আজ শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং

বৌদ্ধ মন্দিরে বিবস্ত্র হয়ে বাংলাদেশি তরুণীর ‘তাণ্ডব’

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৮-১২ ২০:২০:৪৫

সিলেটভিউ ডেস্ক :: থাইল্যান্ডের একটি বৌদ্ধ মন্দিরে ফারাহ হক (২৮) নামে বিবস্ত্র এক তরুণীর মদ্যপানের ঘটনায় বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে। ওই তরুণী বাংলাদেশের নাগরিক বলে জানা গেছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম দ্য সান ও ডেইলি মেইলের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সোমবার (১০ আগস্ট) সন্ধ্যায় থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলে চেয়িং মাই এলাকার একটি মন্দিরে এ ঘটনা ঘটে।

ওই প্রতিবেদনে ফারাহকে বাংলাদেশি বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

জানা গেছে, উপসনালয়ের প্রবেশমুখে বসে সম্পূর্ণ বিবস্ত্র অবস্থায় ওই তরুণী আপত্তিকর বিভিন্ন কথা বলছিলেন। সেখান থেকে তাকে সরে যেতে বললে পথচারীদেরও তিনি গালি দিতে থাকেন। এ সময় ঘটনার ভিডিও করেন একজন। পরে পুলিশ এসে তাকে আটক করে স্থানীয় সুয়ান প্রুং সাইক্রিয়াটিক হাসপাতালে ভর্তি করে।

চেয়িং মাই থানার পুলিশ কর্মকর্তা লেফটেন্যান্ট কর্নেল সোমকিত ফুসোদ জানান, ফারাহ প্রথমে একজন পর্যটক হিসেবে থাইল্যান্ডে যান। পরে গত এপ্রিল থেকে সেখানে একজন ইংরেজি শিক্ষক হিসেবে কাজ করছিলেন। তিনি শহরের একটি হোস্টেলে বসবাস করেন।

পুলিশের এই কর্মকর্তা আরো বলেন, অভিযুক্ত ওই তরুণী মদ্যপ অবস্থায় ছিলেন। নিজের ওপর নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে এই ভয়াবহ ঘটনা ঘটান। তাকে প্রথমে হাসপাতালে বিশ্রাম করতে দেওয়া হয়। তিনি স্বাভাবিক অবস্থায় আসলে তার মানসিক অবস্থা পরীক্ষা করা হয়।

এদিকে পুলিশের কয়েকজন কর্মকর্তা জানিয়েছেন, তারা এর আগেও ফারাহকে রাতে মদ্যপ অবস্থায় ঘোরাফেরা করতে দেখেছেন।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল সোমকিত ফুসোদ বলেন, ফারাহের মানসিক অবস্থা জানার জন্য কিছু পরীক্ষা করা হয়েছে। তার রিপোর্ট এলেই বোঝা যাবে এই ঘটনার জন্য তাকে কতোটা জরিমানা দিতে হবে। আমরা বিষয়টি তার দেশের দূতাবাস ও এখানে পরিচিতদের জানাচ্ছি।

এই ঘটনার ভিডিও ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়ে গেছে। এতে দেখা যায়, নেশার ঘোরে নিজের শরীরের সব পোশাক খুলে একটি বৌদ্ধ মন্দিরের উপরে উঠে পড়েন ওই তরুণী। এসময় স্থানীয় থাই বাসিন্দাদের সামনেই তীব্র চিৎকার করে তিনি স্লোগান দেন ও তারস্বরে চিৎকার শুরু করেন।



সৌজন্যে : পূর্বপশ্চিম
সিলেটভিউ২৪ডটকম/১২ আগস্ট ২০২০/ডেস্ক/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন