আজ বুধবার, ২৭ মে ২০২০ ইং

নবীগঞ্জে বেঙ্গল ইলেক্টিক’র ১২ লক্ষ টাকা ছিনতাই, আটক ২

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৫-১৬ ১২:৩৪:৪৬

নবীগঞ্জ প্রতিনিধি :: হবিগঞ্জের নবীগঞ্জ উপজেলার আউশকান্দি ইউনিয়নের পারকুল গ্রামে বেঙ্গল ইলেক্টিক লিঃ শ্রমিকদের বেতন বাতা প্রদানের সময় ১৩ লক্ষ টাকা ছিনতাই করে পালিয়ে যায়। ছিনতাইকারীরা ১০/১২ জনের এক দল দূর্বত্তরা অফিসের ভিতর প্রবেশ করলে এ সময় শ্রমিক ও মালিক পক্ষের লোকজন তাদের চিনতে পারে। বিষয়টি নিয়ে স্থানীয়দের নিয়ে মিমাংসা করার চেষ্টা করে ব্যর্থ হলে পরে থানা পুলিশকে খবর দেওয়া হয়। এ ঘটনায়  নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার স্থানীয় চেয়ারম্যানেরকে  কোম্পানি লোকদের টাকা ফিরত দেওয়া ও বিষয়টি মিমাংসা করে নির্দেশ দেন।
কুশিয়ার নদীর পাশে বিদ্যুৎ উৎপাদন কেন্দ্রে ঠিকাদারী কাজে নিয়োজিত ছিল। 


প্রত্যক্ষর্দশী সুত্রে জানা যায়, বুধবার  বিকেলে কোম্পানীর শ্রমিকদের বেতন ভাতা প্রদানের সময় ওই  ইউনিয়নের পারকুল গ্রামের সহিদ, সাজুসহ ১০/১২ জনের একদল দূর্বত্ত অফিসের ভিতর প্রবেশ করে অস্ত্রের মুখে জিম্মি ফিল্মের স্টাইলে করে নগদ ১৩ লক্ষ  টাকা নিয়ে পালিয়ে যায়।


পরে বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে জানালে তিনি তাৎক্ষণিক ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের মুহিবুর রহমান হারুনকে কোম্পানীর টাকা ও বিষয়টি মিমাংসা করে দেয়ার নির্দেশ প্রদান করেন। নবীগঞ্জ থানা পুলিশ খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে ঘটনার খোঁজ খবর নেন।


এই ব্যপারে নবীগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তৌহিদ বিন হাসান বলেন, শুনেছি একদল লোক পাওয়ার প্যান্টের কাজে নিয়োজিত একটি কোম্পানি টাকা নিয়ে অফিসের ভিতর প্রবেশ করেছে। আমি ইউপি চেয়ারম্যানেরকে বিষয়টি সমধান করে দেওয়ার জন্য বলেছি। পুলিশ ঘটনার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ ২ জন আটক করে থানায় নিয়ে আসেন।


কোম্পানী প্রতিনিধি ইমন আহমেদ জানান, আমাদের কোম্পানি প্রায় ৭০০ শ্রমিক কাজ করে। তাদের বেতন দেওয়ার জন্য ১২ লক্ষ ২৬ হাজার টাকা কোম্পানির শ্রমিকদের মাঝে বিতরনকালে  সহিদ, সাজুসহ ১০/ ১২জন লোক অফিসে ডুকে  টাকার ব্যগ নিয়ে পালিয়ে যায়। সামজিকভাবে বসার পর সাজু, সহিদ ৭ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকা ফেরত দেয়।  বাকী টাকা না দেয়ার কারনে  পুলিশকে জানালে পুলিশ ৭ লক্ষ ৫৬ হাজার টাকাসহ  সহিদ ও সাজুকে আটক করে থানায় নিয়ে আসে। 


উল্লেখ্য, স্থানীয়  চেয়ারম্যানের মুহিবুর রহমান হারুন ইউপি সদস্য  দুলাল মিয়ার ছায়ার তলে থেকে ওইরা এসব কর্মকান্ড করে বলে যানা গেছে । এছাড়া বিভিন্ন কোম্পানি গাড়ী প্লান্টে ডুকতে সাজু সহিদ গাড়ি প্রতি ১০০০ টাকা করে নিত। এ ঘটনায় কোম্পানি প্রতিনিধিরা মামলা করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন বলে জানা গেছে।             


সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৬ মে ২০১৯/এসএমএএইচ/ইআ

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন