আজ রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০১৯ ইং

এই রাজার শেষ জীবন কেটেছিল ভিখারি বেশে!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-১০-১৫ ০০:৩০:৫০

২৫টি গাড়ি, ৩০ জন দাসী যে রাজার সেবায় সর্বদা নিয়োজিত ছিল। শেষ জীবনে এসে তিনিই বেঁচে ছিলেন গ্রামবাসীর দয়া দাক্ষিণ্যে। যাঁর প্রথম জীবন কেটেছিল অতল আমোদ প্রমোদ বিলাসব্যসনে। কিন্তু শেষ জীবনে ভরসা ছিল গ্রামবাসীদের দেওয়া চাল-ডাল।

ওই রাজার নাম ব্রজরাজ ক্ষত্রিয় বীরবর চমুপতি সিং মহাপাত্র। জন্ম ১৯২১ সালে। ব্রিটিশ ভারতের ওড়িশার রাজ্য স্টেট তিগিরিয়ায়। কলিঙ্গ থেকে ওড়িশায় পরিবর্তিত পর্বে টিকে ছিল ২৬ টি প্রিন্সলি স্টেট। এর মধ্যে সব থেকে ছোট তিগিরিয়া।

১২৪৫ খ্রিস্টাব্দে রাজস্থানের সোম বংশীয় শাসকদের একটি শাখা এসেছিল ওড়িশায়। প্রতিষ্ঠা করেছিল টুং রাজবংশ। প্রথমে পুরীর রাজার অমাত্য‚ পরে তিগিরিয়া স্টেটের শাসক হয়ে ওঠেন তাঁরা।

সেই বংশেই জন্ম রাজা ব্রজরাজের। ভারতবর্ষে রাজতন্ত্র লোপ পাওয়ার আগে তিগিরিয়ার শেষ নৃপতি। তাঁর সেবায় অপেক্ষা করত ৩০ জন দাসী। দাঁড়িয়ে থাকত ২৫ টি বিলাসবহুল গাড়ি।

শোনপুরের রাজকন্যা রসমঞ্জরী দেবীর সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়েছিল। কিন্তু একসময় স্ত্রী‚ ছয় সন্তান সবাই একে একে নিজেদের জীবন থেকে বিছিন্ন করে তাঁকে। বিয়ে ভাঙার পরে রসমঞ্জরী রাজনীতিতে এসে হয়ে যান বিধায়ক। ব্রজরাজ ডুবে যান নিদারুণ দারিদ্র্যে।

স্বাধীনতার পরে ভরসা ছিল বার্ষিক ভাতা। যিনি একসময় অনায়াসে মেরেছেন ১৩ টা বাঘ ও ২৮ টা লেপার্ড‚ সেই বারুদের গন্ধমাখা হাত পাততে হতো সরকারি দরবারে। সামান্য কিছু টাকার জন্য। মাসে এক হাজারেরও কম টাকা।

অভাবে জেরবার হয়ে ১৯৬০ সালে বিক্রি করে দিলেন প্রাসাদ। তারপর সন্তানদের নিয়ে চলে গেলেন স্ত্রীও। ১৯৭৫ সালে বন্ধ হয়ে গেল সরকারি ভাতা। এরপর থেকে বেঁচে ছিলেন গ্রামবাসীদের দয়া-দাক্ষিণ্যে। মাটির বাড়িতে অ্যাসবেস্টাস। অতীতের প্রজাদের দেওয়া ভাত ডাল সামনের থালায়। মিটত রাজার ক্ষুণ্ণিবৃত্তি।

চরম অর্থকষ্টে রোগশয্যায় কেটেছিল শেষ কটা দিন। ২০১৫ সালের নভেম্বর মাসে প্রয়াত হন রাজা থেকে ফকির হওয়া ব্রজরাজ। তারপরে অভিষেক হয় তাঁর বড় ছেলে বীরপ্রতাপ মহাপাত্রর। শতাব্দী প্রাচীন রীতি মেনে হয় অভিষেক। কিন্তু কোথায় সিংহাসন‚ কোথায় মুকুট ? কেউ জানে না। সূত্র: টেলিগ্রাফ ও উইকিপিডিয়া।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   শ্রীমঙ্গলে ইউএনও’র উদ্যোগে আবারো খুলে দেয়া হলো সেই রাস্তা
  •   ইসলামী আন্দোলন, সিলেটের শোক প্রকাশ
  •   ছাতকে যুবতীর রহস্যজনক মৃত্যু, প্রেমিক পলাতক
  •   সিলেটে সড়ক দুর্ঘটনায় ছাত্রলীগ নেতা নিহত
  •   ওয়াজ শুনে এক পরিবারের ৩ জনের ইসলাম গ্রহণ
  •   ব্যাংকার আবু আশরাফ সিদ্দিকের মৃত্যুতে তৌফিক চৌধুরীর শোক
  •   বাংলাদেশ-আফগানিস্তানের কাছে হারা যাবে না, বলছেন লারা
  •   শ্রীলঙ্কায় হামলা : ৭ জনকে ধরতে গিয়ে প্রাণ গেল ৩ পুলিশ কর্মকর্তার
  •   শ্রীলঙ্কায় হামলা : নিহত বেড়ে ২০৭
  •   আরব আমিরাতের বাংলাদেশ স্কুলে বর্ষবরণ
  •   শমশেরনগরে ট্রেনে কাটা পড়ে বৃদ্ধের মৃত্যু
  •   সিলেট জেলা কাস্টমস ক্লিয়ারিংয়ের প্রস্তাবনা পেশ
  •   মাধবপুরে সড়ক দুর্ঘটনায় দুই শিক্ষক আহত
  •   শ্রীলঙ্কায় হতাহত : শোক জানিয়ে হাসির খোরাক ট্রাম্প
  •   মাধবপুরে এসএসসি পরীক্ষার্থীর আত্মহত্যা
  • সাম্প্রতিক বিচিত্র খবর

  •   তুমুল আলোচিত সেই বিপজ্জনক সেলফি
  •   ৪০০ বছরের পুরনো আঙুলের ছাপের দাম ৬৬ কোটি টাকা
  •   পবিত্র কোরআন শরীফকে অবমাননা , ফেসবুকজুড়ে সেফুদা’র ফাঁসি দাবি
  •   এই সংসারের মা পাল্টায়, কিন্তু বাসা ছেড়ে যায় না দুই বাবা
  •   শবে বরাত কবে, সিদ্ধান্ত ১৭ এপ্রিল
  •   শাবান মাসের চাঁদ দেখা নিয়ে বিতর্ক, বৈঠকে কমিটি
  •   মুরগির বাচ্চার প্রাণ বাঁচাতে হাসপাতালে আসা সেই শিশু পুরস্কৃত
  •   মুরগির বাচ্চা বাঁচাতে টাকা নিয়ে হাসপাতালে শিশু!
  •   বিছানায় শুয়ে থেকেই ১৬ লাখ টাকা আয়ের সুযোগ!
  •   মশার কামড়ে মৃত্যু হলে ক্ষতিপূরণ পাবে কিনা?
  •   ইবাদতকে প্রশংসামুক্ত রাখতে যা করবেন
  •   গভীর সাগর দিয়ে ছুটবে ট্রেন
  •   ১০৪ বছরের বৃদ্ধার শেষ ইচ্ছা জেলে যাওয়া!
  •   মশা থেকে মুক্তি মিলবে মাত্র ৩০ সেকেন্ডে!
  •   ন্যূনতম দুটো বউ ঘরে আনতে হবে, না হয় জেল!