আজ বুধবার, ০৫ অগাস্ট ২০২০ ইং

সিরিয়ায় এবার তুর্কিদের মুখোমুখি হচ্ছে আসাদ বাহিনী

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-১০-১৪ ২০:৫০:১৩

সিলেটভিউ ডেস্ক :: তুরস্কের হামলা থেকে বাঁচতে চিরশত্রু বাশার আল আসাদের সরকারি বাহিনীর সঙ্গে কুর্দিদের হাত মেলানোর পরই উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় তাল-তামের শহরে ঢুকে পড়েছে সিরিয়ান সেনারা।

সিরিয়ার সরকারি বার্তা সংস্থা জানিয়েছে, কুর্দিদের সঙ্গে সিরীয় সেনাবাহিনীর সমঝোতার পরই ওই অঞ্চলে সেনা পাঠানো শুরু করেছে দামেস্ক সরকার।

উত্তর সিরিয়ার কুর্দি নেতৃত্বাধীন কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, সমঝোতার অংশ হিসেবে সিরিয়ার সেনাবাহিনী পুরো সীমান্তে মোতায়েন করা হবে।

এক বিবৃতিতে বলা হয়েছে, সিরীয় সেনাবাহিনী মোতায়েনের ফলে তুরস্কের সেনাবাহিনী ও তাদের ভাড়াটে যোদ্ধাদের আগ্রাসন ও দখলকৃত এলাকা উদ্ধারে এসডিএফকে সহযোগিতা করবে।

কুর্দিরা আরও জানিয়েছেন, এই পদক্ষেপের ফলে তুর্কি সেনাবাহিনীর দখলকৃত আফরিনের মতো শহরও মুক্ত করার উপায় বের হবে।

তুর্কি সেনারা ইতিমধ্যে রাস আল-আইন শহরটি দখলে নিয়েছে। এ থেকে ৩৫ কিলোমিটার দক্ষিণ-পশ্চিমে তাল-তামের শহরটি অবস্থিত। এ শহরের কাছেই কৌশলগত দিক দিয়ে গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়ক দ্যা এম-ফোরের অবস্থান।

তুরস্কের সামরিক বাহিনী গত বুধবার সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলে ওয়াইপিজি গেরিলা গোষ্ঠীর বিরুদ্ধে অভিযান শুরু করেছে। ২০১৮ সালে দুই মাসের অভিযানের পর তুরস্কের সেনাবাহিনী ও তাদের সমর্থিত সিরীয় বিদ্রোহীরা আফরিন থেকে কুর্দিদের পিছু হটতে বাধ্য করে এবং শহরটির দখল নেয়।

সিরিয়ায় আইএসবিরোধী লড়াইয়ে পশ্চিমাদের প্রধান মিত্র ছিল কুর্দি নেতৃত্বাধীন সিরিয়ান ডেমোক্র্যাটিক ফোর্সেস (এসডিএফ)।

কিন্তু তুরস্ক কুর্দিদের নিষিদ্ধ ঘোষিত সংগঠনের শাখা মনে করে এবং সীমান্তের ৩০ কিলোমিটার গভীরে কুর্দিদের সরিয়ে সেফজোন প্রতিষ্ঠা করতে চাইছে।

একই সঙ্গে তুরস্ক সিরীয় শরণার্থীদের ওই সেফজোনে প্রত্যাবাসন করতে চায়। সমালোচকরা বলছেন, এই অভিযানের ফলে কুর্দি জনগণ জাতিগত নিধনযজ্ঞের শিকার হতে পারেন।


সৌজন্যে : যুগান্তর
সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৪ অক্টোবর ২০১৯/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন