আজ সোমবার, ১২ এপ্রিল ২০২১ ইং

দ্বিতীয় দফায় নিষিদ্ধ পাকিস্তান ফুটবল

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০৪-০৮ ০০:৫২:১৬

সিলেটভিউ ডেস্ক :: পাকিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের (পিএফএফ) সদস্যপদ স্থগিত করেছে আন্তর্জাতিক ফুটবল সংস্থা (ফিফা) । তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের অভিযোগ এনে দেশটির বিরুদ্ধে বুধবার (৭ এপ্রিল) এমন সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

২০১৭ সালের পর দ্বিতীয় দফায় নিষেধাজ্ঞা পেলো পিএফএফ। স্থগিতাদেশ থাকা পর্যন্ত কোনও ধরনের আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্ট খেলতে পারবে না র‌্যাংকিংয়ে ২০০ তম স্থানে থাকা দেশটি।

দীর্ঘদিন ধরেই দেশটির ফুটবল অচল অবস্থায় রয়েছে। ২০১৫ সালে পাকিস্তান ফুটবল ফেডারেশনের নির্বাচনে সভাপতি হিসেবে জয় পান ফয়সাল শাহ হায়াত। তার বিরুদ্ধে ভোট কারচুপির অভিযোগ আনা হয়। দেশটির হাই কোর্ট হস্তক্ষেপে আশফাক হোসেন শাহ প্রশাসক হিসেবে ফেডারেশনের দায়িত্ব গ্রহণ করেন। যদিও তৃতীয় পক্ষের হস্তক্ষেপের অভিযোগে ফিফা ও এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশন তাকে নির্বাচিত মেনে নেয়নি।

২০১৭ সালের অক্টোবর থেকে ২০১৮ সালের মার্চ পর্যন্ত ছয় মাস পিএফএফ’র সদস্যপদ স্থগিত রাখে ফিফা। ২০১৯ সালের সেপ্টেম্বরে পিএফএফ নরমালাইজেশন কমিটির (এনসি) নিয়োগ দেয় বিশ্ব ফুটবল নিয়ন্ত্রক সংস্থা।

২০২০ সালের ডিসেম্বরে পদত্যাগ করেন হামজা। ভারপ্রাপ্ত চেয়ার হিসেবে দায়িত্ব দেয়া হয় মুনির সাধানাকে। চলতি বছর জানুয়ারিতে এনসি কমিটির প্রধান হিসেবে হারুন মালিককে স্থায়ীভাবে নিযুক্ত করা হয়।

গেল ২৭ মার্চ আশফাক গ্রুপ পিএফএফ কার্যালয়ে হামলা চালায় এবং তা দখলে নেয়। জোরপূর্বক দায়িত্ব নিয়ে তারা আইনের মারাত্মক লঙ্ঘন করেছে বলে ফিফা জানিয়েছে।

বিবৃতিতে ফুটবলের সর্বোচ্চ সংস্থা বলেছে, ‘পিএফএফ চত্বর, অ্যাকাউন্ট, প্রশাসন ও যোগাযোগ চ্যানেল আবারও ফিফা মনোনীত এনসি কমিটির প্রধান হারুন মালিকের পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে না যাওয়া পর্যন্ত স্থগিতাদেশ বহাল থাকবে।

এদিকে সরকারি হস্তক্ষেপের দায়ে শাদ ফুটবল অ্যাসোসিয়েশনকেও স্থগিতাদেশ দিয়েছে ফিফা।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ আরটিভি/ শাদিআচৌ-১১

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন