আজ বৃহস্পতিবার, ০২ জুলাই ২০২০ ইং

গাঁজার বস্তার ওপর ঘুমের রাজ্যে নয়ন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-১১-১৮ ২০:১৬:২৫

সিলেটভিউ ডেস্ক :: গাঁজার বস্তার ওপর ঘুমিয়ে পড়েন মাদকাসক্ত যুবক শেখ নয়ন। একাধিক ডাকে ঘুম ভাঙ্গে তার।

কীভাবে ধরা পড়ল বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) হাতে এমন প্রশ্নের জবাবে নয়ন বলেন,‘আমি ফেন্সিডিল খাইতে আখাউড়ায় আসছিলাম। উপজেলার আনোয়ারপুর গ্রামের সিরাজ নামে এক মাদক ব্যবসায়ী আমারে গাঁজার বস্তা আখাউড়া শহরে পৌঁছাই দিলে নগদ এক হাজার টাকা এবং ফ্রিতে মাল খাইতে দিব এমন আশ্বাস দেয়। পরে গাঁজা ভর্তি বস্তা মাথায় কইরা আনোয়ারপুর সীমান্ত থেকে আখাউড়া শহরে আসার পথে বিজিবি আমারে আটক করে।

বিজিবি ফকিরমুড়া ক্যাম্পের জওয়ানরা রোববার রাতে তাকে আটক করে। পরে ফকিরমুড়া বিজিবি শেখ নয়নকে সোমবার সকালে আখাউড়া থানা পুলিশে সোপর্দ করতে নিয়ে আসে।

এ সময় ক্লান্ত দেহে গাঁজার বস্তার ওপর লুটিয়ে পড়ে ঘুমের রাজ্যে হারিয়ে যায় নয়ন। সে ব্রাহ্মণবাড়িয়া পৌরশহরের কাউতলী এলাকার বাসিন্দা সহিদ মিয়ার ছেলে।

আখাউড়া ফকিরমুড়া বিজিবি ক্যাম্পের নায়েক মো. আনোয়ার হোসেন গণমাধ্যমকে জানান, ত্রিপুরা সীমান্ত থেকে গাঁজার চালান নিয়ে দুই মাদক ব্যবসায়ী আসছে বলে গোপন তথ্য পায় ফকিরমুড়া বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি) জওয়ানরা। তারই সূত্র ধরে বিজিবির টহলের একটি দল উপজেলার আনোয়ারপুর-আখাউড়া সীমান্ত সড়কে অভিযান চালায়। পরে ২৫ কেজি গাঁজাভর্তি বস্তাসহ শেখ নয়নকে আটক করা হয়।

তিনি জানান, এ সময় সিরাজ নামক এক চোরাকারবারি পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়। পরে মাদক আইনে মামলা দিয়ে আখাউড়া থানায় নয়নকে সোপর্দ করা হয়। ওই মামলায় মাদক ব্যবসায়ী সিরাজকে পলাতক দেখানো হয়।

আখাউড়া থানার ওসি রসুল আহমদ নিজামী গণমাধ্যমকে বলেন, ওই যুবককে আদালতের নির্দেশে ব্রাহ্মণবাড়িয়া কারাগারে সোপর্দ করা হয়েছে।

সৌজন্যে :: যুগান্তর
সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৮ নভেম্বর ২০১৯/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন