আজ রবিবার, ০৯ অগাস্ট ২০২০ ইং

নিষেধাজ্ঞার কবলে সিলেটের মধুফুল-নিশিতা ও মঞ্জিলের যেসব খাদ্যপণ্য

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৫-১৬ ০০:০৬:২৪

এনামুল কবীর :: হাইকোর্টের আদেশে সম্প্রতি ৫২টি পণ্য বাজার থেকে প্রত্যাহারের নির্দেশ জারি করেছে বাংলাদেশ নিরাপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষ। এই ৫২টি পণ্যের মধ্যে সিলেটের ৩টি তথাকথিত অভিজাত কোম্পানির ৩টি পণ্যও রয়েছে।

নিষেধাজ্ঞার পর সেগুলো এখনো শতভাগ প্রত্যাহার না হলেও এ ব্যাপারে গণসচেতনতা বেড়েছে। বেড়েছে খুঁচরা ব্যবসায়ীদের সতেনতাও।

তারা নিজেদের প্রতিষ্ঠান থেকে দ্রুত তা সরিয়ে নিচ্ছেন বলেও জানিয়েছেন সিলেট মহানগরীর কয়েকজন ব্যবসায়ী।

সম্প্রতি জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকি হিসাবে দেখা দেওয়ায় হাইকোর্ট সারাদেশের বাজার থেকে মোট ৫২টি খাদ্যপণ্য প্রত্যাহারের নির্দেশ দিয়েছেন।

নির্দেশ জারির পরপরই এ নিয়ে সারাদেশের ব্যবসায়ী ও সচেতন গ্রাহকদের মধ্যে ব্যাপক প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি হয়। অনেকে দোকানে এসব পণ্য দেখে পুলিশ এবং সংবাদপত্র অফিসগুলোতে ফোন করে অবগত করছেন।

এই ৫২টি পণ্যের মধ্যে সিলেটের ৩টি কোম্পানির ৩টি পণ্যও রয়েছে।

সেগুলো হচ্ছে, খাদিমনগরস্থ বিসিক শিল্পনগরীর নিশিতা ফুডসের সুজি, গোটাটিকরস্থ বিসিক শিল্পনগরীর মধুফুল অ্যান্ড প্রোডাক্টসের লাচ্ছা-সেমাই ও একই শিল্পনগরীর মঞ্জিল ফুড অ্যান্ড প্রোডাক্টসের হলুদের গুঁড়া।

বাংলাদেশ নিরপদ খাদ্য কর্তৃপক্ষের এ সংক্রান্ত নির্দেশনা প্রকাশের পরপরই সিলেটের অনেক নাগরিক সচেতন হয়ে উঠেছেন। বিভিন্ন দোকানে এগুলো দেখার সাথে সাথেই তারা পুলিশ ও সংবাদপত্র অফিসগুলোতে ফোন করছেন।

সচেতন হয়ে উঠছেন অবশ্য সিলেটের মুদি ব্যবসায়ীরাও। তারাও নিজেদের দোকান থেকে সেগুলো দ্রুত সরিয়ে ফেলছেন।

বুধবার এ ব্যাপারে কথা হয় সিলেটের তালতলাস্থ মুদি দোকান ভাইভাই ষ্টোরে।

এ দোকানের মালিক জানালেন, আমার সেগুলো সরিয়ে নিচ্ছি। মোবাইল কোর্ট এসে মোটা অংকের জরিমানা করবে। তাছাড়া, জনস্বাস্থ্যের জন্য হুমকিস্বরুপ কোন পণ্য আমার দোকানে না রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমি।

উল্লেখ্য, হাইকোর্টের নির্দেশে যে ৫২টি পণ্য বাজার থেক প্রত্যাহার করার নির্দেশ দিয়েছে নিরাপদ খাদ্য কর্তপক্ষ সেগুলো হচ্ছে, সিটি অয়েল মিলের তীর, গ্রিন ব্লিসিং ভেজিটেবল অয়েল কোম্পানির জিবি, বাংলাদেশ এডিবল অয়েলের রূপচাঁদা, শবনম ভেজিটেবল অয়েলের পুষ্টি ব্র্যান্ড, মসলার মধ্যে রয়েছে, ড্যানিশ, ফ্রেশ, বাঘাবাড়ি স্পেশাল, প্রাণ ও সান ব্র্যান্ডের গুঁড়া হলুদ; এসিআই ফুডের পিওর ব্র্যান্ডের গুঁড়া ধনিয়া, লবণের মধ্যে আছে এসিআই, মোল্লবো সল্ট, মধুমতি, দাদা সুপার, তিন তীর, মদিনা, স্টারশিপ, তাজ ও নূর স্পেশাল ব্র্যান্ড, নুডলসের মধ্যে আছে নিউজিল্যান্ড ডেইরির ডুডলি নুডলস, কাশেম ফুড প্রোডাক্টের ‘সান’ ব্র্যান্ডের চিপস, লাচ্ছা সেমাইয়ের মধ্যে আছে মিষ্টিমেলা, মধুবন, মিঠাই, ওয়েলফুড, বাঘাবাড়ি স্পেশাল, প্রাণ, জেদ্দা, কিরণ ও অমৃত ব্র্যান্ডগুলো।

এই ৫২টি মানহীন ও ভেজাল পণ্য নিয়ে শুনানিতে রোববার হাইকোর্টের বিচারপতি শেখ হাসান আরিফ ও বিচারপতি রাজিক আল জলিলের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ ১৬ মে ২০১৯/এক

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সাম্প্রতিক সিলেট খবর

  •   বালাগঞ্জের ‘দেওয়ানবাজার সবুজদল ফুটবল ক্লাব’র সভা অনুষ্ঠিত
  •   করোনাক্রান্তদের রোগমুক্তি কামনায় সিলেট জেলা ফুটবল খেলোয়াড় কল্যাণ সমিতির দোয়া
  •   শাবির ল্যাবে আরো ২৮ জনের করোনা পজেটিভ
  •   সাংবাদিক আলাউদ্দিন হেলালের মৃত্যুতে সিসিক মেয়রের শোক
  •   স্ত্রীসহ করোনা আক্রান্ত সিসিকের প্রকৌশলী আলী আকবর
  •   সেই ট্রাফিক সার্জেন্ট চয়ন নাইডুকে সাময়িক বহিষ্কার
  •   সিলেটে পাঁচ চিকিৎসকসহ আরো ৬১ জন করোনায় আক্রান্ত
  •   সড়ক দূর্ঘটনায় আহত মাহবুবের পাশে যুবদল ও ছাত্রদল নেতৃবৃন্দ
  •   বঙ্গমাতার জন্মবার্ষিকীতে বিশ্বনাথে সভা, সেলাই মেশিন বিতরণ
  •   জাতীয় শোক দিবস পালনের লক্ষ্যে বিশ্বনাথে আ.লীগের প্রস্তুতি সভা