আজ বৃহস্পতিবার, ২৯ অক্টোবর ২০২০ ইং

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার উক্তি অনুযায়ী আমরাও করোনা নিয়ে ভুল পথে হাঁটছি

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৭-১৪ ১৯:২৯:১৬

আবু তালেব মুরাদ :: সিলেট বিভাগে করোনাভাইরাসের আক্রান্তের সংখ্যা দিন দিন বাড়ছে। মঙ্গলবার দুপুর পর্যন্ত হিসাব অনুযায়ী সিলেট বিভাগে মোট আক্রান্তের সংখ্যা ৫৯৯০ জন এর মধ্যে সুস্থ হয়েছেন ২৪২৩ জন এবং মৃত্যু হয়েছে  ১০৭ জনের। সিলেট বিভাগের সরকারি হাসপাতাল সহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৯৪৪ জন। তাহলে দেখা যায় ২৫১৬ জন বাসায় আইসোলেশনে আছেন অথবা বিভিন্ন জনসমাবেশে ঘোরাঘুরি করছেন। তাই যদি হয় এবং ১ জন ৩ জনকে কমিউনিটি ট্রান্সমিশন করে তাহলে প্রতিদিন এই ২৫১৬ জন আরও প্রায় সাড়ে সাত হাজার জনকে সংক্রমিত করছে।

এত গেলো সিলেট বিভাগের করোনার সরকার প্রদত্ত হিসাব। এবার সিলেটের দিকে তাকালে দেখা যায় সরকারি হিসাব মোতাবেক আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা  ৩১৭৫ জন সুস্থ হয়েছেন ৭২০ এবং মৃতের সংখ্যা ৮২,এ ছাড়াও সিলেটের সরকারি হাসপাতালসহ বিভিন্ন বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৪০৮ জন।

সরকারি হিসাব মোতাবেক বাকি ১৯৬৫ জন বাসায় আইসোলেশনে আছেন কিন্তু আমরা ভাল করেই জানি বাঙ্গালীকে ঘরে রাখা মুশকিল। করোনাভাইরাস নিয়ে সে যাবেই বিভিন্ন জায়গায় ঘোরাঘুরি করতে। এদিকে প্রতিদিন গড়ে ১৫০ থেকে ২০০ জন করোনা উপসর্গ নিয়ে টেস্ট জটিলতার কারণে টেস্ট করাতে ব্যর্থ হচ্ছেন। আজ থেকে ৩ মাস আগে সিলেটে যখন তিনজন আক্রান্ত হয়েছিলো তখন দেখেছি ঢাকা থেকে আগত এক‌টি মাইক্রোবাস এবং ট্রেনের যাত্রী নিয়ে কি এলাহি কান্ড অথচ এখন প্রকৃত টেস্টে প্রতিদিন গড়ে অন্তত ৫০০ জনের পাওয়া যাবে করোনা পজিটিভ কিন্তু আজকেই দেখা গেলো হোটেল-রেস্টুরেন্ট খুলে দেয়া হয়েছে।

এক পরিসংখ্যানে দেখা গেছে সিলেটের হাটে ঘাটে প্রচুর মানুষ কমিউনিটি ট্রান্সমিশনের শিকার হচ্ছে। এর থেকে পরিত্রান পেতে হলে সরকারকে বাড়াতে হবে করোনা টেস্ট পাশাপাশি করোনা পজিটিভদের আইসোলেশনের ব্যাপারে  সরকারকে আরও অধিকতর কঠোর হতে হবে, তা না হলে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার আজকের রিপোর্ট অনুযায়ী "করোনা মোকাবেলায় বিশ্বের প্রচুর দেশ ভুল পথে হাঁটছে" তাহলে কি ধরে নিতে পারি আমরাও ভুল পথে হাঁটছি।

লেখক: কলামিস্ট

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ ১৪ জুলাই ২০২০/ জুনেদ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন