আজ মঙ্গলবার, ১৭ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

মৃত্যুকালে রাসূল (সা:) যে কথাটি বারবার বলেছিলেন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৩-০৬ ০১:১৫:৫০

হযরত মোহাম্মদ (সাঃ) এর জীবনের শেষ মূহুর্ত চলছে। ‘ঠিক সে সময় একজন লোক এসে ‘সালাম’ জানিয়ে বললেন, আমি কি ভিতরে আসতে পারি। রাসূল (সাঃ) এর কন্যা ফাতিমা (রাঃ) বললেন, দুঃখিত আমার পিতা খুবই অসুস্থ। একথা বলে ফাতিমা (রাঃ) দরজা বন্ধ করে রাসূল (সাঃ) কাছে গেলেন। হযরত রাসূল (সা) বললেন, কে সেই লোক? ফাতিমা বললেন, এই প্রথম আমি তাকে দেখেছি। আমি তাকে চিনি না।

রাসুল (সাঃ) বললেন শুনো ফাতিমা, সে হচ্ছে আমাদের এই ছোট্ট জীবনের অবসানকারী ফেরেশতা আজরাইল। এটা শুনে হযরত ফাতিমার অবস্থা তখন ক্রন্দনরত বোবার মতো হয়ে গিয়েছে। রাসূল (সাঃ) বললেন, হে জিবরাঈল আমার উম্মতের কি হবে? আমার উম্মতের নাজাতের কি হবে ? জিবরাঈল (আঃ) বললেন, হে রাসুল আপনি চিন্তা করবেন না, আল্লাহ ওয়াদা করেছেন আপনার উম্মতের নাজাতের জন্যে।

মৃত্যুর ফেরেশতা ধীরে ধীরে রাসূলের কাছে এলেন জান কবজ করার জন্যে। মালাকুল মউত আজরাইল আরো কাছে এসে ধীরে ধীরে রাসূলের জান কবজ করতে থাকলেন। পাশে দাঁড়িয়ে থাকা জিব্রাইলকে রাসূল বললেন ঘোঙানির সাথে, ওহ জিবরাঈল এটা কেমন বেদনাদায়ক জান কবজ করা। ফাতিমা (রাঃ) তার চোখ বন্ধ করে ফেললেন, আলী (রাঃ) তার দিকে উপুড় হয়ে বসলেন, জিবরাঈল তার মুখটা উল্টা দিকে ফিরিয়ে নিলেন।

রাসূলুল্লাহ (সাঃ) বললেন, হে জিবরাঈল তুমি মুখটা উল্টা দিকে ঘুরালে কেন, আমার প্রতি তুমি বিরক্ত? জিবরাঈল বললেন, হে রাসূলুল্লাহ (সাঃ) সাকারাতুল মউতের অবস্থায় আমি আপনাকে কিভাবে দেখে সহ্য করতে পারি!

ভয়াবহ ব্যাথায় রাসূল ছোট্ট একটা গোঙানি দিলেন। রাসূলুল্লাহ বললেন, হে আল্লাহ সাকারাতুল মউতটা (জান কবজের সময়) যতই ভয়াবহ হোক, সমস্যা নেই, আমাকে সকল ব্যথা দাও আমি বরণ করবো, কিন্তু আমার উম্মাতকে ব্যথা দিওনা। রাসূলের শরীরটা ধীরে ধীরে ঠান্ডা হয়ে আসতে লাগলো। তার পা, বুক কিছুই নড়ছে না এখন আর। রাসূলের চোখের পানির সাথে তার ঠোঁটটা কম্পিত ছিলো, তিনি কিছু বলবেন মনে হয়।

হযরত আলী (রাঃ) তার কানটা রাসূলের মুখের কাছে নিয়ে গেলো। রাসূল বললেন, নামাজ কায়েম করো এবং তোমাদের মাঝে থাকা দূর্বলদের যত্ন নিও। রাসূলের ঘরের বাইরে চলছে কান্নার আওয়াজ, সাহাবীরা একজন আরেকজনকে জড়িয়ে ধরে উচ্চস্বরে কান্নারত। হযরত আলী (রাঃ) আবার তার কানটা রাসূলের মুখের কাছে ধরলো, রাসূল চোখ ভেজা অবস্থায় বলতে থাকলেন, ইয়া উম্মাতি, ইয়া উম্মাতি, “হে আমার উম্মতেরা নামাজ, নামাজ..! নামাজ..!!-জুমবাংলা

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   রাজনগরে প্রতিপক্ষের হামলায় একজন নিহত, আটক ৪
  •   কাউন্সিলে প্রার্থী হবেন না ওবায়দুল কাদের
  •   সদরকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনালে জৈন্তাপুর
  •   চার বছরেও জুড়ীর বরইতলী কমিউনিটি ক্লিনিকের তালা খুলেনি
  •   আফগান প্রেসিডেন্টের সমাবেশে আত্মঘাতী হামলায় নিহত ২৪
  •   বিয়ানীবাজারে ‌‘চেতনায় বাংলাদেশ’ ম্যুরালের উদ্বোধন
  •   গোয়াইনঘাটের আলীরগাঁও ইউনিয়ন বিভক্তি
  •   ফেঞ্চুগঞ্জে আবারও ট্রেন লাইনচ্যুত
  •   বড়লেখায় সন্ধ্যায় নিখোঁজ, সকালে পুকুরে মিললো লাশ
  •   বড়লেখায় ৩৭৫ কার্টন বিদেশি সিগারেটসহ আটক ১
  •   রাব্বানী ডাকসু থেকে পদত্যাগ না করলে ব্যবস্থা: ভিপি নুর
  •   চাঁদাবাজির অভিযোগে ঢাকা উত্তর ছাত্রলীগের সহসভাপতি বহিষ্কার
  •   ছাত্রদলের কাউন্সিল ইস্যুতে সন্ধ্যায় বিএনপির জরুরি বৈঠক
  •   স্বাধীন বাংলার উন্নয়ন ও বিচক্ষণ নেত্রী শেখ হাসিনা
  •   বিভাগীয় শহরে হচ্ছে ১০০ শয্যাবিশিষ্ট পূর্ণাঙ্গ ক্যান্সার চিকিৎসাকেন্দ্র
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   পরিবারের আর্থিক অনটনে ৬৭ টাকা নিয়ে শহর ছাড়েন , এখন আয় ৮৫০০ কোটি
  •   আজ পবিত্র আশুরা
  •   ইন্দানগর সবুজ টিলার ভাঁজে
  •   উদ্বাস্তু জীবন ও রাষ্ট্রহীনতা
  •   অনুপ্রেরণার আরেক নাম মেধাবী ইফতু
  •   দাদা-দাদির বলা গল্পেই আমি মুসলিম হওয়ার অনুপ্রেরণা পাই
  •   নিজস্ব স্বভাব-বৈশিষ্ট্যের মধ্যেই বেহিসাবিয়ানার বহু মানুষ আছে
  •   একজন আচার্য শ্রীল প্রভুপাদ
  •   চায়ের কাপে ধোঁয়া ওড়ে ধোঁয়ার সাথে গল্প ঘোরে
  •   'আব্বু তুমি সিলেট যাবা না'
  •   বিনম্র শ্রদ্ধা হে জাতির পিতা
  •   ভাটির মানুষের আশির্বাদ ' দিরাই ছাত্রকল্যাণ পরিষদ '
  •   -----------কলিজা সিনার লোভ
  •   মাতুব্বরের মাংস খাওয়া
  •   আজ পবিত্র হজ :লাব্বাইক ধ্বনিতে আরাফামুখী লাখো ধর্মপ্রাণ মুসলমান