আজ বৃহস্পতিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

গ্রামে সন্ত্রাসীর হামলায় নিহত ১০০ রক্ষা পেল মাত্র ৫০ জন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৬-১১ ১২:১৯:০৩


সিলেটভিউ ডেস্ক :: কেন্দ্রীয় মালির একটি গ্রামে ডোগন ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর ওপর সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় একশ জনের মতো নিহত হয়েছে। ওই হামলা থেকে গ্রামটির মাত্র ৫০ জন মানুষ রক্ষা পেয়েছেন।

হামলার পর এখনও ১৯ জন মানুষ নিখোঁজ রয়েছে। আরও সহিংসতা ঠেকাতে ওই অঞ্চলে বিমান সহায়তা পাঠিয়েছে জাতিসংঘের শান্তিরক্ষী বাহিনী।

কর্তৃপক্ষ বলছে, মোবতি এলাকায় সানগা শহরের কাছে সোবামে দা গ্রামে ওই হামলার ঘটনা ঘটেছে। ওই গ্রামটিতে মাত্র ৩শ জনের মতো বাসিন্দা বসবাস করত। স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন, এখন পর্যন্ত ৯৫ জনের মরদেহ পাওয়া গেছে। এদের অনেকেরই শরীর পোড়া ছিল। এখনও নিহতদের খোঁজে কাজ চলছে।

মালিতে সম্প্রতি বেশ কয়েকটি হামলার ঘটনা ঘটেছে। এর কিছু হয়েছে গোষ্ঠীগত বিরোধের কারণে আবার কিছু ছিল জিহাদি গ্রুপের হামলা।

ডোগন শিকারি এবং সেমি নোমাডিক ফুলানি হার্ডার মধ্যে সংঘর্ষ সেখানে নৈমিত্তিক ঘটনা। মালির সরকার বলছে, সন্দেহভাজন সন্ত্রাসীরা এই হামলা চালিয়েছে এবং এখনও ১৯ জন নিখোঁজ রয়েছে।

আমাদো টোগো নামের এক ব্যক্তি ওই হামলা থেকে প্রাণে বেঁচে গেছেন। তিনি সংবাদ সংস্থা এএফপিকে বলেন, ৫০ জনের মতো ভারী অস্ত্রসজ্জিত ব্যক্তি মোটরবাইক এবং পিকআপে করে আসে। তারা প্রথমে পুরো গ্রামটি ঘিরে ফেলে এবং হামলা করে। যারাই পালানোর চেষ্টা করেছে তাদেরই হত্যা করা হয়েছে।

আমাদো টোগো আরও বলেন, এই হামলা থেকে কেউ রক্ষা পায়নি। নারী, শিশু, বৃদ্ধ-কেউ না। এদিকে কোন গ্রুপ এখনও পর্যন্ত ওই হামলার দায় স্বীকার করেনি।

ওই অঞ্চলে ডোগন এবং ফুলানি বাসিন্দাদের মধ্যে বহুদিনের দ্বন্দ্ব রয়েছে। এর মূল কারণ ডোগনরা প্রথাগত পদ্ধতিতে চাষবাস করে জীবিকা নির্বাহ করে।

অন্যদিকে, পশ্চিম আফ্রিকা থেকে আসা ফুলানি গোত্রের লোকেরা কিছুটা যাযাবর জীবনযাপন করে। এই দুই গোষ্ঠীর মধ্যে জমির মালিকানা নিয়ে বিরোধ অনেক পুরোনো।

তবে বিবিসি বলছে, ২০১২ সালে ওই অঞ্চলে ইসলামি জঙ্গি গোষ্ঠীর উত্থানের পর থেকে সংঘাত ও হামলার ঘটনা বেড়ে চলেছে। ফুলানিরা ওই অঞ্চলে মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ জনগোষ্ঠী, সে কারণে তাদের সঙ্গে ইসলামি জঙ্গি গোষ্ঠীর সংশ্লিষ্টতা রয়েছে এমন অভিযোগ করা হয়।

সৌজন্যে : জাগোনিউজ ২৪
 
সিলেটভিউ ২৪ডটকম/১১ জুন ২০১৯/মিআচ 

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   দিরাই উপজেলার সব ঘরে ঘরে বিদ্যুৎ
  •   আসুন দায়িত্বশীল সাংবাদিকতাকে বাঁচিয়ে রাখি
  •   সিলেট চেম্বার নির্বাচনের প্রিজাইডিং ও পোলিং অফিসারদের সাথে সভা
  •   সুনামগঞ্জে নদীতে অবৈধ ড্রেজার মেশিন আগুনে পুড়ালো প্রশাসন
  •   এফআর টাওয়ারের পেছনে আগুন
  •   সাকিব অনেক বেশি কথা বলছে: মাহমুদউল্লাহ
  •   মানিকে মানিক চিনে
  •   ছাত্রলীগের পর যুবলীগকে ধরেছি : প্রধানমন্ত্রী
  •   ছাত্রদল সভাপতির বয়স ৩৫ সম্পাদকের ৩১
  •   বিশ্বনাথে প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের মানববন্ধন, স্মারকলিপি প্রদান
  •   সম্মিলিত নাট্য পরিষদ সিলেটের আনন্দ শোভাযাত্রা শুক্রবার
  •   ভাগ্য বদলাতে সাপের মাথায় কষ্টিপাথর ছুঁয়ে খেলা শুরু হতো ক্যাসিনোতে
  •   হাফেজী মাদ্রাসায় আগুনে ২৭ শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু
  •   নূরাণী সমাজ কল্যাণ উন্নয়ন সংস্থার ফ্রি সেলাই ও ব্লক বাটিক প্রশিক্ষণের শুভ উদ্বোধন
  •   যুবলীগ নেতা ‘ক্যাসিনো খালেদ’ ৭ দিনের রিমান্ডে
  • সাম্প্রতিক আন্তর্জাতিক খবর

  •   হাফেজী মাদ্রাসায় আগুনে ২৭ শিশু শিক্ষার্থীর মৃত্যু
  •   ইরানি নারীদের স্টেডিয়ামে নিতে ফিফার জোরাজুরি!
  •   নেতানিয়াহুর জাতিসংঘ সফর বাতিল
  •   চার বছর প্রেম শেষে ৩০০ বছর বয়সী ভূতকে বিয়ে!
  •   কোনো হেলমেটই ঢোকে না মাথায়, জরিমানাও মাফ
  •   ৪৮ ঘন্টার মধ্যে যুক্তরাষ্ট্রের নতুন নিষেধাজ্ঞার কবলে পড়ছে ইরান
  •   আফগানিস্তানে ভুল হামলায় প্রাণ গেল ৩০ কৃষকের
  •   লাইবেরিয়ায় মাদ্রাসার আগুনে পুড়ল ২৭ শিশু
  •   বোরকা নিষিদ্ধ হলো নেদারল্যান্ডসে
  •   কাশ্মীর সীমান্তে পাকিস্তানের নতুন পদক্ষেপ, সতর্ক ভারত
  •   পশ্চিমবঙ্গের পাওনা নিয়ে মোদির সঙ্গে মমতার বৈঠক
  •   এবার পাকিস্তানের আকাশপথ ব্যবহারের অনুমতি চান মোদি!
  •   হামলার আশঙ্কায় সৌদি ভ্রমণে নাগরিকদের সতর্ক যুক্তরাষ্ট্রের
  •   মোদির ডাকে ক্যাটরিনার সাড়া
  •   ২ ভারতীয় গুপ্তচরকে আটক করল পাকিস্তান