আজ মঙ্গলবার, ১৪ জুলাই ২০২০ ইং

অস্ট্রেলিয়ায় করোনা ভাইরাস আতঙ্ক: টয়লেট পেপার সংগ্রহ করতে হামলা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৩-০৭ ১৭:০৯:৫৫

শাহাব উদ্দিন শিহাব, সিডনি, অস্ট্রেলিয়া :: অস্ট্রেলিয়ায় টয়লেট পেপার সংগ্রহে নিতে ৪৯ বছর বয়সী এক মহিলার উপর অতর্কিত হামলা চালিয়েছে মা ও মেয়ে।

শনিবার স্থানিয় সময় সকাল সাড়ে ৯টার দিকে দেশটির নিউ সাউথ ওয়েলস’র ব্যাংকস্টাউন এলাকার ‘উলওর্থস’ সুপার মার্কেটে টয়লেট পেপার সংগ্রহ করতে এসে মা ও মেয়ের হামলার কবলে পড়েন ৪৯ বছর বয়সী ঐ মহিলা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে এসময় ‘উলওর্থস’ কর্মীরা পুলিশ ডাকতে বাধ্য হয়। পরে পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনতে সক্ষম হয়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, টয়লেট পেপার প্যাকগুলি পূর্ণ একটি ট্রলি সহ একজন মা এবং মেয়ে মিলে ‘উলওর্থস’ সুপারমার্কেটের ভেতরে অন্য মহিলার উপর হামলা চালাচ্ছিল এবং চিৎকার করছিল। এসময় তাদের হামলায় ঐ মহিলা কিছুটা আহত হন। এসময় ‘উলওর্থস’ সুপারমার্কেটের কর্মী ও পলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রনে আনেন।

প্রত্যক্ষদর্শীরা আরো জানান, আক্রান্ত হওয়া ৪৯ বছর বয়সী মহিলা হামলাকারী মা ও মেয়েকে উদ্দেশ্য করে বলেছেলেন, “আমি কেবল একটি টয়লেট পেপার প্যাক চাই। মা জবাব দেয় "না, একটি প্যাকও দেয়া যাবেনা"। এর পরই তারা ঐ মহিলার উপর হামলে পড়ে’।

হামলায় আক্রান্ত মহিলা বলেন, আমি তাদের দু’জনকে এতো টয়লেট পেপার না নিতে বলেছিলাম। তারা তা মানেননি। আমি বলেছি ‘উলওর্থস’ কর্তৃপক্ষ কিছুদিন আগে ২ থেকে ৪ প্যাকের বেশী ক্রয়ের উপর বিধি নিষেধ জারি করে। আপনি যা করছেন তা ঠিক নয়। আপনি টয়লেট পেপারগুলোর বিরুদ্ধে রিতিমত লড়াই করছেন। আপনার থামতে হবে, একটি সীমা আছে এবং আরো লোক রয়েছেন যারা সকাল থেকে অপেক্ষা করছেন টয়লেট পেপার নেয়ার জন্য। এসব বলার সাথে সাথে তারা আমার উপর হামলা চালায়।

‘উলওর্থসের এক মুখপাত্র বলেছেন, "আমরা আমাদের স্টোরগুলিতে গ্রাহকদের কাছ থেকে কোনও ধরণের সহিংসতা সহ্য করব না এবং আমরা বিষয়টি পুলিশকে অবহিত করেছি। পুলিশ এসে বিষয়টির তদন্ত করে গেছে।

নিউ সাউথ ওয়েলস পুলিশের একজন মুখপাত্র ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেছেন, শনিবার সকালে ‘উলওর্থস’ সুপার মার্কেটে ৪৯ বছরের এক মহিলার উপর নির্যাতন করা হয়েছে মর্মে অভিযোগ পেয়ে ব্যাংকস্টাউন পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।  তিনি জানান, হামলার স্বীকার ৪৯ বছর বয়সী ঐ মহিলা বিষয়টি নিয়ে কোন অভিযোগ না করায় ঐ দুই মহিলা কে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

প্রসঙ্গত, বিশ্বব্যাপী করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে মানুষ অতিরিক্ত টয়লেট পেপার কিনছেন। যদিও সরকার নিশ্চয়তা দিয়েছে যে, ভাইরাসের প্রাদুর্ভাবের কারণে সরবরাহ বাধাগ্রস্ত হয়নি।

এদিকে টয়লেট পেপার ক্রয়ের পাশাপাশি আতঙ্কিত মানুষ গত কয়েক দিনে অস্ট্রেলিয়ার বিভিন্ন এলাকায় অন্যান্য গৃহস্থালি সামগ্রীও ব্যাপক হারে ক্রয় করেছেন। পণ্যগুলোর মধ্যে রয়েছে চাল, পাস্তা এবং পরিষ্কারক দ্রব্য।

এছাড়া মুখে পড়ার মাস্ক এবং হাত পরিষ্কার করার দ্রব্য বা হ্যান্ড স্যানিটাইজার পাওয়াটা রীতিমতো দুষ্কর হয়ে পড়েছে। কারণ মানুষ নিজেদের করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাঁচানোর চেষ্টার অংশ হিসেবে এগুলো আগেই কিনে ফেলেছে।

অন্যদিকে অস্ট্রেলিয়ার সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ অস্বাভাবিক কেনাকাটার জন্য অনলাইনে ছড়িয়ে পড়া গুজবকে দোষারোপ করছে এবং জানিয়েছে যে, খাদ্য ও গৃহস্থালির পণ্যের সরবরাহ স্থিতিশীল রয়েছে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ ৭ মার্চ ২০২০/ শাহাব/ জুনেদ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সাম্প্রতিক অস্ট্রেলিয়া খবর

  •   এম এ হকের মৃত্যতে জাসাস অস্টেলিয়ার সাধারণ সম্পাদক জুমানের শোক
  •   করোনা : অস্ট্রেলিয়ার মন্ত্রীকে ১.৩ মিলিয়ন ডলার জরিমানা
  •   অস্ট্রেলিয়ায় করোনায় এ পর্যন্ত ৪১ জনের মৃত্যু : আক্রান্ত ৫৮০০ জন
  •   করোনা ভাইরাস সম্পর্কে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষে অস্ট্রেলিয়া জাসাসের দুই দিনের কর্মসূচি
  •   অস্ট্রেলিয়ার স্বরাষ্ট্র বিষয়ক মন্ত্রী করোনাভাইরাসে আক্রান্ত
  •   অস্ট্রেলিয়ায় করোনা ভাইরাসে একজনের মৃত্যু, আক্রান্ত ২৮
  •   অস্ট্রেলিয়ান প্রবাসীদের দেশে বিনিয়োগ করার আহবান নাদেলের
  •   চীনা ভ্রমণকারীদের উপর আরও ১ সপ্তাহের নিষেধাজ্ঞা অস্ট্রেলিয়ার
  •   নিপুণ রায়কে জাসাস অস্টেলিয়া শাখার অভ্যর্থনা
  •   বিএনপির নেতা নিপুণ রায় চৌধুরীকে জাসাস অস্টেলিয়ার অভ্যর্থনা