সাপ-বাঘের সঙ্গে সুখের সংসার (ভিডিও)

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-১২-১৬ ০০:২৬:১৬

ভারতের নাগপুর থেকে ৩৫০ কিলোমিটার দূরে মহারাষ্ট্রে এক প্রত্যন্ত গ্রামের নাম হেমলকাসা। এই ছোট্ট গ্রামেই রয়েছে এক যৌথ পরিবার। সেখানে থাকে ৯০ জন সদস্য। তবে এই সংখ্যা কিন্তু থেমে থাকার নয়। বাচ্চাদের সংখ্যা উত্তরোত্তর বেড়েই চলেছে। কিন্তু এই বৃহৎ পরিবারের সদস্য কারা জানেন? এই পরিবারকে কারা সামলাচ্ছেন? কারা রয়েছেন ভরণপোষণের দায়িত্বে? উত্তর হচ্ছে- ড. প্রকাশ এবং মন্দাকিনী আমতে।

৫০ একর জমিতেই গড়ে উঠেছে আমতেজ অ্যানিমেল আর্ক। এই আর্ক হল গত ৪৫ বছরে পশু পাখিদের স্থায়ী আস্তানা। ময়ূর, হরিণ, বাঘ, ভাল্লুক, কুমীর, হায়না কাকে চাই আপনার? ভয়ঙ্কর ভাল্লুক, হায়না যাকে দেখলে রক্ত জল হয়ে যাবে যে কোনো মানুষের, সেখানে আমতে পরিবার তার সঙ্গে খেলায় মত্ত। গৃহপালিত প্রাণীদের পাশাপাশি আমতে পরিবারের ভালোবাসা এবং স্নেহে বন্য পশুরাও যেন হয়ে উঠেছে পরিবারের সদস্য, যেখানে প্রত্যেকেই সমান গুরুত্বপূর্ণ।

আর সাপ? এ যেন জঙ্গল বুকের থ্রি-ডি ভার্সন।
তবে বাস্তবে, একেবারে চোখের সামনে, জলজ্যান্ত। লম্বা, ছোট, মোটা, রোগা কত কিই না বাহার তাদের। কিন্তু কারও সঙ্গে কারও ঝগড়াঝাটি নেই এতটুকু। ফণা তুললেও, তার পিছনে এতটুকুও রাগ নেই। কারণ তারা যে ড. আমতের মন্ত্রে দীক্ষিত।

ড. প্রকাশ আমতের বাবা ছিলেন একজন সমাজসেবী, আর তার ইচ্ছা ছিল এই গ্রামের জন্য কিছু করে যাওয়ার। যে দরিদ্ররা কুষ্ঠরোগে আক্রান্ত তাদের জন্য বাবা আমতে এবং তার স্ত্রী সাধনা আমতে নিরন্তর সাহায্য করে গিয়েছেন। ১৯৫০-এ তাদের জন্য আনন্দন নামে একটি অরগানাইজেশন-ও খোলেন। পদ্ম বিভূষণ, গান্ধী পিস প্রাইজ, রামন ম্যাগসাইসাই অ্যাওয়ার্ড, টেম্পলটন প্রাইজ, জামনালাল বাজাজ অ্যাওয়ার্ড এমনই বহু পুরস্কার, বহু সম্মানে সম্মানিত হন তিনি। আর তারই যোগ্য উত্তরসূরীরূপে নিজেকে প্রমাণ করেন তার ছেলে ড. প্রকাশ। পাশে পান তাঁর সহধর্মিনী মন্দাকিনী আমতে-কে।

বাবা আমতে গ্রামের মানুষদের পাশেই সর্বদা থাকতে চেয়েছিলেন। চেয়েছিলেন তাদের জন্যই কাজ করে যেতে। সেই ইচ্ছে পরবর্তীকালেও মূর্ত রূপ পায় ড. প্রকাশ আমতের উদ্যোগে। তবে এই ধরনের উদ্যোগের পিছনেও রয়েছে আরও একটি মর্মস্পর্শী ঘটনা। 

শোনা যায়, একদিন জঙ্গলের মধ্যে ড. প্রকাশ এবং তার স্ত্রী যাচ্ছিলেন। এসময় তারা হঠাৎ দেখেন, একদল মানুষ কিছু বাঁদরকে বেঁধে নিয়ে যাচ্ছে। তখন তারা হতচকিত হয়ে যান। তারা ওই দলটিকে গিয়ে বলেন, যদি বাঁদরগুলোকে নাম মেরে তাদের দিয়ে দেওয়া হয় তাহলে গ্রামবাসীদের সাহায্য করবেন এই দম্পতি। সেদিন থেকেই তারা ঠিক করে নেন বাকি জীবনটা এই হেমলকাসা গ্রামেই কাটাবেন।

এখন শুধু এই দম্পতিই নন, তাদের পরবর্তী দুই প্রজন্মও এই ভালোবাসার ভাষাতেই বিশ্বাসী।

ভিডিও : ভিডিও দেখতে ক্লিক করুন---

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   নওগাঁয় নির্মাণ শ্রমিকের মৃত্যু
  •   নড়াইলে দু’পক্ষের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ১০
  •   চাঁপাইনবাবগঞ্জে ট্রাক্টরচাপায় মোটরসাইকেল আরোহী নিহত
  •   ময়মনসিংহে ব্লেড দিয়ে ছাত্রীকে আহত, আসামি গ্রেফতার
  •   চারুমেলা আর্ট স্কুলের বর্ষবরণ
  •   রহমান মনি’র শিশুতোষ চলচ্চিত্র উৎসবের পর্দা উঠেছে
  •   বোরো কাটতে কৃষি অফিসের আহবান
  •   মাভৈঃ এর নতুন সভাপতি নিখিলেশ, সাধারণ সম্পাদক রণদা প্রসাদ
  •   ময়মনসিংহ মেডিকেলে সুশাসন ফিরিয়ে বিপাকে পরিচালক
  •   শাবিতে সাস্ট-এসডি'র নবীনবরণ
  •   ফেঞ্চুগঞ্জে নির্বাচনের জের ধরে ছাত্রলীগ নেতার উপর হামলা
  •   শামসুর রহমান বৃত্তি পরীক্ষায় ৫হাজার শিক্ষার্থী অংশগ্রহণ করতে পারবে
  •   পুলিশের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানাতে ২৪ ঘণ্টার হটলাইন
  •   সিলেটের সাবেক ডিআইজি মিজানের হত্যার হুমকির তদন্তেও লুকোচুরি
  •   সাতক্ষীরা সীমা‌ন্তে উট পা‌খির বাচ্চা উদ্ধার
  • সাম্প্রতিক চিত্র-বিচিত্র খবর

  •   ইঞ্জিনিয়ার দম্পতির চায়ের দোকান, মাসিক আয় ৫ লাখ!
  •   পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এ কেমন কাণ্ড!
  •   এই কলাটির দাম এক লাখ টাকা!
  •   ৭০০ বছরের বটবৃক্ষের শিকড়ে প্রাণ সঞ্চারে চলছে স্যালাইন!
  •   পরীক্ষায় ৮৫ শতাংশ নম্বর পেতে ঘনিষ্ঠ হওয়ার পরামর্শ শিক্ষিকার
  •   আত্মহত্যা করার যন্ত্র আবিষ্কার!
  •   যেখানে আজও চিঠি পাঠাতে পায়রাতে ভরসা পুলিশের!
  •   মেয়েকে বিয়ে করতে চেয়েছিলেন বাবা, এরপর যা ঘটল...
  •   আগ্রার ৩ তলা ভবন ধসিয়ে দিল ইঁদুর! (ভিডিও)
  •   কে এই দাড়িওয়ালা তরুণী!
  •   ছাত্রের সন্তান জন্ম দিয়ে বিপাকে ৩৭ বছরের শিক্ষিকা
  •   এক ডুবে পানিতে ৭২ ঘণ্টা!
  •   সোনার জুতো-টাই পরে এলেন বর!
  •   নগ্ন হয়ে সাংবাদিকের অনুষ্ঠান উপস্থাপনা!
  •   কুমারীত্ব বিক্রির বিজ্ঞাপন তরুণীর, মূল্য ২.৫ লাখ ডলার!