আজ বুধবার, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং

মাসে তিনটি স্প্যান বসবে পদ্মা সেতুতে : কাদের

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০১-১৯ ১৯:২২:৫০

সিলেটভিউ ডেস্ক :: এ বছরের জুলাই-আগস্টের মধ্যে পদ্মা বহুমুখী সেতুর নির্মাণ কাজ সরকার অনেক দূর এগিয়ে নিতে চায় বলে জানিয়েছেন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

তিনি বলেছেন, 'পদ্মা সেতুতে এখন প্রতি মাসেই তিনটি করে স্প্যান বসবে। এসব স্প্যান বসানোর কাজটা আমরা যথা সময়েই শেষ করতে পারব। আমাদের একটা টার্গেট আছে সেটা হচ্ছে, আগামী জুলাই-আগস্টের মধ্যে কাজ আমরা অনেক দূর এগিয়ে নিতে পারব। এখানে আর কেনো বাধা নেই।'

রোববার (১৯ জানুয়ারি) থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের নেতৃত্বে দেশটির প্রতিনিধি দলের সঙ্গে বৈঠক শেষে সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে প্রেস ব্রিফিংয়ে তিনি এ কথা জানান।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ফাস্ট ট্রাক প্রজেক্টের সভার বিষয়ে জানতে চাইলে সেতুমন্ত্রী বলেন, 'ফাস্ট ট্রাকে পদ্মাসেতু এবং মেট্রোরেল আছে; আমাদের দুটি প্রজেক্ট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। অগ্রগতি ভালো। বঙ্গবন্ধু টানেল, মাতারবাড়ি, রূপপুর ও পায়রা বন্দর নিয়েও আলোচনা হয়েছে।

বড় প্রকল্পে সময় এবং বাড়ে টাকা বাড়ে কি না- এ বিষয়ে কাদের বলেন, 'আমাদের আর টাকা বাড়ছে না। আগে যে যে কারণে বেড়েছিল সেগুলো আমরা আগেই বলেছি।'

এদিকে, পদ্মা বহুমুখী সেতুর মূল নির্মাণ কাজ ৮৫ দশমিক ৫০ শতাংশ এবং সেতু প্রকল্পের পুরো কাজের ৭৬ দশমিক ৫০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে বলে জানিয়েছে ফাস্ট ট্রাক মনিটরিং কমিটি। রোববার (১৯ জানুয়ারি) প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে কমিটির পঞ্চম সভায় এ তথ্য জানানো হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

সভায় জানানো হয়, পদ্মা বহুমুখী সেতু নির্মাণ প্রকল্পের আওতায় জাজিরা প্রান্তে অ্যাপ্রোচ সড়কের কাজ ৯১ শতাংশ, মাওয়া প্রান্তে অ্যাপ্রোচ সড়কের কাজ শতভাগ, সার্ভিস এরিয়া (২) শতভাগ, মূল সেতু নির্মাণ কাজ ৮৫.৫০ শতাংশ, নদী শাসনের কাজ ৬৬ শতাংশ এবং প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি ৭৬.৫০ শতাংশ সম্পন্ন হয়েছে।

মিয়ানমারের রাখাইন রাজ্যে গভীর সমুদ্রবন্দর স্থাপনে চীনের আগ্রহের বিষয়ে রোহিঙ্গাদের ফেরা নিয়ে আশা কমে যাচ্ছে কি না- জবাবে কাদের বলেন, 'আমাদের স্বার্থ ক্ষুণ্ণ করার মতো বিষয় এখনো দেখছি না। আমাদের স্বার্থ ক্ষুণ্ন করার মতো কিছু হলে আমরা অবশ্যই অবজেকশন রাইজ করব।'

থাইল্যান্ডের রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে সাক্ষাতের বিষয়ে কাদের বলেন, 'এলিভেটেড এক্সপ্রেস ওয়ে এবং এমআরটি লাইন-৬ এর ৩ ও ৪ নম্বর প্যাকেজ বাস্তবায়ন করছে ইতাল-থাই। এর অগ্রগতি নিয়ে আলাপ আলোচনা হয়েছে। তাদেরকে আরও দ্রুত করতে বলেছি।'

ইতাল-থাইয়ের ফান্ড নিয়ে এক প্রশ্নে মন্ত্রী বলেন, 'তাদের নীতি গ্রহণ লেভেলের প্রতিনিধি মঙ্গলবার (২১ জানুয়ারি) ঢাকা আসছেন। ফান্ডের বিষয়ে কোনো সমস্যা থাকলে তারা সমাধান করবে।'

সৌজন্যে :: জাগোনিউজ২৪
সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৯ জানুয়ারি ২০২০/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন