আজ সোমবার, ২৪ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইং

গ্যাসের মজুত আর মাত্র ১১ বছর

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০১-২০ ১৮:৫১:৫৪

সিলেটভিউ ডেস্ক :: দেশে বর্তমানে মোট ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট উত্তোলনযোগ্য গ্যাসের মজুত রয়েছে, যা মাত্র ১১ বছর ব্যবহার সম্ভব বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ।

সোমবার (২০ জানুয়ারি) সংসদে মন্ত্রীদের জন্য নির্ধারিত প্রশ্নোত্তর পর্বে সরকারি দলের সংসদ সদস্য মোহাম্মদ এবাদুল করিমের লিখিত প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ তথ্য জানান। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে দিনের কার্মসূচি শুরু হয়।

প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে বিদ্যমান গ্যাস ক্ষেত্রসমূহ থেকে বর্তমানে দৈনিক ২ হাজার ৫৭০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদন করা হচ্ছে। তবে এখনো ১০ দশমিক ৬৩ ট্রিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস মজুত আছে, যা ১১ বছর ব্যবহার করা সম্ভব হবে। গ্যাসের ক্রমবর্ধমান চাহিদার প্রেক্ষিতে সম্ভাব্য স্থানে গ্যাসের কূপ খননের পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে।

গ্যাস নিয়ে সরকারের পরিকল্পনা তুলে ধরে প্রতিমন্ত্রী বলেন, গ্রহণ করা পরিকল্পনা অনুযায়ী বাপেক্স ২০১৯-২১ সাল নাগাদ দুটি অনুসন্ধান কূপ, ২০২২-৩০ সাল নাগাদ ১৩টি অনুসন্ধান কূপ এবং ২০৩১-৪১ সাল নাগাদ ২০টি অনুসন্ধান কূপ খননের উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

গৃহীত পরিকল্পনা বাস্তবায়নে বর্তমানে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নবীনগরে শ্রীকাইল ইস্ট-এ অনুসন্ধান কূপ খনন কার্যক্রম চলমান রয়েছে। এছাড়া সিলেট জেলার জকিগঞ্জে এবং ভোলা জেলায় দুটি অনুসন্ধান কূপ খনন কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

প্রতিমন্ত্রী আরও জানান, পেট্রোবাংলার সঙ্গে বিভিন্ন আঞ্চলিক তেল কোম্পানির সম্পাদিত উৎপাদন বণ্টন চুক্তির (পিএসসি) আওতায় অগভীর সমুদ্রের ব্লক এসএস ০৪, এসএস ০৯, এসএস ১১ এবং গভীর সমুদ্র অঞ্চলের ব্লক ডিএস ১২তে নতুন গ্যাসক্ষেত্র অনুসন্ধান কার্যক্রম চলমান রয়েছে। চলতি মাসের শেষ সপ্তাহে অগভীর সমুদ্রের ব্লগ ০৪ একটি অনুসন্ধান কূপ খনন শুরু হবে।

নিজ দলের সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুলের অপর প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী জানান, দেশে বর্তমানে দৈনিক ২ হাজার ৫৭০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস উৎপাদিত হচ্ছে এবং আমদানিকৃত এলএনজি সরবরাহের পরিমাণ দৈনিক ৫৯০ মিলিয়ন ঘনফুট। অর্থাৎ, বর্তমানে দেশে দৈনিক গড়ে মোট ৩ হাজার ১৬০ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে।

বিএনপির সংসদ সদস্য গোলাম মোহাম্মদ সিরাজের অপর এক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ছয়টি গ্যাস বিতরণ কোম্পানির মাধ্যমে বিদ্যুৎ ক্যাপটিভ পাওয়ার শিল্প সার কারখানা সিএনজি গৃহস্থালি বাণিজ্যিক ও চা বাগান শ্রেণিতে নিতে গ্যাস সরবরাহ করা হচ্ছে। ২০১৮-১৯ অর্থবছরে আবাসিক খাতে গড়ে দৈনিক ৪৩৫ মিলিয়ন ঘনফুট এবং বাণিজ্যিক খাতে গড়ে দৈনিক ২২ মিলিয়ন ঘনফুট গ্যাস সরবরাহ করা হয়েছে।

সৌজন্যে :: জাগোনিউজ২৪
সিলেটভিউ২৪ডটকম/২০ জানুয়ারি ২০২০/জিএসি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   বড়লেখায় বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
  •   বড়লেখায় সৌর বিদ্যুৎ পেলো ৭০০ পরিবার
  •   বড়লেখায় বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল নির্মাণ কাজের ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন
  •   সিলেট রোটারী জন্মদিন ও জাতিসংঘ দিবস পালন
  •   স্পেনের ইতিহাসে প্রথম একুশে বইমেলা উদযাপন
  •   দ্রুত কমিটি গঠনের লক্ষ্যে মহানগর যুবদলের ৯টি সাংগঠনিক টিম গঠন
  •   ছাতকে আমিনুলের বিরুদ্ধে মামলা প্রত্যাহারের দাবিতে প্রতিবাদ সভা
  •   বড়লেখায় পাখি পালন আইন সংশোধনের দাবি পিজন ক্লাবের
  •   অন্যরকম অপেক্ষায় সিলেটের রাহী আর বাংলাদেশ!
  •   গোলাপগঞ্জে ডাকাতি, মালামাল লুট
  •   গোলাপগঞ্জে ওয়ারেন্টভূক্ত আসামী গ্রেফতার
  •   ‘সমকামী’ আয়ুষ্মান খুরানার পাশে দাঁড়ালেন ট্রাম্প
  •   সিলেটে যারা খেলবেন বাংলাদেশ দলে
  •   মেট্রোপলিটন ইউনিভার্সিটিতে কমনওয়েলথ'র উদ্যোগে 'আমাদের পরিচয়' কর্মশালা
  •   গাঁজা কিনতে চার খুন
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   ৪১ জেলায় স্থগিত প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগে সুখবর আসছে
  •   সারাবছরের লোকসান হজফ্লাইটেই পুষিয়ে নিতে চায় বিমান!
  •   বাঈজী সরদারনি যুব মহিলালীগ নেত্রী পাপিয়ার উত্থান যেভাবে
  •   সালিশে দুই ভাইকে কোপালেন পুলিশ কর্মকর্তা!
  •   যুবনেত্রী পাপিয়ার ভয়ঙ্কর কর্মকাণ্ড নিয়ে মুখ খুলছে সাধারণ মানুষ
  •   মালয়েশিয়ায় শিগগিরই শ্রমবাজার খোলা নিয়ে আশাবাদী পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  •   প্রভাবশালী ব্যক্তিদের অন্তরঙ্গ দৃশ্যের ভিডিও ক্লিপ উদ্ধার পাপিয়ার কাছ থেকে
  •   যুবলীগ থেকে সেই পাপিয়া বহিষ্কার
  •   বাড়িতে বাবার লাশ, শোকে বুক বেধে পরীক্ষাকেন্দ্রে মেয়ে
  •   নেত্রী সেজে পতিতা ও মাদক ব্যবসা
  •   বাংলাদেশ নিয়ে মার্কিন সিনেটরের বক্তব্য ডাহা বানোয়াট: পররাষ্ট্রমন্ত্রী
  •   মার্চে আসছে ২০০ টাকার নোট
  •   ব্যাংক ঋণে চলছে সরকার
  •   ব্যাংক বন্ধ হলে আগের মতোই এক লাখ টাকার বেশি পাবে না গ্রাহক
  •   এসএসসি পরীক্ষার খাতা দেখছে স্কুল শিক্ষার্থীরা!