ক্যান্সার যখন লিভার ও ফুসফুসে

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০২-১৫ ০১:১৫:০৩

মানবদেহের বিশেষ গুরুত্বপূূর্ণ অঙ্গ হলো লিভার ও ফুসফুস। এ দুটি অঙ্গে যদি ভয়ানক ও জটিল ব্যাধি ক্যান্সার আক্রান্ত হয় তখন শারীরিক কার্যক্রম বাধাগ্রস্ত হয়। ফুসফুস ও লিভারে ক্যান্সার আক্রান্ত হলে সাধারণত সার্জারি তার মূল চিকিৎসা পদ্ধতি। বর্তমান প্রেক্ষাপটে এসব রোগের চিকিৎসায় অনেক আধুনিক পদ্ধতি সংযোজিত হয়েছে। এগুলোর মধ্যে মাইক্রোওয়েভ ও টেইস পদ্ধতিও বহমান।

মাইক্রোওয়েভ কি :  লিভার ও ফুসফুস ক্যান্সার টিউমারে আধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতি অন্যতম ও সফল চিকিৎসা হলো মাইক্রোওয়েভ। এটা হলো হাইভোল্টেজ ইলেকট্রিসিটিকে লো-ভোল্টেজে বিশেষ মেশিনের মাধ্যমে ক্যান্সার টিউমারের মধ্যে প্রবাহিত করে সম্পূর্ণরূপে, ক্যান্সার টিউমারের মধ্যে ক্যান্সার সেলকে সম্পূর্ণরূপে পুড়িয়ে ফেলার পদ্ধতি হলো মাইক্রোওয়েভ। এটা অত্যন্ত সফল ও উন্নত বিশ্বের সঠিক চিকিৎসা পদ্ধতি যা লিভার ও ফুসফুস টিউমার এবং ক্যান্সারে প্রয়োগ করা হয়। যাদের হেপাটাইটিস বি, সি, লিভার সিরোসিস ও প্রাইমারি লিভার ক্যান্সার হয়ে থাকে তাদের জন্য অত্যন্ত কার্যকরী ও সফল পদ্ধতি মাইক্রোওয়েভ। এই মাইক্রোওয়েভের মাধ্যমে ১২ সে.মি পর্যন্ত লিভার টিউমারকে সম্পূর্ণ পুড়িয়ে ফেলে ক্যান্সার সেলকে অকার্যকর করা যায়। মাইক্রোওয়েভ পদ্ধতিতে বর্তমানে  রোগীকে অজ্ঞান করার প্রয়োজন পড়ে না।

টেইস : ট্রান্স আরট্যারিয়াল কেমো এম্বোলাইজেশান। এর দ্বারা লিভার ও ফুসফুস টিউমার এবং লিভার ও ফুসফুস কান্সারের চারপাশে কেমো থেরাপি প্রয়োগের মাধ্যমে সম্পূর্ণভাবে যে কোনো ধরনের বড় লিভার ও ফুসফুস ক্যান্সার টিউমারকে নিয়ন্ত্রণ করা সম্ভব। এটা সম্পূর্ণ নিরাপদ ও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়ামুক্ত।

আরএফএ : এটা অত্যাধুনিক চিকিৎসা পদ্ধতির অন্যতম এক সফল সংযোজন। এই চিকিৎসা পদ্ধতি এখন দেশে ব্যাপক সমাদৃত। এর মূল কারণ হচ্ছে- আমাদের দেশের লিভার ক্যান্সারের রোগীরা যখন যখন ডাক্তারের কাছে যায় তাদের ক্যান্সারের টিউমারটা অনেক বড় হয়ে যায়। দেখা যায় অনেক ক্ষেত্রেই সার্জারিও সম্ভব হয় না।

তখন দুই থেকে তিনবার অথবা কোনো কোনো ক্ষেত্রে একবারই এই চিকিৎসা পদ্ধতিই প্রয়োগ করলে লিভার টিউমারের মধ্যে যে ক্যান্সার সেলগুলো থাকে বা কোষগুলো থাকে তা মেরে ফেলা সম্ভব হয়।

মাইক্রোওয়েভ ও টেইস : উন্নত বিশ্বে উভয় চিকিৎসা পদ্ধতি যথেষ্ট সমাদৃত। কোনো ক্ষেত্রে লিভার ও ফুসফুস ক্যান্সার রোগীদের আগে মাইক্রোওয়েভ তার ২/৩ সপ্তাহ পরে টেইস পদ্ধতি করা হয়ে থাকে। একে সমন্বয় চিকিৎসা বলা হয়।  কোনো ক্ষেত্রে আগে টেইস পরে মাইক্রোওয়েভ প্রয়োগ করা হয়। এসব চিকিৎসা ছাড়াও লিভার ও ফুসফুস ক্যান্সারে বর্তমান প্রচলিত চিকিৎসা কেমো থেরাপি রেডিও থেরাপি প্রয়োগ করা হয়ে থাকে। যাতে রোগী ধীরে ধীরে সুস্থতার দিকে যেতে থাকে। অন্যদিকে, লিভার ও ফুসফুস ক্যান্সার এবং টিউমারে আরও বেশ কিছু চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করা সম্ভব।

ডা. এল,এস নাহার, চীফ কো-অর্ডিনেটর,
ক্যান্সার টিউমার অ্যাবলেশন সেন্টার, মিরপুর,
ঢাকা। ফোন : ০১৭০৮৫২২৫১০

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   বিনামূল্যে নাগরিক সমস্যার সমাধান দেবে ‘ডিজিটাল মানুষ’
  •   রাজনগর সদর ইউপি পশ্চিম শাখা গঠন ও ইফতার মাহফিল
  •   যুক্তরাজ্য আওয়ামীলীগ নেতা হাবিবের উদ্যোগে ইফতার অনুষ্ঠিত
  •   কামরানের এক ফোনে...
  •   বিশ্বের সবচেয়ে দামি মোটরসাইকেল (ভিডিও)
  •   রমজানে মনীষীরা যেভাবে কোরআন তিলাওয়াত করতেন
  •   চেহারায় তারুণ্য ধরে রাখুন ৪ উপায়ে
  •   ফের অশালীন আচরণের সাক্ষী রইল কলকাতা!
  •   ইফতারে স্বাস্থ্যকর ৩টি জুস
  •   রাশিয়া বিশ্বকাপই শেষ দেখছেন যে তারকারা
  •   নবীজি যেভাবে রোজা রাখতেন
  •   যে বাঙালি নারীর হাতের ইশারায় উঠ-বস করতো দু'টি বাঘ!
  •   আইনভঙ্গ করে ১২ বছর পর জন্ম হল শিশুর!
  •   পৃথিবীর ইতিহাসে দুর্ধর্ষ কয়েকটি জাদুঘর ডাকাতি
  •   বাদশাহ সালমানকে ক্ষমতাচ্যুত করতে অভ্যুত্থানের ডাক যুবরাজ খালেদের