আজ মঙ্গলবার, ০৪ অগাস্ট ২০২০ ইং

শহীদ জগৎজ্যোতি: আমাদের দীপশিখা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৩-০২ ১৪:০১:৪৯

এম. রশিদ আহমদ :: আজ ২ মার্চ। ২০১৩ সালের এই দিনটি ছিল আমাদের জন্য খুবই দু:খ জনক অধ্যায়। সেদিনও ফাগুনের আগুন ঝরেছিল। কেন জানি না বসন্তের আবহাওয়া ছিল সেদিন গুমোট বাধা। আকাশে মেঘ জমেনি।কুয়াশাও ছিল না। বসন্তের স্নিগ্ধতাও ছিল না। দিনের শুরুটাও ভাল ছিলনা। তখন দেশে ছিল যোদ্ধাপরাধী, মানবতা বিরুধীদের বিচারের রায় নিয়ে উত্তাপ। সকালে সিলেটের ঐতিহাসিক কোর্ট পয়েন্টে ছিল আওয়ামীলীগ আয়োজিত সভা।

সভায় শীর্ষ নেতৃবৃন্দ কর্মীদের চাঙ্গা করা বক্তৃতা করেন। বিকেল থেকেই শহরময় শুরু হয় জামাত - শিবিরের তান্ডব। দর্শন দেউড়ীতে হামলা চালিয়ে ভেংগে চুরমার করে দেয় যুবলীগ নেতা নজরুল ভাইয়ের ফার্মেসী রক্তাক্ত হন কয়েকজন। সন্ধ্যায় হামলা চালায় যুবলীগ নেতা জুয়েল আহমদের গাড়ীতে। গাড়িতে আগুন দিয়ে পুড়িয়ে মারার চেষ্টা করে বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কেন্দ্রিয় সদস্য জগত জ্যোতি তালুকদার, সিলেট জেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাংস্কৃতিক সম্পাদক সাব্বির আহমদকে। কিন্তু তাদের প্রতিরোধের মুখে হায়েনারা কিছুক্ষন পিছুহটলেও ধারালো অস্ত্রের এলোপাথাড়ি বর্বরোচিত কুপে ক্ষতবিক্ষত হয়ে জীবন প্রদীপ নিভে যায় সিলেটের প্রগতিশীল ছাত্র রাজনীতির অকুতোভয় সৈনিক,  অসাম্প্রদায়িক চেতনার বীর সেনানী, সিলেটের সাংস্কৃতিক সামাজিক অঙ্গনের সদাহাস্যোজ্জল, সদালাপী, বন্ধুবৎসল জগৎজ্যোতি তালুকদারের।  আজীবনের জন্য পঙ্গুত্ব বরন করেন জুয়েল আহমদ।

সুনামগঞ্জ জেলার দিরাই উপজেলার সিংহনাত গ্রামের সতীশ চন্দ্র তালুকদারের কনিস্ট পুত্র জগতজ্যোতি তার অপরিসীম মেধা আর চুম্বকায়িত ব্যবহারে আওয়ামী রাজনীতি আঙ্গনই শুধু নয় অসাম্প্রদায়িক চেতনার সমাজে সবার কাছেই ছিলেন প্রিয় ভাজন। মদন মোহন কলেজ ছাত্রলীগ থেকে শুরু করে অসাধারণ নেতৃত্বের গুণাবলীর অধিকারী জগতজ্যোতি স্থান করে নিয়েছিলেন কেন্দ্রীয় কমিটিতেও। বিএনপি - জামায়াতের শাসনামলে পুলিশ র‍্যাব কর্তৃক অসংখ্য বার নির্যাতিত জগতজ্যোতি কারাবরণও করেছেন কয়েকবার। কুখ্যাত রাজাকার কাদের মোল্লার রায়কে কেন্দ্র করে সিলেটে গঠিত গণজাগরণ মঞ্চের উদ্যোক্তাদের একজন শহীদ জগতজ্যোতি তালুকদার। ধর্মান্ধ মৌলবাদীদের দ্বারা সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনার আক্রান্ত হলে অগ্নিরথ নিয়ে রাজপথে নামেন জগতজ্যোতি তালুকদার। সাম্প্রদায়িক প্রতিক্রিয়াশীলদের মুর্তিমান আতঙ্ক ছিলেন বলেই হায়েনারা বাচতে দেয়নি তাকে।

জগত জ্যোতি তালুকদার আমাদের সামনে এক দীপশিখা। যে শিখা কখনো নেভার নয়, অন্যায়ের বিরোদ্ধে আমাদের সব সময় পথ দেখাবে। অধিকার, আত্মসম্মান ও সাম্প্রদায়িক সম্প্রিতির মর্যাদা রক্ষায় আমাদের পথ দেখাবে। স্বাধীনতা বিরোধী, ধর্মান্ধ মৌলবাদী শক্তির অপততপরতা ও যারা সমাজকে কুসংস্কারের দিকে ধাবিত করছে তাদের বিরুদ্ধে ঐক্যবদ্ধ প্রতিরোধ গড়ে তুলা শহীদ জগতজ্যোতির আত্মদান আমাদের পথ দেখাক।

অবিলম্বে জগৎজ্যোতি তালুকদার হত্যা মামলার বিচারের দ্বার উন্মুক্ত করে হায়েনাদের ফাসির জোর দাবী জানাচ্ছি।

লেখক: সাবেক সহ সভাপতি, সিলেট জেলা ছাত্রলীগ।

(সিলেটভিউর আর্কাইভ থেকে নেওয়া)

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন