আজ রবিবার, ০৫ জুলাই ২০২০ ইং

গলায় মাছের কাটা, ধরো বিড়ালের পা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৫-২৮ ১৮:৩৮:৩৩

গলায় মাছের কাটা, ধরো বিড়ালের পা
:: ফারজানা ইসলাম লিনু ::
গলায় মাছের কাটা বিঁধলে বিড়ালের পা ধরে মাফ চাইলে গলার কাটা সুড় সুড় করে নামে। পথ ভুলে তিতনা মাছের ছ্যাচড়া কাঁটা কোন চিপায় আটকে থাকলে কাটা নামানোর উন্নততর চিকিৎসার দরকার পড়ে। তখন পরপারে অবস্থানকারী জনৈক খাইরুন বিবিয়ে জরা পড়িয়া দিছুইন বলে ভাতের দলা গিললে কাঁটা সমুলে উৎপাটিত হবেই।

কালো ভুলুয়ার ( ষাড়) দড়ি দিয়ে গা মুছে দিলে শরীরের এলার্জি জনিত চাকা র‍্যাশ মুহুর্তেই হাওয়া।

নাকের ময়লা গালের পিম্পলে কিংবা লোম কুন্ডুলে ঘষে দিলে পিম্পল ও কুন্ডুল পালিশ।

সরিষার তেল মাখানো পানে ফুঁ দিয়ে পেটের উপর আলতো করে বুলিয়ে আগুনে পোড়ালে বদ হজম জনিত পেটের ফাপ বেরিয়ে নেমে যাওয়া পেট চট করে উঠে যায়।

মরিচের ভেতর সরিষা ভরে আগুন লাগিয়ে জিনে ধরা ব্যক্তির নাকের কাছে ধরলে ভুত পেত্নি পালায়। জ্বিনের আছরজনিত খিচুনি সাথে সাথে নাই।

কদু বিচি সুতায় বেঁধে কানে লটকে দিলে দাঁতের পোকা বের হয়, ব্যাথা কমে যায়।

দুধ দাঁত উঠার সময় শিশুদের পেট খারাপ হলে সহজে সারেনা। পাশের বাড়ির বাদাইম্যা বংশী বাদককে ডেকে এনে ধর্মের ভাই বানিয়ে কি জানি এক গাছের ডাল কেটে গলায় জড়ি বেঁধে দিলে তাও সারে।

শরীর ঝেড়ে হলুদ রসের নির্জাস বের করলে জন্ডিস সারে।

চিকিৎসা বিজ্ঞানের এই অভূতপূর্ব সব সাফল্যের কারণেই
করোনা নির্মূলে শুরু থেকেই আমরা ভীষণ আত্মবিশ্বাসী। এই আত্মবিশ্বাস চেয়ে চিন্তে ধার কর্জ করে আনতে হয়নি। অতীব সম্মানের সাথে উত্তরাধিকার সুত্রে পেয়েছি।

তাইতো লক ডাউনের নামে একদিকে দেশকে অচল করে অন্য দিকে সবকিছু সচল রাখা হয়েছে। ঈদ শপিং থেকে শুরু করে পরিবারের সাথে আখেরি ঈদ উদযাপন কোনকিছুই বাদ যায় নি।

ঢাকা শহরের অভিযান অসমাপ্ত রেখে করোনা বহু আগেই বিস্তৃত হয়েছে সারা দেশে। প্রাণের শহর সিলেট এখন করোনার অভয়ারণ্য।

করোনার অভিযানের সফল সমাপ্তি এখন আর সময়ের ব্যাপার মাত্র।

লেখক : গল্পাকার ও শিক্ষিকা

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন