আজ শুক্রবার, ০৫ জুন ২০২০ ইং

ফুঁপিয়ে কাঁদছে সিলেট

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৪-০৯ ২২:২৭:০৩

নিজস্ব প্রতিবেদক :: আছরের নামাজ থেকেই মসজিদ ভর্তি মুসল্লি। নামাজের পর শহরের রোযাদাররা লাইন বেঁধে যেতেন বাজারে ইফতারি কিনতে। কারন এই দিনে অনেকেই নফল রোযাও রাখতেন। মাগরিবের নামাজে মসজিদ ভরে যেত মুসল্লিদের পদভারে। এরপর মসজিদে মসজিদে চলত জিকির-আযকার, ওয়াজসহ নানা ধরণের নফল এবাদত। কিন্তু মহামারী করোনাভাইরাস এবার সিলেটে পাল্টে দিয়েছে পবিত্র শবে বরাতের রাতের এসকল চিরচেনা দৃশ্যকে। বিগত দিনে এমন চিত্র ছিল সিলেটে।  এবার করোনায় হয়েছে সবকিছু ব্যতিক্রম।    

পবিত্র ‘লাইলাতুল বরাত’ বা ‘শবে বরাত’। আজ (৯ এপ্রিল) বৃহস্পতিবার দিবাগত রাতে মুসলিম উম্মাহের মাঝে আবারও ফিরে আসছে মহিমান্বিত সেই রাতটি। হিজরি সালের শাবান মাসের ১৪ তারিখ রাতকে সিলেটসহ পুরো বিশ্বের মুসলমানরা সৌভাগ্যের রজনী হিসেবে জিকির ও ইবাদত-বন্দেগি করেন। এই মর্যাদাপূর্ণ রাতে মহান আল্লাহ বান্দাদের জন্য তার অশেষ রহমতের দরজা খুলে দেন এবং অসংখ্য পাপী বান্দাকে ক্ষমা করে দেন।

করোনাভাইরাসের কারনে সিলেটসহ সারা দেশে নামাজের প্রতি ওয়াক্তে মসজিদে ৫ জন মুসল্লি  ও জুম্মার নামাজে ১০ জন উপস্থিত থাকতে পারবেন, এমন নির্দেশনা জারি করেছে ধর্ম মন্ত্রণালয়। এরপর থেকে সিলেট শহরের মসজিদে এটি পালন করতে দেখা যাচ্ছে। 

যার কারণে আজ শবে বরাতের রাতে সিলেটের মসজিদে মসজিদে ছিল না কোন জিকির-আযকার। নামাজেও মুসল্লি ছিলেন একেবারে কম। নগরীর দরগাহ মাজারের গেট বুধবার থেকে বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। শহরের পাড়ার মসজিদে ছিল না কোন জিকির, বিশেষ দোয়া কিংবা ওয়াজ মাহফিল।

কিন্তু সিলেটের মানুষ বসে নেই। এশার নামাজ পরে শরের প্রায় প্রতিটি মসজিদ থেকে ইমামগণ দোয়া করেন। বাসায় বসে এই দোয়াতে শরীক হয়েছেন পুরুষলোকের পাশাপাশি বাসার মহিলারাও। এছাড়া বাসায় বসে ইবাদত করছেন ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা। অনেকের সাথে আলাপ করে জানা গেছে, বাসায় বসে দোয়া, দুরুদ পাঠ, নফল নামাজ সহ বিভিন্ন ধরণের ইবাদত বন্দেগী করছেন। এবারে মানুষের কান্না ছিল না মসজিদে। তবে এ কান্না ফুঁপিয়ে কেঁদেছে সিলেটের ধর্মপ্রাণ মুসলমানরা বাসায় বসে।  

করোনা থেকে রেহাই পেতে মহান আল্লাহর কাছে মানুষের কান্না এবার ছিল একটু বাড়তি। প্রবাসী অধ্যুষিত সিলেটের অনেক মানুষ বসবাস করেন ইউরোপ, আমেরিকাসহ বিভিন্ন দেশে। এসব প্রবাসীদের জন্য বাড়তি দোয়া ছিল এবারের শবে বরাতে। পাশাপাশি সারা মুসলিম উম্মাহ সহ সকল যাতে মরণব্যধি করোনাভাইরাস থেকে বাঁচা যায় এমন দোয়ায় অনেকের কান্নায় বুক ভেসেছে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ ৯ এপ্রিল ২০২০/ জুনেদ
   

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন