আজ সোমবার, ০১ মার্চ ২০২১ ইং

সিলেটে মজুমদারী দিঘি রক্ষায় বাপা-বেলার মানববন্ধন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২১-০১-২০ ১৮:৩৩:৩০

সিলেট :: বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেট ও বাংলাদেশ পরিবেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) সিলেট যৌথভাবে মানববন্ধন কর্মসুচি পালন করেছে।

বুধবার বেলা ৩ টায় মজুমদার বাড়ি দিঘিরপাড়ে ‘দিঘি রক্ষায় মানববন্ধন’ কর্মসুচি পালন করেছে।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, অপরিকল্পিত নগরায়ণ, দখলদারি, মানুষের ব্যক্তিস্বার্থে নিশ্চিহ্ন হয়ে গেছে রামের দিঘি, তালতলা দিঘি, সাগর দিঘি, চারা দিঘি, লালদিঘি, মুক্তার বিল, জল্লার বিলসহ সিলেট নগরের অসংখ্য দিঘি-পুকুর ও জলাশয়।

বক্তারা বলেন, জলাধার রক্ষায় আইন থাকলেও সেগুলো না মানায় একের পর এক ভরাট হয়ে গড়ে উঠছে আবাসন। সরকার জলাধার রক্ষায় ২০০০ সালে আলাদা আইন করলেও এর কোনো সুফল নেই। অথচ এ আইনে বলা আছে, কোনো অবস্থায় খাল, বিল, নদী-নালা, পুকুর ও প্রাকৃতিক জলাশয়ের স্বাভাবিক গতি ও প্রকৃতি পরিবর্তন করা যাবে না। এমনকি সড়ক-মহাসড়ক, ব্রিজ-কালভার্ট নির্মাণকালেও প্রাকৃতিক জলাশয়, জলাধার, খাল-নদী ইত্যাদির স্বাভাবিকতা নষ্ট করা যাবে না।

বক্তারা বলেন, জনস্বার্থে ও একান্ত প্রয়োজন হলে সরকারের কাছ থেকে অনুমতি নিতে হবে। কিন্তু জলাধার আইনের তোয়াক্কা না করেই পুকুর-দিঘি-জলাশয় দখল ও ভরাট করে স্থাপনা স্থাপনা নির্মান চলছে। সিলেট নগরে টিকে থাকা হাতেগোণা পুকুর ও দিঘি টিকে আছে। এর একটি হচ্ছে সিলেটের মজুমদারী দিঘি। যদিও দিঘিতে পানির কোন অস্তিত্ব নেই কিন্তু এখনো খনন করে দিঘিটিকে সংরক্ষন করা সম্ভব। সম্প্রতি বিদ্যুতবিহীন সিলেট নগরে দিঘি-পুকুরের প্রয়োজনীয়তা অনুভব করা সিলেটের মানুষও সময়ে সময়ে দিঘি-পুকুর রক্ষায় সক্রিয় হয়ে উঠলেও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের উদাসীনতার কারণে এক শ্রেণির দুর্বৃত্ত দিঘি-পুকুর দখলে নানা ফন্দি হাঁকছে। বিশেষ করে নানা ঐতিহ্য আর স্মৃতির স্মারক মজুমদার বাড়ি দিঘিটি দখলে সম্প্রতি চলছে বেপরোয়া কার্যক্রম। আর এতে সিলেটের মানুষের জীবনের প্রয়োজনে দিঘিটি সংরক্ষণের দাবিতে এ মানববন্ধন আয়োজন করেছে বাপা ও বেলা সিলেট।  

বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা) সিলেটের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল করিম কিম-এর স্বাগত বক্তব্যের দিঘি রক্ষায় মানববন্ধন কর্মসুচি শুরু হয়।

বাংলাদেশ আইনবিদ সমিতি (বেলা) সিলেটের ফিল্ড কর্মকর্তা সরদার আল আমিন-এর সঞ্চালনায় মূল বক্তব্য রাখেন বেলা সিলেটের বিভাগীয় সমন্বয়ক এডভোকেট শাহ সাহেদা আখতার।

সভাপতির বক্তব্য রাখেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের অধ্যাপক ও বাপার জাতীয় আজীবন সদস্য ড. জহিরুল হক শাকিল।

অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন- সিলেট জেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আল-আজাদ, বাপা সিলেটের যুগ্ম সম্পাদক ছামির মাহমুদ, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের সমাজকর্ম বিভাগের সহযোগী অধ্যাপক আবুল কাশেম উজ্জ্বল, পরিবেশ ও হাওর উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি কাসমির রেজা, এলাকাবাসীর পক্ষে আনোয়ার বখত মজুমদার, পরিবেশকর্মী স্বপ্নীলা চৌধুরী, হাউজিং এস্টেট এসোসিয়েশনের যুগ্ম সম্পাদক ওমর মাহবু্‌ব প্রমুখ।


সিলেটভিউ২৪ডটকম/প্রেবি/এসডি-১২

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন