আজ সোমবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কাজ এখন মিয়ানমারে যাওয়া : পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৮-২৩ ১৪:২৩:২৪

সিলেটভিউ ডেস্ক :: পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসন প্রসঙ্গে বলেছেন, বাংলাদেশের পক্ষ থেকে মানবিক দিক থেকে যা যা করার ছিল সব করা হয়েছে। এখন আন্তর্জাতিক সম্প্রদায় যেন মিয়ানমারে যায়। এজন্য একটি কমিশন করা যেতে পারে। কমিশন, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা এবং অন্যান্য সবার এখন কাজ হচ্ছে মিয়ানমার যাওয়া।

আজ শুক্রবার দুপুরে রাজধানীর ধানমন্ডিতে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে ‘১৫ আগস্ট ও বাংলাদেশের ওপর এর প্রভাব’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করার সময় একথা বলেন তিনি।

রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে সর্বশেষ উদ্যোগ সফল না হলেও প্রক্রিয়া চালু থাকবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

মিয়ানমারে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে শক্ত অবস্থানে যাওয়ার ইঙ্গিত দিয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, শক্ত অবস্থানের মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের সেদেশে ফিরিয়ে নিতে মিয়ানমার ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে রাজি করাতে বাংলাদেশ সরকার কাজ করবে।

মিয়ানমার ও আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের গুরুত্ব উল্লেখ করে মোমেন বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের কথা শুনেছি। মানবিক দিক থেকে আমাদের যা যা করার ছিল, সব করেছি। এখন রোহিঙ্গাদের তাদের দেশে ফিরিয়ে নেওয়ার দায়িত্ব মিয়ানমারের এবং আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের। অনুকূল পরিবেশ তৈরির মাধ্যমে রোহিঙ্গাদের বুঝিয়ে দেশে ফেরত নেওয়ার দায়িত্ব মিয়ানমারের, কারণ তারা তাদের নাগরিক। ভিয়েতনাম, চীন, রাশিয়া এমনকি ভারতও এখন আমাদের অবস্থানের সঙ্গে একবাক্যে সমর্থন দিচ্ছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, আমরা আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়কে বলব তারা যেন মিয়ানমারে যায়। এজন্য একটি কমিশন করা যেতে পারে। কমিশন, জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থা এবং অন্যান্য সবার এখন কাজ হচ্ছে মিয়ানমার যাওয়া। সেখানে গিয়ে মিয়ানমারে রোহিঙ্গাদের জন্য অনুকূল পরিবেশ নিশ্চিত করা। আমাদের এখানে তাদের আর কাজ নেই। সেখানে যদি তাদের প্রবেশ করতে না দেয় তাহলে আমি বলব তারা মিয়ানমারের সঙ্গে ব্যবসা করে কেন? যুক্তরাষ্ট্রে মিয়ানমার এখনো জিএসপি সুবিধা পায়। কেন? আমি বলব জাতিসংঘ রোহিঙ্গা ইস্যুতে কিছু ভুল করেছে। তবে এখন সবাইকে নতুন করে ভাবতে হবে।


সৌজন্যে : কালের কণ্ঠ

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২৩ আগস্ট ২০১৯/মিআচ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সিলেটে বিএনপির সমাবেশের আগেই গ্রেফতার ১৮
  •   ইউজিসির কাঠগড়ায় ১৪ ভিসি
  •   সিলেট যুবদল, স্বেচ্ছাসেবকদল ও ছাত্রদলের প্রস্তুতি সভা
  •   শাহগলী আদর্শ বিদ্যানিকেতনের বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার পুরস্কার বিতরণ
  •   সিলেট মডেলিং মিডিয়া কাপের চ্যাম্পিয়ান কিংসের বিজয় উদযাপন
  •   বিল্ডিং নির্মাণ শ্রমিক কল্যাণ সংস্থার সভা অনুষ্ঠিত
  •   ‘সিলেটে দক্ষ ট্যুর গাইড গঠনের লক্ষে প্রশিক্ষণের ব্যবস্থা করা হবে’
  •   ফেঞ্চুগঞ্জ বিএনপির ৪ নেতা গ্রেফতার
  •   মাধবপুরের ছাত্রলীগ নেতা জয়কে নিয়ে প্রকাশিত সংবাদ ও আমাদের দুঃখ প্রকাশ
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জ স্বাস্থ্যকেন্দ্র থেকে খালি হাতে ফিরছেন রোগীরা
  •   সিলেট জেলা আইনজীবী সহকারী সমিতির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত
  •   সুরমার তীরে নদীপ্রেমী মানুষের সমাবেশ
  •   সিলেট চেম্বার অব কমার্সের দ্বিবার্ষিক নির্বাচনে সভাপতি পদে মনোনয়ন জমা
  •   জগন্নাথপুরে মীরপুর ইউপি নির্বাচনে দুইজনের প্রার্থীতা প্রত্যাহার
  •   কুলাঙ্গার জন্ম দিয়ে তোদের বাপ অন্যায় করেছে, শিক্ষার্থীদের ভিসি
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   ইউজিসির কাঠগড়ায় ১৪ ভিসি
  •   কুলাঙ্গার জন্ম দিয়ে তোদের বাপ অন্যায় করেছে, শিক্ষার্থীদের ভিসি
  •   পুলিশের নাকের ডগাতে চার ক্লাবেই চলছিল ক্যাসিনো
  •   চার ক্লাবে মিলল টাকা, মদ, সিসা ক্যাসিনো-জুয়ার সামগ্রী
  •   মতিঝিলের ক্লাবগুলোতেও অভিযান চললেও পাহারায় সম্রাট
  •   আরামবাগ, দিলকুশা ক্লাবে ক্যাসিনোর সন্ধান
  •   ভিক্টোরিয়া ক্লাব থেকে টাকা-মাদক উদ্ধার
  •   মোহামেডান, আরামবাগ, দিলকুশা ও ভিক্টোরিয়া ক্লাবে অভিযান
  •   হাতকড়া পরেও র‌্যাবকে ১০ কোটি টাকার অফার দেন জি কে শামীম
  •   বিচারবিভাগীয় কর্মকর্তাদের ফেসবুক ব্যবহারে নির্দেশনা
  •   ৫০ কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগে পরিচালকসহ আটক ২
  •   ক্যাসিনোর অবৈধভাবে উপার্জিত টাকা গ্রামের মানুষের কল্যাণে ব্যবহারের আহ্বান :সুমন
  •   এনআইডির ভিত্তিতে শিক্ষা সনদ সংশোধন করতে হবে
  •   ক্যাসিনোর টাকা বিদেশে পাচার হচ্ছে তিনভাবে
  •   নিয়ম ভেঙে যাত্রী নিয়ে বিয়ে করতে বরের বাড়িতে কনে!