আজ সোমবার, ২৩ জুলাই ২০১৮ ইং

‘ওখানে মেয়েদের জীবন নেই’

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৯-১৩ ০০:২২:৪৫

‘মেয়েদের ছাড়ে না ওরা। উঠতি বয়সের মেয়ে। ঘরের বউ যার আছে, সে শেষ। মেয়েদের তো ধর্ষণ করেই। এর পরেও ক্ষমা নেই। ওখানে মেয়েদের জীবন নেই, বাবা।’

দুদিন হলো কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প কুতুপালংয়ে এসেছেন মদিনা খাতুন। ক্যাম্পের বাইরে রাস্তায় রাস্তায় দিন-রাত কাটছে তাঁর। বয়স পঞ্চাশের বেশি হবে। সোমবার তিনি এসব কথা বলেন।

মিয়ানমারে মদিনা খাতুনের গ্রামের নাম রাসিদং। ঈদের পরই তাঁর স্বামী হাবিব উল্লাহকে গুলি করে হত্যা করেছে মিয়ানমারের সেনারা। তাঁর পাঁচ ছেলে ও এক মেয়ে। এর মধ্যে দুই ছেলে নিখোঁজ। আসার সময়েও কোনো খোঁজ পেলেন না। এখন ভেবে নিয়েছেন, ওরা আর নেই। দুই ছেলের বউও আছে। তাদের ফেলে আসেননি মদিনা। তাঁর ভাষ্য, মেয়েদের জন্য মোটেও নিরাপদ নয় ওই এলাকা।

কুতুপালং ক্যাম্পের উল্টোপাশের সড়কে খাবারের জন্য দৌড়াদৌড়ি করছিলেন মদিনা। স্বামী কোথায় প্রশ্ন করতেই তিনি কান্নায় ভেঙে পড়েন।

‘বাবা, ওরা মেরে ফেলেছে ওকে। গুলি করে মেরে ফেলেছে’, বলেন মদিনা।

মিয়ানমারের সেনারা কী ধরনের নির্যাতন করে—জানতে চাইলে মদিনা বলেন, ‘মেয়েদের ওপর ওদের চোখ পড়ে বেশি। মেয়েদের ইচ্ছামতো ধর্ষণ করে। বড় বীভৎস সে দৃশ্য। সবার সামনে মেয়েদের ইজ্জত-সম্মান নিয়ে খেলা করে।’

মদিনা জানান, নারীদের ধর্ষণ করার পর গলা কেটে হত্যা করে সেনা ও তাদের লোকজন। শুধু তাই নয়, নারীদের স্তন কেটে ছেড়ে দেওয়া হয়। এর পর দেখে ওই নারী কী করে। তীব্র মৃত্যুযন্ত্রণা দিয়ে আনন্দ করে এক পর্যায়ে মেরে ফেলে।

মদিনা জানান, তাঁর এক প্রতিবেশী নারী শিশুকে বুকের দুধ পান করাচ্ছিল। সেনারা ওই নারীর দুই স্তন কেটে দেয়। পরে ওই শিশুকে ঠেলে দেয় নারীর বুকে। এসব বীভৎস দৃশ্য তাদের খুব ভালো লাগে। এমনও দৃশ্য মদিনা দেখেছেন, যেখানে নারীকে ধর্ষণ করে শরীরে কেরোসিন ঢেলে দেয়। তার পর ওর পুড়ে মারা যাওয়া দেখে।

মদিনা বলেন, যেসব ঘরে মেয়ে আছে, সেসব ঘরের মানুষ খুব কমই মেয়ে নিয়ে বাংলাদেশে আসতে পেরেছে। প্রতিটি পরিবারের কেউ না কেউ মারা গেছে সেনাদের গুলিতে।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   বিয়ানীবাজার বালিঙ্গায় এনআরবি ব্যাংকের আউটলেট এজেন্টের উদ্বোধন
  •   সিলেট সিটিতে আতঙ্ক ছড়াচ্ছে শিবির
  •   ১৮নং ওয়ার্ডে ছয়জন কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে উচ্চ শিক্ষিত একজন
  •   ​দোষলেন কামরান, উড়িয়ে দিলেন আরিফ
  •   ​আরিফ ‘কঠিন সিদ্ধান্ত’ নেবেন!
  •   ​সিটি নির্বাচন: সিলেটে ২৭ ওয়ার্ডে ৯ ম্যাজিস্ট্রেট
  •   আরিফের জরুরি সংবাদ সম্মেলন সোমবার
  •   মেয়র প্রার্থী কামরানের সমর্থনে জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের গণসংযোগ
  •   কামরানের নৌকার সমর্থনে তেলিহাওর ব্লক কালিবাড়ি শাখার কর্মীসভা
  •   জনগণ আওয়ামী লীগকে ক্ষমতায় দেখতে চায় না : এমএ হক
  •   মেয়র প্রার্থী কামরানের সমর্থনে কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা যুবলীগের গণসংযোগ
  •   কামরানের সমর্থনে সুনামগঞ্জবাসীর মতবিনিময় সভা
  •   ফ্রেন্ডস গ্রুপ করপোরেশনের উদ্যোগে নৌকার গণসংযোগ
  •   কোম্পানীগঞ্জের অসুস্থদের দেখতে হাসপাতালে শামীম
  •   আল আমিনকে ব্ল্যাক ড্রাগন মার্শাল আর্ট একাডেমীর সংবর্ধনা
  • সাম্প্রতিক জাতীয় খবর

  •   মাদকাসক্তরা পাবে না সরকারি চাকরি
  •   কক্সবাজারে অস্ত্র তৈরির কারখানার সন্ধান, আটক ২
  •   বাকৃবিতে আগুনে পুড়ল বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠানের মঞ্চ
  •   নৌকায় সমর্থন সুশীল সমাজের: জমে উঠেছে ভোটের হিসাব
  •   জনগণ কী পেল, সেটাই বড় চাওয়া: প্রধানমন্ত্রী
  •   নির্বাচনের বছর ডিসিদের প্রতি সরকারের যত নির্দেশনা
  •   নারায়ণগঞ্জে শিশু গৃহকর্মীকে খুন্তির ছ্যাকা, দম্পতিকে গণধোলাই
  •   অধ্যাপক মোজাফফর আহমদের অবস্থা আশঙ্কাজনক
  •   দেশের সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্ক সংকেত
  •   নির্বাচনী প্রচারণায় প্রার্থীদের পরিবারের সদস্যরা, স্ত্রীকে নিয়ে বিপাকে বুলবুল
  •   নৌকার গণজোয়ার বইছে রাজশাহীতে
  •   বিশ্ববিদ্যালয়ে সেশনজট: এখন শুধুই অতীত
  •   এইচএসসি পরীক্ষায় পাশের হার কমলেও শিক্ষার গুণগত মান বেড়েছে
  •   গরমে স্বস্তি পেতে চাই সবুজ নগরী
  •   বোরকা পরে হলে ঢুকে ছাত্রী ধর্ষণ, ২ জনের যাবজ্জীবন