আজ বৃহস্পতিবার, ২১ জানুয়ারী ২০২১ ইং

‘সমুদ্র-গাভী’র পিঠে ট্রাম্পের নাম নিয়ে তোলপাড়!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০১-১২ ২০:৫৪:৩৪

সিলেটভিউ ডেস্ক :: বিপন্ন প্রজাতির একটি সমুদ্র-গাভীর পিঠে বিদায়ী মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের নাম পাওয়ার বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রের বন্যপ্রাণী বিষয়ক কর্তৃপক্ষ। গত রোববার ফ্লোরিডার হোমোসাসা নদীতে পাওয়া গেছে ভুক্তভোগী প্রাণীটিকে। খবর বিবিসির।

বিপন্ন প্রাণী মানাতি বা সমুদ্র-গাভী যুক্তরাষ্ট্রের অন্যতম সংরক্ষিত প্রাণী। এদের কোনোভাবে জ্বালাতনের প্রমাণ মিললেই এক বছরের কারাদণ্ড, পাশাপাশি ৫০ হাজার ডলার জরিমানা গুণতে হতে পারে।

মার্কিন কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, ফ্লোরিডার নদীতে পাওয়া সমুদ্র-গাভীটিকে গুরুতর আহত মনে হয়নি। তার পিঠে ট্রাম্পের নাম লেখা হয়েছিল মূলত শরীরে জমে থাকা শেওলার ওপর আঁচড় কেটে।

তারপরও, প্রাণীটির ভিডিও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়ার পর থেকেই চলছে ব্যাপক সমালোচনা। প্রেসিডেন্টের নাম লেখা সমুদ্র-গাভীর ছবি প্রথমে শেয়ার করে সিট্রাস কাউন্টি ক্রনিকেল নামে একটি স্থানীয় পত্রিকা। এরপর তা দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে অন্য মাধ্যমগুলোতেও।

সমুদ্র-গাভীকে ট্রাম্প-সমর্থকদের জ্বালাতনের বিষয়ে তদন্ত শুরু করেছে যুক্তরাষ্ট্রের মৎস্য ও বন্যপ্রাণী বিভাগ (ইউএসএফডব্লিউএস)।
এছাড়া, সেন্টার ফর বায়োলজিক্যাল ডাইভারসিটি নামে একটি দাতব্য সংস্থাও ওই ঘটনায় দায়ী ব্যক্তির তথ্য দিলে পাঁচ হাজার ডলার পুরস্কার ঘোষণা করেছে।

স্থূলাকার সমুদ্র-গাভীর গড় ওজন প্রায় ৪৫০ কেজি। ধীরেসুস্থে চলাচল করা প্রাণীটির সংখ্যা ক্রমেই কমে আসছে। এর জন্য তাদের বাসস্থান ধ্বংস, শেওলার প্রকোপ এবং দ্রুতগামী নৌযান বৃদ্ধিকে দায়ী করেছেন বিশেষজ্ঞরা।

ফ্লোরিডার মৎস্য ও বন্যপ্রাণী সুরক্ষা কমিশনের তথ্যমতে, ২০২০ সালে রাজ্যটিতে অন্তত ৬৩৭টি সমুদ্র-গাভী মারা গেছে। এদের মধ্যে ৯০টি প্রাণ হারিয়েছে নৌকার সঙ্গে আঘাত লেগে, আরও ১৫টির মৃত্যুর সঙ্গে মানুষের যোগসূত্র রয়েছে।

ইউএসএফডব্লিউএসের হিসাবে, ফ্লোরিডায় বর্তমানে ৬ হাজার ৩০০টির মতো সমুদ্র-গাভী রয়েছে। কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা ছাড়াই সমুদ্র-গাভীকে রাজ্যটির মাস্কট মনে করা হয়।



সিলেটভিউ২৪ডটকম / জাগো নিউজ / জিএসি-১৬

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন