আজ বৃহস্পতিবার, ২৭ জুন ২০১৯ ইং

শুক্রবার বসছে পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান দৃশ্যমান হবে প্রায় দুই কিলোমিটার সেতু

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৫-২৩ ১৫:২৪:১৮

ফাইল ছবি

সিলেটভিউ ডেস্ক:: কয়েকদফা পিছিয়ে অবশেষে কাল বসছে পদ্মা সেতুর ১৩তম স্প্যান। নদীর মাওয়া প্রান্তে আগে বসানো দশম স্প্যানের পাশে বসানো হবে এ স্প্যানটি। দুইটি স্প্যান পাশাপাশি বসাতে হলে যে লিফটিং ক্রেন ব্যবহার করা হয়, সেটিতে যান্ত্রিক জটিলতা দেখা দেয়ায় স্প্যান বসাতে বিলম্ব হয়। আগামীকাল ১৪ ও ১৫ নম্বর পিলারের ওপর এ স্প্যানটি বসানো হলে নদীর দুই প্রান্ত মিলিয়ে দৃশ্যমান হবে প্রায় দুই কিলোমিটার সেতু।

স্বপ্নের সেতু ডানা মেলছে। কাজে আসছে দ্রুত দৃশ্যমান অগ্রগতি। জাজিরা প্রান্তে এক সাথে দৃশ্যমান প্রায় ১ কিলোমিটার সেতুর আদলে এখন দ্রুত মাওয়া প্রান্তের কাজও এগিয়ে নেয়া হচ্ছে।

আগে বসানো ১২টি স্প্যানের ৯টি একসাথে জাজিরা প্রান্তে। একটি স্প্যান বসানো হয়েছে মাঝনদীতে। আর মাওয়া প্রান্তে আলাদাভাবে বসানো আছে ২টি স্প্যান। এখন সেগুলোর একটির পাশেই যোগ করা হবে নতুন স্প্যানটি।

আগে এখানকার ১৩ ও ১৪ নম্বর পিলারে বসানো হয়েছিলো দশম স্প্যান। এখন তার পাশে ১৩তম স্প্যানটি বসানোর জন্য এরমধ্যে প্রস্তুত করে তোলা হয়েছে ১৫ নম্বর পিলারও। এ স্প্যানটি বসলে দুই প্রান্ত মিলিয়ে দৃশ্যমান হবে ১ হাজার ৯৫০ মিটার সেতু।

আপাতত মূল নদীর মাওয়া প্রান্তে পুরো গতিতে কাজ চালিয়ে নেয়া গেলেও সমানের বর্ষা মৌসুমে তীব্র স্রোতের কারণে ব্যাহত হবে কাজ। সেটাকে ঘিরে তাই নিতে হচ্ছে বিশেষ পরিকল্পনা।

প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের লোকেরা এই রাতের বেলা ঢেউ হোক বা তুফান তারা তো নদীর মাঝে ছোট ছোট স্পিডবোট দিয়ে আসা যাওয়া করছে। এটাও তো সমস্যা কিন্তু সমস্যা নিয়েই তো চলতে হবে।


চীন থেকে আনা স্প্যানের ছোট টুকরোগুলো মাওয়ার ইয়ার্ডে জোড়া লাগিয়ে প্রায় মাসখানেক সময় নিয়ে ধূসর রং করার কাজও সেরে ফেলা হয়েছে। প্রায় ৪ হাজার মেট্রিকটন ওজন বহনে সক্ষম ভাসমান ক্রেনে তুলে নেয়া হয়েছে স্প্যানটি। জাজিরা প্রান্তে দূরত্বের কারণে স্প্যান নিয়ে রওয়ানা দেয়ার পর বসাতে ২ দিন সময় লাগলেও মাওয়া প্রান্তে একদিনেই স্প্যান বসিয়ে দেয়া সম্ভব হচ্ছে।
সিলেটভিউ ২৪ডটকম/২৩ মে ২০১৯/এমএইচআর

সৌজন্যেঃ সময় টিভি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   শ্রীমঙ্গলে ইয়াবা ব্যবসায়ী বিধান আটক
  •   সিলেট থেকে ময়মনসিংহ ট্রেন চালুর দাবিতে প্রধানমন্ত্রী বরাবরে স্মারকলিপি
  •   সেবা গ্রহীতারা শোষিত হবেন তা মেনে নেয়া যায় না: দুদক মহাপরিচালক
  •   ছাতক মাছ ধরতে গিয়ে বজ্রপাতে এক ব্যক্তির মৃত্যু
  •   চট্টগ্রামে অপহরণ হওয়া কিশোরকে শ্রীমঙ্গল থেকে উদ্ধার
  •   সিলেট জেলা কর আইনজীবী সমিতির কর্মবিরতি পালন
  •   গোয়াইনঘাটের নিখোঁজ ছাত্রী খাদিমপাড়া থেকে উদ্ধার, গ্রেফতার ২
  •   সিলেট চেম্বারের সাথে আসামের শিল্প ও বাণিজ্যমন্ত্রীর মতবিনিময় অনুষ্ঠিত
  •   সেভেন সিস্টার্সে রপ্তানী বৃদ্ধি করুন : মেয়র আরিফ
  •   মিথ্যা মামলায় জেল খাটানোর অভিযোগ ওসি ও চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে
  •   জগন্নাথপুরে হায়দার হত্যাকান্ড: খুনিদের গ্রেফতার করতে পারেনি পুলিশ
  •   সিলেট কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের কৃতি খেলোয়াড়দের সংবর্ধনা প্রদান
  •   নবীগঞ্জে কৃষকের তালিকায় অনিয়ম, ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস
  •   বরগুনায় রিপাতকে কুপিয়ে হত্যার প্রতিবাদে সুনামগঞ্জে সাংস্কৃতিকর্মীদে মানববন্ধন
  •   রিফাতের হত্যাকারীরা যেন দেশ ছাড়তে না পারে : আইজিপিকে হাইকোর্ট
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   রিফাতের হত্যাকারীরা যেন দেশ ছাড়তে না পারে : আইজিপিকে হাইকোর্ট
  •   এবার ঠাকুরগাঁও‌য়ে নার্স‌কে কু‌পি‌য়ে হত্যা
  •   দেশের জনগণ তো এমন ছিল না : হাইকোর্ট
  •   যারা দেখছিলেন তারা সাধারণ পথচারী বা ছাত্র নয়: প্রতিমন্ত্রী
  •   সরকার যোগ্য ও প্রশিক্ষিতদের বিদেশে পাঠাতে চায়: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  •   প্রকাশ্যে স্ত্রীর সামনে স্বামীকে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় গ্রেফতার ১
  •   রিফাতের হত্যাকারীদের যেকোনো মূল্যে গ্রেফতারের নির্দেশ :প্রধানমন্ত্রী
  •   রণদা প্রসাদ হত্যা মামলায় রায়ে মাহবুবুর রহমানের মৃত্যুদণ্ড
  •   রিফাত হত্যায় কী পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে: হাইকোর্ট
  •   পদ্মশ্রী পুরস্কার ও একুশে পদক জয়ী ঝর্ণা ধারা চৌধুরী আর নেই
  •   রোহিঙ্গাদের ফেরত না পাঠাতে পারলে নিরাপত্তা ও স্থিতিশীলতা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে
  •   স্ত্রীর সামনে স্বামীকে কুপিয়ে হত্যা
  •   গুগল-ইউটিউব-ফেসবুকে বিজ্ঞাপন প্রচারে দিতে হবে ১৫% ভ্যাট
  •   সোনার বাংলায় ‘দারিদ্র্য’ হবে সুদূর অতীতের কোনো ঘটনা: প্রধানমন্ত্রী
  •   রোহিঙ্গাদের কারণে নিরাপত্তা ব্যাহত হওয়ার আশঙ্কা প্রধানমন্ত্রীর