আজ মঙ্গলবার, ২৬ জানুয়ারী ২০২১ ইং

শেষ টেস্টে গুরুত্বপূর্ণ দুই খেলোয়াড়কে হারাল ভারত

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০১-১২ ১৯:২৬:১৩

সিলেটভিউ ডেস্ক :: সিডনি টেস্টে অসাধ্য সাধন করেছিলেন হনুমা বিহারি এবং রবিচন্দ্রন অশ্বিন। ৪৪ ওভার অস্ট্রেলিয়ান পেসকে আটকে রেখেছিলেন তারা। তিন ঘণ্টারও বেশি ব্যাটিং করে অস্ট্রেলিয়ার জয় কেড়ে নিয়েছিলেন তারা। করেছেন ঐতিহাসিক ড্র।

অতিমানবীয় ব্যাটিং করার পর হনুমা বিহারির জন্য দুঃসংবাদ। দুঃসংবাদ ভারতীয় দলের জন্যও। ব্রিসবেনে শেষ টেস্টে খেলতে পারছেন না তিনি। চোটের কারণে শুধু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে শেষ টেস্টই নয়, ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড সিরিজে খেরতে পারবেন কি না বিহারি, সেটাও অনিশ্চিত হয়ে দাঁড়িয়েছে।

মূলতঃ হ্যামস্ট্রিংয়ে চোট নিয়েই সিডিনি টেস্টের শেষ দিন ব্যাট করতে নেমেছিলেন বিহারি। ঘণ্টার পর ঘণ্টা ক্রিজ আঁকড়ে রাখার ইতিহাস রচনা করেন তিনি। ইয়ান বোথামের পর বিশ্বের দ্বিতীয় স্লো ব্যাটসম্যান হিসেবে ৮২ বলে প্রথম ৬টি রান সংগ্রহ করেন বিহারি। ৬ থেকে ৭ রানে পৌঁছাতে খেলেন আরও ৩০ বল। যা বিশ্বের আর কোনও ব্যাটসম্যানের বেলায় ঘটেনি।

শুধু হনুমা বিহারিই নয়, চোটের কারণে ব্রিসবেন টেস্টে খেলতে পারবেন না পেসার জসপ্রিত বুমরাহও। রবিন্দ্র জাদেজা তো আগেই নিশ্চিত করে ফেলেছেন, তিনি খেলতে পারছেন না শেষ টেস্টে। এরপর ইনজুরির তালিকায় উঠে এরে বিহারি এবং বুমরাহর নাম। ইনজুরি রয়েছে রবিচন্দ্রন অশ্বিনেরও। যদিও তিনি কিছুই জানাননি যে খেলতে পারবেন কি পারবেন না।

ভারতীয় সংবাদ সংস্থা পিটিআই সূত্রে জানা গেছে, তলপেটের পেশিতে চোটের কারণেই অসিদের বিরুদ্ধে শেষ টেস্টে খেলতে পারবেন না বুমরাহ। চোটের জন্য আগেই ছিটকে গিয়েছিলেন মোহাম্মদ শামি। ইশান্ত শর্মা সফরে আসতেই পারেননি পুরোপুরি ফিট না হওয়ায়। বাদ পড়েছেন আরেক পেসার উমেশ যাদবও। অর্থাৎ ভারতীয় দলে কোনও অভিজ্ঞ পেসারই থাকছেন না।

এমন পরিস্থিতিতে শেষ টেস্টের জন্য কী কম্বিনেশন তৈরি করা হবে, সেটা নিয়েই হিমশিম খাচ্ছে ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্টকে। যদিও বিসিসিআই সূত্রের খবর, ৫০ শতাংশ ফিট থাকলেও ব্রিসবেনে খেলানো হবে বুমরাহকে।

অস্ট্রেলিয়ায় চলতি বর্ডার-গাভাসকার ট্রফিতে রীতিমতো মিনি হাসপাতালে পরিণত হয়েছে ভারতীয় শিবির। রোহিত শর্মা প্রথম দুটি টেস্ট খেলতে পারেননি ফিট ছিলেন না বলে। তারপর একে একে টেস্ট চলাকালীন চোটের কবলে পড়েন লোকেশ রাহুল থেকে রিশাভ পান্ত, রবিন্দ্র জাদেজাসহ একঝাঁক ক্রিকেটার।

রাহুল কব্জিতে চোট পেয়ে দেশে ফিরে যান। উমেশ যাদব আবার কাফ মাসলে চোট পাওয়া দেশের ফ্লাইট ধরেছিলেন। তৃতীয় টেস্টের প্রথম ইনিংসে চোট পাওয়ার পরও দ্বিতীয় ইনিংসে ৯৭ রান করেন পান্ত। দলের পাশে থাকতে তৈরি ছিলেন জাদেজাও। ঠিক ছিল প্রয়োজনে ইঞ্জেকশন নিয়েই ব্যাট করতে নামবেন। সে কারণে সোমবার গ্লাভস পরেই বসেছিলেন। তবে সৌভাগ্যক্রমে তাকে নামতে হয়নি।



সিলেটভিউ২৪ডটকম / জাগো নিউজ / জিএসি-০২

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন