আজ বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯ ইং

খালেদা জিয়ার ঈদ হবে বঙ্গবন্ধু মেডিকেলে

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৮-১১ ১৩:০৬:২৯

সিলেটভিউ ডেস্ক ::দুর্নীতির দুই মামলায় দন্ডিত হয়ে প্রায় দেড় বছর ধরে বন্দী থাকা বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার এই ঈদও কাটবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে (বিএসএমএমইউ)। কারা হেফাজতে এ হাসপাতালেই চিকিৎসা নিচ্ছেন তিনি। সরকার-গঠিত মেডিকেল বোর্ডের অধীনে চিকিৎসা চলছে তাঁর। জেলে যাওয়ার পর টানা চতুর্থ ঈদ পার হতে চললেও তাঁর দুই ঈদ কেটেছে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কেন্দ্রীয় কারাগারের কক্ষে। অসুস্থ হয়ে দ্বিতীয় দফায় হাসপাতালে ভর্তির পর সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী গত ঈদুল ফিতর কাটিয়েছেন বিএসএমএমইউতেই। গত বছর ৮ ফেব্রুয়ারি জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় সাজা হওয়ার পর বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে পুরান ঢাকার কেন্দ্রীয় কারাগারে নিয়ে যাওয়া হয়। পরে তাঁর শারীরিক অবস্থা খারাপ হলে গত ১ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় হাসপাতালে ভর্তি করা হয় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রীকে। এদিকে ঈদের দিন হাসপাতালের প্রিজন সেলে খালেদা জিয়ার সঙ্গে দেখা করতে চেয়ে এরই মধ্যে কারা কর্তৃপক্ষের কাছে আবেদন জানিয়েছেন খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্য ও বিএনপির সিনিয়র নেতারা। অন্যদিকে বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে ৩৬টি মামলা থাকলেও তাঁর মুক্তিতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে দণ্ড হওয়া মামলা দুটিই। জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় জামিন হলেই তাঁর মুক্তির পথ খুলবে। এর মধ্যে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় হাই কোর্টে জামিনের চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়েছেন তাঁর আইনজীবীরা। এরপর দফায় দফায় বৈঠক করলেও পরবর্তী কার্যক্রম নিয়ে কোনো সিদ্ধান্তে আসতে পারেননি তারা। খালেদা জিয়ার স্বাস্থ্যের বিষয়ে সরকার-গঠিত মেডিকেল বোর্ড বলেছে, তাঁর স্বাস্থ্যের অবস্থা আগের চেয়ে বেশ ভালো।

খালেদা জিয়ার জন্য গঠিত মেডিকেল বোর্ডের প্রধান অধ্যাপক জিলান মিয়া সরকার জানান, আগের চেয়ে অনেক ইমপ্রুভ হয়েছে। তবে তাঁর যে ধরনের সমস্যা তার ইমপ্রুভ হতে কিছুটা সময় লাগে।

বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান চিকিৎসক নেতা অধ্যাপক ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘আমি যতটুকু জানতে পেরেছি, বেগম জিয়ার দুই হাতের গিরায় ব্যথা এখনো ভালো হয়নি। তাঁর খাবার খেতে কষ্ট হয়। ডায়াবেটিস এখনো নিয়ন্ত্রণে আসেনি। সব মিলিয়ে বিএনপি চেয়ারপারসন ভালো নেই। তাঁর সুচিকিৎসা জরুরি।’

দুই মামলায় জামিন পেলেই মুক্তি : বিএনপি চেয়ারপারসনের বিরুদ্ধে থাকা ৩৬ মামলার মধ্যে দুটি তাঁর মুক্তিতে বাধা হয়ে দাঁড়িয়েছে। এর সঙ্গে উচ্চ আদালতে বর্তমানে অবকাশকাল চলছে। ঈদের পর কোর্ট খুললেই এসব মামলায় জামিনের প্রক্রিয়া শেষ করা সম্ভব হবে বলে মনে করেন আইনজীবীরা। আদালতের নথিপত্র পর্যালোচনা করে দেখা যায়, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে ৩৬টি মামলার ৫টিতে দুর্নীতির অভিযোগে আছে। সেগুলো হলো- জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট, নাইকো, গ্যাটকো ও বড়পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলা। এ পাঁচটি মামলাই সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকার আমলে (এক-এগারোর সময়) করা। বাকিগুলো হরতাল-অবরোধে নাশকতার মাধ্যমে মানুষ হত্যা, রাষ্ট্রদ্রোহ, ইতিহাস বিকৃতি, বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে কটূক্তি, ভুয়া জন্মদিন পালন ও ঋণ খেলাপের অভিযোগে বর্তমান সরকারের সময়ে করা হয়েছে। জিয়া অরফানেজ মামলায় হাই কোর্টের দেওয়া ১০ বছরের সাজার বিরুদ্ধে লিভ টু আপিল (আপিলের অনুমতি চেয়ে আবেদন) করা হয়েছে। একই সঙ্গে ওই আবেদনে খালেদা জিয়ার জামিনও চাওয়া হয়েছে। আর জিয়া চ্যারিটেবল মামলায় বিচারিক আদালতের দেওয়া সাত বছরের সাজা ও অর্থদন্ডের রায়ের বিরুদ্ধে খালাস চেয়ে হাই কোর্টে আপিল করেছেন খালেদা জিয়া। গত ৩১ জুলাই এ মামলায় জামিনের বিষয়ে শুনানি হলেও হাই কোর্ট খালেদা জিয়াকে জামিন দেয়নি। বিএনপির আইনজীবীদের একাধিক সূত্র বাংলাদেশ প্রতিদিনকে জানান, জামিন আবেদন নামঞ্জুর হওয়ার পর খালেদা জিয়ার জ্যেষ্ঠ আইনজীবীরা আপিলের বিষয়ে দফায় দফায় বৈঠক করেছেন। তবে নানা রকম মতবিরোধ দেখা দেওয়ায় পরবর্তী করণীয় ঠিক করতে পারেননি তারা। জানতে চাইলে খালেদা জিয়ার আইনজীবী ব্যারিস্টার এ কে এম এহসানুর রহমান বাংলাদেশ প্রতিদিনকে বলেন, ‘খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে মোট ৩৬টি মামলা রয়েছে। এখন মুক্তি পেতে হলে তাঁকে জিয়া অরফানেজ ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট মামলায় জামিন পেতে হবে। বর্তমানে ঈদুল আজহার কারণে উচ্চ আদালতে অবকাশ চলছে। তাই ঈদের পরই বিএনপি চেয়ারপারসনের জামিনের বিষয়ে চেষ্টা চালানো যাবে।’


সৌজন্যে : বিডি-প্রতিদিন

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১১ আগস্ট ২০১৯/মিআচ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   পদ্মায় বড়শি দিয়ে ওঠানো হলো নাসিমের মৃতদেহ
  •   সৌদি আরবে বাসে আগুন, ৩৫ ওমরাহযাত্রী নিহত
  •   বার্সেলোনা থেকে এল ক্লাসিকো সরানোর প্রস্তাব
  •   স্পেনে টাইগার মাদ্রিদের নতুন জার্সি উন্মোচন ও টুর্নামেন্টে শুভ সূচনা
  •   সিলেট জেলা কৃষক লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
  •   বিশ্বনাথ প্রেসক্লাবে এএসপি রফিকুল হোসেনকে সম্মাননা
  •   ছাত্রলীগ না করে চাকরি করো: ছাতকের ইউএনও
  •   বিশ্বনাথে পপির আত্মহত্যা: র‌্যাব-পুলিশের অভিযানে গ্রেফতার ২
  •   ‘নতুন মিশনে’ পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন
  •   নিজের নিরাপত্তা চেয়ে যুবলীগ নেতা শামিমের জিডি
  •   বানিয়াচংয়ে নবাগত ওসি রঞ্জন সামন্তের সাথে সাংবাদিকদের মতবিনিময়
  •   সিরিয়া যুদ্ধে তুর্কি মিত্রবাহিনীর ৪৬ জন নিহত
  •   এস.এম.পি ও রেঞ্জ পুলিশের খেলা গোলশূন্য ড্র
  •   বড় ভাইয়ের নির্দেশে আবরারকে ডেকে এনে মুখে কাপড় দিয়ে মারা হয়: সাদাত
  •   বিশ্বনাথ সদর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য ইউনুছ আলী সংবর্ধিত
  • সাম্প্রতিক রাজনীতি খবর

  •   সোহরাওয়ার্দীতে সমাবেশ ডেকেছে ঐক্যফ্রন্ট
  •   বিএনপি সহিংসতা করলে অবস্থা বুঝে ব্যবস্থা: ওবায়দুল কাদের
  •   যুবলীগের শীর্ষ দুই পদে আলোচনায় যারা
  •   এমফিলে ভর্তিতে গোলাম রাব্বানীর অনিয়মের সত্যতা মিলেছে
  •   পুলিশও ভোটারদের বের করে দিচ্ছে: রিজভী
  •   অভিযোগ প্রমাণ হওয়ায় অমিত সাহাকে ছাত্রলীগ থেকে বহিষ্কার
  •   ট্যাক্স আদায়ে ধনীদের প্রতি নির্দয় হতে হবে : অর্থমন্ত্রী
  •   সংবিধান পড়ে শোনালেন আমান, পুলিশ বলল ‘গো ব্যাক’
  •   ঐক্যফ্রন্টের র‌্যালিতে পুলিশের বাধা
  •   যুবলীগের ‘বয়সসীমা’ নির্ধারণে ভাবনা
  •   ৭১ বছর বয়সে যুবলীগের চেয়ারম্যান ওমর ফারুক
  •   যুবলীগ চেয়ারম্যান কার্যালয়ে যান না তিন সপ্তাহ ধরে
  •   আমার ছেলেকে মুক্ত করে দেন : সম্রাটের মা
  •   বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজ উদ্দিন গ্রেফতার
  •   এখন সবাই আওয়ামী লীগ হতে চায় : তথ্যমন্ত্রী