আজ বৃহস্পতিবার, ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২১ ইং

ডালিমের খোসার চা খেলে সারবে যেসব রোগ

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০১-২৭ ১৪:৩৬:৩৩

সিলেটভিউ ডেস্ক :: ছোট ছোট লাল রঙা দানা খেতেও যেমন সুস্বাদু; দেখতেও তেমন সুন্দর। ডালিম বা বেদানা স্বাস্থ্যের জন্য খুবই উপকারী একটি ফল। সুপারফুড হিসেবে বিবেচিত এ ফলটি। এর প্রতিটি দানায় রয়েছে সুস্থতার দাওয়াই।

রক্ত স্বল্পতা থেকে শুরু করে ত্বকের বিভিন্ন সমস্যা এমনকি হার্টের অসুখেরও সমাধান রয়েছে বেদানায়। এতে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার, জিঙ্ক, পটাসিয়াম, আয়রন এবং ওমেগা-৬ রয়েছে। এখনও পর্যন্ত ডালিমের রস খেয়েছেন, তবে কি কখনো এর খোসার চায়ের কথা শুনেছেন? ডালিমের দানার মতো এর খোসাও বেশ উপকারী।

ডালিমের খোসা দিয়ে তৈরি চা ক্যানসারের মতো মারণব্যাধির সঙ্গেও লড়াই করে। এতে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং খনিজ থাকে। যা আপনাকে বিভিন্ন রোগ থেকে দূরে রাখবে। ডালিমের খোসা দিয়ে তৈরি চা বানানোর পদ্ধতি জেনে নিন-

প্রথমে ডালিমের খোসা ভালো করে ধুয়ে নিন। এরপরে সেগুলো শুকিয়ে নিতে হবে। শুকানোর পরে খোসাগুলো গুঁড়ো করে নিয়ে একটি কন্টেইনারের রেখে দিন।

একটি পাত্রে পানি গরম করে ডালিমের খোসার গুঁড়ো মিশিয়ে ফুটিয়ে নিন। আপনি এতে লেবুর রস এবং মধু ব্যবহার করতে পারেন। এই চা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। এ ছাড়াও ডালিমে অনেক পলিফেনল থাকে; যা শরীরকে অনেক রোগ থেকে রক্ষা করে। জেনে নিন বেদানা চায়ের উপকারিতা-

>> অনিয়মিত ও অস্বাস্থ্যকর খাবার খাওয়ায় আমাদের ধমনী আস্তে আস্তে শক্ত হয়ে সংকুচিত হয়ে আসছে। এর ফলে হৃদরোগে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকি বাড়ছে। সেই সঙ্গে হার্ট অ্যাটাকের ঘটনাও বাড়ছে। তাই হাতের কাছে থাকা বেদানা খোসার চা খেয়ে সুস্থ থাকুন। মাংস পেশিতে দ্রুত অক্সিজেন পৌঁছে দেয় বেদানা চা।

>> বেদানা বা ডালিম পোমেগ্র্যানেট অয়েল ময়েশ্চারাইজার হিসেবে ভালো কাজ করে। ত্বকের ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ প্রতিরোধ করে। ফলিক অ্যাসিড, ভিটামিন সি, সাইট্রিক আসিড, ট্যানিন সমৃদ্ধ বেদানা ত্বকের স্বাস্থ্য বজায় রাখতে বিশেষ উপকারী।

>> এতে রয়েছে প্রচুর আয়রন, যা রক্ত স্বল্পতা দূর করে। এ ছাড়াও রুচি বৃদ্ধি করে, কোষ্ঠকাঠিন্য দূর করে। সেইসঙ্গে জন্ডিস, বুক ধড়ফড়ানি, বুকের ব্যথা, কাশি, কণ্ঠস্বর পরিষ্কার করতে সাহায্য করে।

>> কার্টিলেজ নামক অস্থি রস হাড়ের সংযোগস্থলে থাকে। যা হাড়ের ক্ষতি করে। বেদানার রসে আছে পটাশিয়াম ও পলিফেনল। যা হাড়ের সব ক্ষতিকর রোগ থেকে রক্ষা করে। এ ছাড়াও হাড়ের নানাবিধ রোগ যেমন- হাড়ের রোগ অস্টিওপোরেসিস থেকে মুক্তি পাওয়া যায় এই ফলটি থেকে।

>> প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট থাকায় বেদানা সিস্টোলিক ব্লাড প্রেশার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে। ফলে স্ট্রেস, টেনশন কমে। হার্টের সমস্যা থাকলে হার্টের অসুখে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনাও কমে।

>> শরীরে ক্যানসার কোষের বৃদ্ধিতে বেদানা সাহায্য করে। ফলে ক্যান্সার নিজে থেকেই মরে যায়। প্রস্টেট ক্যানসার, ব্রেস্ট ক্যানসারে ভালো কাজ করে বেদানার অ্যান্টি ক্যানসার এজেন্ট।

>> বেদেনা খোসার গুঁড়ো ফেসপ্যাক হিসেবে মুখে মাখলে ত্বক উজ্জ্বল হয়।

>> কাশি বা গলাব্যাথাও সারায় বেদানার চা।

>> বেদানার চা দিয়ে কুলকুচি করলে দাঁতের সমস্যা এবং মুখের দুর্গন্ধ দূর হয়।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ডেস্ক/মিআচৌ-২৭

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন