আজ শনিবার, ০৬ জুন ২০২০ ইং

জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে নতুন অভিযোগ!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৬-০৮-০২ ০০:৫৭:৪৬

প্রখ্যাত ইসলামিক চিন্তাবীদ ও ধর্মপ্রচারক ড. জাকির নায়েকের বিরুদ্ধে এখন পর্যন্ত কোনো আনুষ্ঠানিক অভিযোগ প্রমান করতে পারেনি তদন্দকারী সংস্থা। এমনকি তদন্তকারীরা তার বিরুদ্ধে দায়ের করার মতো কোনো অভিযোগই পায়নি বলে বিভিন্ন সূত্র জানিয়েছে। তবে এরপরও বসে নেই নেই একটি মহল।

এরই ধারাবাহিকতায় ভারতের একটি মিডিয়ায় প্রকাশ, আইনি পদক্ষেপ নেয়ার আগে উপযুক্ত তথ্যপ্রমাণ সংগ্রহের যে নির্দেশ ভারতের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দিয়েছিল তার জের ধরে ৫৫ জনের একটি তালিকা তৈরি করেছে ন্যাশনাল ইনভেস্টিগেশন এজেন্সি (এনআইএ)৷ সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গত এক দশকে দেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে এই ৫৫ জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷ তাদের দাবি, এক সময় জাকির নায়েকের বক্তৃতা শুনেই প্রভাবিত হয়েছিল তারা৷

এনআইএ সূত্রে খবর, ২০০৫ থেকে ২০১৫ সাল পর্যন্ত সন্ত্রাসবাদের অভিযোগে গ্রেফতার হওয়া ৫৫ জনের নাম এই তালিকায় উল্লেখ করা হয়েছে৷ গ্রেফতারকৃত জঙ্গিরা সিমি, লস্কর-ই-তোইবা, ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন এবং আইএসের সদস্য৷

ডা. জাকির নায়েক অবশ্য সাংবাদিকদের বলেছেন, ‘আমি শান্তির দূত, কখনো সন্ত্রাসবাদকে উৎসাহিত করিনি।’ তিনি সন্ত্রাসবাদকে
নিন্দা করেন এবং ইসলামে সন্ত্রাসের কোনো স্থান নেই বলে মন্তব্য করেন। এ নিয়ে তিনি মিডিয়া ট্রায়ালের শিকার হচ্ছেন বলেও সংবাদ সম্মেলনে অভিযোগ করেন।

ডা. জাকির নায়েক গণমাধ্যমের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আমি মিডিয়াকে চ্যালেঞ্জ জানিয়ে বলছি, একটিও উদাহরণ দেখান যেখানে আমি সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করেছি। আমি কখনো সন্ত্রাসবাদকে সমর্থন করিনি এবং কখনও করব না।’

জাকির নায়েক বলেন, আমি শুনেছি, আমার বিরুদ্ধে নাকি একাধিক অভিযোগ এনেছে ভারতীয় মিডিয়া৷ আমি এসবে ভয় করি না৷ ভারত সরকারের পক্ষ থেকে আমার সঙ্গে একবারো যোগাযোগ করা হয়নি৷ তাই মিডিয়ার বিচারের জন্য আমি ভারতে ফিরব না৷’

তিনি বলেন, ‘বাংলাদেশের একটি সংবাদপত্র আমার বিরুদ্ধে ভুল খবর ছেপেছিল। ভারতীয় মিডিয়া ওই সংবাদপত্রকে উদ্ধৃত করে খবর চালিয়েছে।’

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের গুলশানে হোলি আর্টিসন বেকারিতে হামলাকারী পাঁচ জঙ্গির মধ্যে দু’জন অনুপ্রাণিত হয়েছিল ডা. জাকির নায়েকের বক্তৃতা শুনে। এমন অভিযোগের পর ভারত ও বাংলাদেশের নিরাপত্তাবাহিনীর স্ক্যানারে রয়েছে জাকির নায়েক৷ বাংলাদেশে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে জাকির নায়েকের পিস টিভির সম্প্রচার৷

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন