আজ সোমবার, ০১ জুন ২০২০ ইং

কবিতা ।। বি শ্বা স

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৯-১৭ ২১:৫৬:৩১






::  মাতুব্বর তোফায়েল হোসেন ::

মানুষকে বিশ্বাস করতে না পারার যন্ত্রণা বোঝো তুমি?
শিশুদের মত হামাগুড়ি দিয়ে এ’বুক থেকে ও’বুক,
দোলনায় দোল খেতে খেতে বাতাসের গায়ে ধাক্কা
কিংবা ঠোঁট ফুলিয়ে বয়স্ক বাবাদের অহংকার বিচূর্ণ করে
সকাল বিকাল পুতুলের বিয়ে দিতে
সাধ ও সাধ্যের বেসাতি সাজিয়ে
অজস্র মৃত্যুর নিরব দর্শক অথচ নির্বিকার তুমি;

জীবনের বিপুল প্রশস্ত পথ ও সীমানা
উন্মুক্ত রহিয়াছে নিষ্পাপ চোখের সমুখে
তাই বাগানে ফোটা ফুল, ঘাষের ডগায় শিশির আর
বিবস্ত্র সবুজ মাঠ কল্পলোকের স্বপ্ন আনে অনিঃশেষ;
দে দৌড় দে ছুট বিপুল-বেদম জোরে;
উথিত মাটির আচানক আঘাতে ঝরে রক্ত,
ব্যথায় শরীর অবশ হতে চায়;
তবুও বিশ্বাস অটুট থাকে মাটির প্রতি পৃথিবীর প্রতি।

ভালো করে জানা হয় নি যেসব, আকাঙ্ক্ষা হয়নি শেষ,
যে জীবন যাপিত হয়নি, যাপন করিতে ধরো সুতীব্র ইচ্ছা
তেমন কিছু বিদগ্ধ ঢঙে আচমকা টান মেরে
উপুড় কিংবা চিৎ করে আহত করে গেলে
আসমান জমিনে ফারাক হতে দেখেছি কোনোদিন?

নোনতা জলের নীল রঙে কুমিরের ঝাঁপাঝাপি;
আমরা গাছের গুড়ি ভেবে বহুদিন আশ্বস্ত ছিলাম,
বাহারি সাজের রঙচঙে সাপ ফণায় ফণায় নাঁচে;
আমরা সেসব রঙিন সুতোর শিল্প ভেবেছিলাম,
নেকড়ে অরণ্যে শুনি ঝাঁকবাঁধা হাসির কোলাহল;
নিরীহ শেয়াল ভেবে আজীবন তুচ্ছ করেছি জ্ঞান,
‘বিপদের বন্ধু প্রতিবেশী জন’ শত্রুর চিহ্ন রাখি নাই;
মাঝরাতে নিস্তব্ধতা নেমে এলে
সন্তর্পণে কে এসে ধরে এমন গলা টিপে?

বেশ্যার বাগান থেকে পায়ে পায়ে পিলপিল
সারি সারি মানুষ, প্রাণী ও প্রাণীর জাতক
কাব্যে ছন্দে ঢোলে ও তালে সুর তুলে আসে,
কোথাও চলে যেতে পারে না বুঝি সেসব?
সাগরে কিংবা অগ্নীগিরির চূড়োয় পাখা মেলে
তারা অন্তর্লীন হয়ে যেতে পারে না?
মরে যেতে পারে না তারা সবুজ শষ্যের মাঠে?
সুজলা নদীর মারণস্রোতে ভেসে যেতে চায় না?
কেন শুধু বিশ্বাসের মেঘ চুরি করে নিয়ে যায়?
কেন শুধু বিশ্বাসের শেকড় উপড়ে ফেলে দেয়?

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন