আজ মঙ্গলবার, ১৯ জুন ২০১৮ ইং

সিডরের ১০ বছর: ভয়াল ১৫ নভেম্বর আজ

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-১১-১৫ ১২:৫৯:১১

সিলেটভিউ ডেস্ক ::  আজ ১৫ নভেম্বর, সিডরের ১০ বছর। ২০০৭ সালের এ রাতে শতাব্দীর সবচেয়ে ভয়াল সামুদ্রিক জলোচ্ছ্বাস ও ঘূর্ণিঝড় উপকূলীয় অঞ্চল লন্ড-ভন্ড করে দিয়েছিল। উপকূলীয় অঞ্চলের শত-শত মানুষের জীবন প্রদীপ নিভে যায়। এখনো নিখোঁজ রয়েছে বহু মানুষ। মারা গিয়ে ছিল হাজার হাজার গবাদি পশু।

আগের দিনও যে জনপদ ছিল মানুষের কোলাহলে মুখরিত, মাঠ জুড়ে ছিল কাঁচা-পাকা সোনালি ধানের সমারোহ, পরের দিনই সেই চির চেনা জনপথ পালটে যায়।

দিনটিকে স্মরণ করতে স্বজন হারা মানুষেরা মিলাদ মাহফিল, দোয়া মনাজাত, কোরআনখানি ও নানাবিধ আয়োজন করে থাকে।

১০ বছর পরে সেই স্মৃতি আজও যারা বেঁচে আছেন এবং তাদের মধ্যে যারা আতœীয় স্বজন হারিয়েছেন সেই বিভীষিকাময় দিনটি মনে পড়লেই আঁতকে ওঠেন। বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট নিম্নচাপে সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছিল। নিম্নচাপটি কয়েক বার গতি পরিবর্তন করে মধ্যরাতে অগ্নিমুর্তি ধারন করে। রাতে ঘূর্ণিঝড়টি আঘাত হানে ভোলা, পটুয়াখালী, বরগুনা উপকূলীয় অঞ্চলে। ঝড়ের তীব্রতা কমে যাওয়ার পর শুরু হয় স্বজনদের খোজাখুজি। কারও বাবা নেই, কারও মা নেই। আবার কারও নেই স্ত্রী, পুত্র কন্যা, ভাই-বোন , দাদা-দাদী, নানা-নানী, মামা-মামী, খালা-খালু, চাচা-চাচি, গাছের ডালে কিংবা বাড়ি ঘরের খুটির সঙ্গে ঝুুলে আছে স্বজনদের লাশ। যে দিকে চোখ যায় শুধু লাশ আর লাশ উপকূলের বাতাসের কানপাতলেই মৃত্যু পথযাত্রি শত মানুষের চিৎকার আর স্বজনদের আহাজারি ১০ বছর পেরিয়ে গেলেও সেদিনের দুঃসহ স্মৃতি আজও জেগে আছে স্বজনহারাদের মাঝে। দুঃখ স্বপ্নের মত আজও তাড়া করে তাদের।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের (পাউবো) বরিশাল অঞ্চলের কার্যালয় জানিয়েছে, দেশের উপকূল সুরক্ষায় বর্তমানে ১২৩টি পোল্ডারের অধীনে পাউবোর পাঁচ হাজার ১০৭ কিলোমিটার বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ রয়েছে। এর মধ্যে ৯৫৭ কিলোমিটার হচ্ছে সমুদ্র-তীরবর্তী বাঁধ। সমুদ্রের তীরবর্তী এই বাঁধের সিংহভাগই বরিশাল, বরগুনা, পটুয়াখালী, ভোলা, ঝালকাঠি ও পিরোজপুর জেলার আওতায়।

সূত্র আরও জানায়, ২০০৭ সালের ১৫ নভেম্বরের সিডরে উপকূলীয় অঞ্চলের দুই হাজার ৩৪১ কিলোমিটার বাঁধ আংশিক ও সম্পূর্ণ ক্ষতিস্তহয়। যার আর্থিক ক্ষতির পরিমাণ ছিল ৭০০ কোটি টাকা। এর মধ্যে ছয় জেলার প্রায় ১৮০ কিলোমিটার সম্পূর্ণ এবং এক হাজার ৪০০ কিলোমিটার বাঁধ আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৫নভেম্বর২০১৭/ডেস্ক/এমইকে

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   হাজারো মানুষের ভালবাসায় সাংবাদিক চান মিয়াকে শেষ বিদায়
  •   সংস্কৃতিজন শোয়েব আহমদ নিজামের মৃত্যতে বিভিন্নমহলের শোক
  •   গোলাপগঞ্জের বন্যা পরিস্থিতি পরিদর্শনে শিক্ষামন্ত্রী
  •   কলম্বিয়াকে হারিয়ে ইতিহাস গড়ল জাপান
  •   কুলাউড়ার বন্যা কবলিত এলাকায় ব্যক্তি উদ্যোগে ঢেউটিন বিতরণ
  •   বঙ্গবন্ধু শিশু কিশোর মেলা জকিগঞ্জ পৌরসভা শাখা অনুমোদন
  •   কোম্পানীগঞ্জে বর্ন্যাত ও অসহায়দের মাঝে আ.লীগ নেতা শামীমের অনুদান
  •   মাধবপুরে বিবেক’র ঈদ পুর্নমিলনী
  •   নবীগঞ্জে বাস চাপায় মোটরসাইকেল আরোহী দুই ভাই নিহত
  •   বুধবার দেশে ফিরছেন বদরুজ্জামান সেলিম, সংবর্ধনার প্রস্তুতি
  •   কাতারে কাঠাঁলতলী প্রবাসী কল্যান পরিষদের ঈদ পূনর্মিলনী সম্পন্ন
  •   বালাগঞ্জে বন্যার্তদের পাশে মিসবাহ সিরাজ
  •   সিলেটে ৪ মেয়র, ১৫০ কাউন্সিলর প্রার্থীর মনোনয়নপত্র সংগ্রহ
  •   হবিগঞ্জে অগ্নিকান্ডে বসতঘর পুড়ে ছাই
  •   রাজনগরে কুশিয়ারা নদীর বাঁধ ভাঙ্গন: আবারো বন্যার আশঙ্কা
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগবিধিতে আসছে পরিবর্তন
  •   স্বাধীনতা বিরোধীদের ধিক্কার জানাতে ঢাকায় নির্মাণ হবে ঘৃণা স্তম্ভ
  •   'মায়ের পরনের কাপড়ও খুলে নিয়ে যায় বাবার খুনিরা'
  •   রিয়াদে আগুনে পুড়ে দুই বাংলাদেশির মৃত্যু
  •   এবারের ঈদে ঘরে ফেরার যাত্রা ছিল আনন্দদায়ক
  •   শান্তিপূর্ণভাবে ঈদ পালন করলো দেশবাসী
  •   এবার ঈদ যাত্রা হয়েছে যানজট মুক্ত
  •   সেলফি তুলতে গিয়ে ২ মেয়েসহ বাবার মৃত্যু
  •   সেনা প্রধান হলেন জেনারেল আজিজ আহমেদ
  •   প্রাথমিক বিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে বড় বিজ্ঞপ্তি
  •   জুনের শেষে ধেয়ে আসছে বন্যা
  •   বাংলাদেশের গণতন্ত্র এখন সুরক্ষিত
  •   আর্জে‌টিনার পতাকা টানাতে গিয়ে প্রাণ গেল স্কুলছাত্রের
  •   ‘বন্দুকযুদ্ধে’ নারী ইয়াবা কারবারি নিহত
  •   এনা পরিবহনের বাসে নারী নির্যাতনের অভিযোগ