আজ বুধবার, ১৫ জুলাই ২০২০ ইং

তারুণ্যের চোখে ‘২০২০’

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০১-১১ ১৫:৫৩:৩৯

‘২০১৯’ বিদায় জানিয়ে এসেছে নতুন বছর। নতুন বছরে তারুণ্যের চোখে ভাসছে নতুন নতুন পরিকল্পনা। বিদায়ী বছরে না পাওয়া সব চাওয়াকে পূর্ণতা দিতে নতুন সব ভাবনাগুলো তুলে ধরেছেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই শিক্ষার্থী। শাহরিয়ার উদ্দিন ও অঙ্কিতা দাশ। আর লিখেছেন আমাদের শাবি প্রতিনিধি আবদুল্লা আল মাসুদ।

শাহরিয়ার উদ্দিন
সচেতন সমাজ গড়তে তরুণদের ভূমিকা অনেক বেশী। বিগত কিছু আন্দোলনে আমরা তরুণদের তাজা রক্তের উত্তাপ যেমন টের পেয়েছি, তেমনি দেখেছি তরুণরাই  কীভাবে হুজুগে কথায় গা ভাসিয়েছে। গুজবে কান দিয়ে মানুষ হত্যার মতো নির্মম ঘটনাও ছিলো চোখে পড়ার মতো। আগামী দিনের তরুণ সমাজ নিজেদের অধিকার আদায়ের পাশাপাশি সামাজিক স্বার্থ রক্ষায় আরও বেশি  সচেতন হবে, আত্মপ্রত্যয়ী মনোভাব নিয়ে গড়ে তুলবে নিজেদের।

বিপক্ষ মতের সম্মান না করা আমাদের চারিত্রিক বৈশিষ্ট্যের মধ্যে অন্যতম প্রধান। অকালে আর কোনো আবরার কে হারাতে না চাইলে বিপক্ষ মত শোনার সহনশীল মনোভাব লালন করতে শেখা এ জাতির জন্য এখন সময়ের দাবি। আর এক্ষেত্রে তারুণ্যের শক্তিই সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন। 

বড্ড বেশি ব্যস্ততায় কেটেছে ২০১৯ সাল। ২০১৮ সালের শেষে লিখেছিলাম; '২০১৯ সাল ২০১৮ সালের চেয়েও বেশি ব্যস্ততায় কাটুক', ঠিক তেমনটিই ঘটেছে।

২০২০ সালেও ব্যস্ত জীবন নিয়েই থাকতে চাই, ব্যস্ত থাকলে অলস মস্তিস্কের আলসেমি চিন্তাভাবনা থেকে মুক্ত থাকা যায়, তবে এবছরটা একটু  ভিন্ন পরিসরে সাজানোর ইচ্ছে আছে।  বরাবরের মতো আগামী এক বছরে নতুন নতুন বিষয় নিয়ে কাজ করার অভ্যাস অব্যাহত রাখতে চাই। ভালো কিছু  বই পড়া, মুভি দেখা এবং দেশ বিদেশ মিলিয়ে বেশ কয়েকটি জায়গায় ভ্রমণ করার পরিকল্পনা আছে। 'নিজের চাইতে ভালো উপদেশ কেউ দিতে পারে না’ মারকাস সিসারোর এ বিখ্যাত উক্তি ধরে  প্রতিক‚ল পরিবেশে পারিপার্শ্বিক অবস্থা বিবেচনা করে নিজেকে নিজে উপদেশ দেয়ার অভ্যাস আগে থেকেই তৈরি করতে পেরেছি। নতুন বছরে এই অভ্যাসটা আরো বেশী  পাকাপোক্ত করে নিব।  শুভকামনা তাদের প্রতি যারা ২০২০ সালের নির্ধারিত উদ্দেশ্য সফল করতে ইতিমধ্যে মনস্থির করেছেন।

ব্যবসায় প্রশাসন বিভাগ
২০১৫-১৬ শিক্ষাবর্ষ
সভাপতি, সাস্ট ক্যারিয়ার ক্লাব
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

অঙ্কিতা দাশ
নতুন নতুন সম্ভাবনা আর ভাবনা নিয়ে শুরু হোক ‘২০২০’। পুরনো যা অপ্রাপ্তি বা অপূর্ণতা সব পিছনে ফেলে নতুন বছরে আমরা নতুন করে ভাববো আমাদের নিয়ে, আমাদের চারপাশ নিয়ে।

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন শিক্ষার্থী হিসেবে বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাস নিয়ে নতুন বছরে আমার কিছু ভাবনা, কিছু প্রত্যাশা  রয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয় যে কোন শিক্ষার্থীর কাছে মুক্তচিন্তা বিকাশের এক অন্যতম স্থান। একটি বিশ্ববিদ্যালয় যদি সর্Ÿোচ্চ দুর্নীতিমুক্ত ও শিক্ষার্থীবান্ধব হয় তবেই তা সফল হবে মেধা ও মনন বিকাশে।
আমি স্বপ্ন দেখি একটি সুস্থ ও সুন্দর ক্যাম্পাসের। আমরা যে দুর্নীতিমুক্ত বাংলাদেশের স্বপ্ন দেখি তার চর্চা শুরু হোক বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায় থেকে। বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল কার্যক্রম স্বচ্ছ থাকুক। কোনো অসৎ ব্যক্তির প্রভাবে যেন এখানকার কার্যক্রম ব্যাহত না হয়।

শাবিপ্রবি অনেক দিক দিয়েই বাংলাদেশের প্রথম। আর এ ধারাবাহিকতা বজায় রাখতে একাডেমিক পড়াশোনার পাশাপাশি গবেষণা, সাংস্কৃতিক চর্চাসহ শিক্ষার্থীদের যেকোন দাবি-দাওয়া প্রশাসনের কাছে অগ্রাধিকার পাবে বলে আমি আশা করি। গবেষণামূলক কাজে সুযোগ-সুবিধা আরো বৃদ্ধি করলে তা ছাত্রছাত্রীদের যেকোন সফল গবেষণা ক্ষেত্রে সহায়ক হবে। নতুন বছরে শাবিপ্রবি আরো বেশী গবেষণাপ্রবণ হয়ে উঠুক, হয়ে মুক্ত সংস্কৃতি চর্চার লীলাভূমি। আমি চাইবো, আমার বিশ্ববিদ্যালয় সকল আঙ্গিকে শিক্ষার্থীবান্ধব থাকুক। দেশ ও জাতির কল্যাণে শাবিপ্রবি নিয়োজিত থাকুক সারাক্ষণ। নতুন বছর সকলের অনেক ভালো কাটুক, শুভকামনা।

বন ও পরিবশেবিদ্যা বিভাগ
২০১৬-১৭ সেশন
সভাপতি, মাভৈঃ আবৃত্তি সংসদ
শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন