দুর্গ না হোটেল!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৭-০৬-১৯ ০০:৩৯:৫৭

সাদিয়া ইসলাম বৃষ্টি :: পুরো পৃথিবীতে ছড়িয়ে আছে নানা ধরনের অসংখ্য হোটেল। এগুলোর কয়টিতেই বা রাত কাটানোর সুযোগ হয়েছে আপনার? কিন্তু ভাবুন তো এমন একটা ঘরে রাত কাটানোর কথা, যেখানে অনেক অনেককাল আগে থরে থরে সাজানো থাকত বন্দুক কিংবা রাত কাটাত সেনারা।

বলছিলাম ইংল্যান্ডের আইল অব ওয়াইট থেকে ১.৪ মাইল এবং পোর্টসমাউথ থেকে এক মাইল দূরে অবস্থিত নোম্যানস ল্যান্ড ফোর্টের কথা। আর এই পুরনো দুর্গকেই রূপান্তরিত করা হয়েছে হোটেলে। এর ২২টি বিলাসবহুল কামরার যেকোনোটিতে ইচ্ছা করলেই রাত কাটানো যায়।

১৮৬১ থেকে ১৮৮০ সালের মধ্যে কোনো একসময়। লর্ড পালমারস্টনের নির্দেশে নির্মাণ করা হয় নো ম্যানস ল্যান্ড ফোর্ট। এই দুর্গ তৈরির পেছনেও আছে এক ইতিহাস। নেপোলিয়ন বোনাপার্টের ভাতিজা লুই নেপোলিয়ন ইংল্যান্ড দখল করে ফেলতে পারে এমন আশঙ্কায় ছিল ইংরেজরা। তাই প্রতিরক্ষাব্যবস্থা জোরদার করতে কালো, গোলাকৃতির চারটি দুর্গ বানানো হয়। এই চারটি দুর্গের মধ্যে দুটিরই অবশ্য এখন ভগ্নদশা। আর বাকি দুটির একটি আইল অব ওয়াইটে অবস্থিত, আর অন্যটিই নো ম্যানস ল্যান্ড ফোর্ট। এই দুর্গগুলোর মালিক এখন উদ্যোক্তা মাইক ক্লেয়ার। সাগরের মাঝখানে নির্মিত এ দুর্গটি পড়ে ছিল পরিত্যক্ত অবস্থায়। সম্প্রতি একে রূপান্তরিত করা হয়েছে চমৎকার এক অবকাশযাপনকেন্দ্রে। আর এই হোটেলের পরিকল্পনাও এসেছে মাইকের মাথায়ই।

শুধু থাকার মতো কামরাই নয়, নো ম্যানস ল্যান্ড ফোর্টে গেলে পাবেন ছাদের ওপর হট টাব, হেলিপ্যাড ও স্পা। কামরাগুলো সাজাতে প্রচুর অর্থ খরচ করেছেন মাইক ক্লেয়ার ও তাঁর স্ত্রী। অনেক বুদ্ধি খাটিয়ে নকশা করেছেন। প্রতিটি কামরা আলাদা থিমে সাজিয়েছেন তাঁরা। বাইরে থেকে হোটেলে অতিথি আনতে রাখা হয়েছে হেলিকপ্টারের ব্যবস্থা। তবে এত কিছু, তা-ও আবার সাগরের ঠিক মাঝখানে—তা পেতে নেহাত কম খরচ হয় না পর্যটকদের। অসম্ভব সুন্দর এই স্থানে সময় কাটাতে গুনতে হবে সর্বনিম্ন ৪৫০ ইউরো। তবে খরচ বেশি বলে কিন্তু মানুষ বসে নেই। ২০১৫ সালের এপ্রিলে পাকাপাকিভাবে হোটেল হিসেবে আত্মপ্রকাশ করে নো ম্যানস ল্যান্ড ফোর্ট। তার পর থেকেই পর্যটকরা রীতিমতো হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন এখানে রাত কাটাতে। হোটেল বানিয়ে ফেলা হলেও দুর্গের গায়ে যেন পুরনো ইতিহাসের গন্ধ লেগে থাকে, সে ব্যবস্থা করেছেন মাইক ক্লেয়ার। অনেক দেয়াল আগের মতোই রেখে দেওয়া হয়েছে। আর কোন কামরাটা কী কাজে ব্যবহার করা হতো এবং এই দুর্গের ইতিহাস দর্শনার্থীদের জানানোর ব্যবস্থা করা হয়েছে।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সিলেটের রাজপথে মশারি মিছিল
  •   চট্টগ্রামগামী ট্রেনের ছাদ থেকে দুই শিশুর লাশ উদ্ধার
  •   এতিম শিশুদের লালন পালন করছেন অসহায় ফুফু
  •   খালেদার মুক্তির দাবিতে রাজধানীতে বিএনপি’র মানববন্ধন
  •   রাজধানীতে এটিএম কার্ড জালিয়াতির মূলহোতা আটক
  •   চাঁদাদাবি ও হত্যার হুমকী: ছয় জনের সশ্রম কারাদণ্ড
  •   রাজধানীতে বিএনপি’র কর্মসূচির জায়গা পরিবর্তন
  •   ৬ দফা দাবি নিয়ে দিরাই উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বিভিন্ন কর্মসূচী
  •   শাবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের প্রয়াস’র মোড়ক উম্মোচন
  •   সিলেটে বৃষ্টির সম্ভাবনা, তাপমাত্রা অপরিবর্তিত
  •   ধামরাইয়ে সেতুর ধস ও ভাঙন ঠেকাতে বালুর বস্তা
  •   রাজধানীতে অগ্নিকান্ডে একই পরিবারের ৩ জন দগ্ধ
  •   কিশোরগঞ্জে ইয়াবাসহ অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য আটক
  •   বরগুনায় আগুনে পুড়ে ছাই ১১ দোকান
  •   বড়লেখায় জেলা কমিটিকে স্বাগত জানিয়ে ছাত্রলীগের আনন্দ মিছিল
  • সাম্প্রতিক চিত্র-বিচিত্র খবর

  •   ব্যাংক চালাচ্ছে রোবট!
  •   বাবার ঋণ শোধ করতে পুরুষ সেজে কাজ করে মেয়ে!
  •   অদ্ভুত জুতার গাছ!
  •   কারাগারে মোবাইল পাচারের অভিনব মাধ্যম বিড়াল!
  •   প্লেনে 'স্ট্যান্ড আপ সিট', কমবে যাত্রী ভাড়া!
  •   ৩ বছরের নিখোঁজ শিশুকে রক্ষা করল অন্ধ কুকুর!
  •   যেখানে বাসর রাতেই নির্ধারিত হয় নববধূর ভাগ্য!
  •   যে গ্রামে পুরুষের দুই বিয়ে বাধ্যতামূলক!
  •   ১০০ কোটির ব্যবসা ছেড়ে হলেন সন্ন্যাসী!
  •   ইঞ্জিনিয়ার দম্পতির চায়ের দোকান, মাসিক আয় ৫ লাখ!
  •   পুলিশের হাত থেকে বাঁচতে এ কেমন কাণ্ড!
  •   এই কলাটির দাম এক লাখ টাকা!
  •   ৭০০ বছরের বটবৃক্ষের শিকড়ে প্রাণ সঞ্চারে চলছে স্যালাইন!
  •   পরীক্ষায় ৮৫ শতাংশ নম্বর পেতে ঘনিষ্ঠ হওয়ার পরামর্শ শিক্ষিকার
  •   আত্মহত্যা করার যন্ত্র আবিষ্কার!