীরিক সমস্যায় সন্তান হয় না: ডা. উম্মুল খায়ের
  •   নৈতিক অবক্ষয়ের রঙ্গমঞ্চে শিক্ষাঙ্গন, লাগাম ধরবে কে?
  •   ৭৮ টি লাশ: শুধুই দূঘর্টনা নাকি হত্যা?
  •   একটি বাড়ি, চেতনার বাতিঘর...
  •   শিশুদের মনস্তাত্ত্বিক ভিত্তি পর্যবেক্ষেণেই কর্মমুখী শিক্ষার প্রয়োজন
  •   নবীন প্রাণে বসন্তের আহবান
  •   প্রসঙ্গ: কবি আনোয়ার হোসেন মিছবাহ’র ‘ছেঁড়া পঙক্তি’
  •   একুশ বছরে পদার্পণ, জ্ঞানের আলোকবর্তিকা : লংলা আধুনিক ডিগ্রি কলেজ