আজ রবিবার, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ইং

পানির নিচে হবিগঞ্জ পৌরসভার এক তৃতীয়াংশ

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৬-০৫ ১০:১৩:৩৩

কাজল সরকার, হবিগঞ্জ :: জলাবদ্ধতা যেন হবিগঞ্জ পৌরবাসীর নিয়তি হয়ে দাড়িয়েছে। সামান্য বৃষ্টি হলেই পৌর শহরের অধিকাংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। সচেতন মহলের দাবি টানা ৫ ঘন্টা বৃষ্টি হলে হবিগঞ্জ পৌরসভার এক এক-তৃতীয়াংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। এতে ভোগান্তিতে পড়তে হয় পৌরসভার অন্তত ৫০ হাজার জনসাধারণকে।

জানা যায়, ৯.০৫ বর্গ কিলোমিটার এলাকা নিয়ে ১৮৮১ সালে হবিগঞ্জ পৌরসভা প্রতিষ্ঠা হয়। প্রথম শ্রেণির পৌরসভা হলেও এখনো সেই পরিমাণ সুযোগ-সুবিধা পাননি পৌরবাসী। জলাবদ্ধতা, যানজট আর ময়লা আবর্জনার সাথে যুদ্ধু করেই বসবাস করতে হচ্ছে হবিগঞ্জ পৌরসভার প্রায় দেড় লাখ মানুষকে।

পৌরবাসীর সব চেয়ে বড় সমস্যা হচ্ছে জলাবদ্ধতা। ঘন্টাখানেক বৃষ্টি দিলেই তলিয়ে যায় পৌর শহরের অনেক স্থান। আর ৪-৫ ঘন্টা বৃষ্টি হলেতো আর কথাই নেই। পানিতে তলিয়ে যায় পৌরসভার এক তৃতীয়াংশ এলাকা। অনেকের বাসা বাড়িতে পানি উঠে যায়। বন্ধ হয়ে পড়ে নি¤œ ও মধ্য আয়ের অনেক পরিবারের রান্না-বান্না ও খাওয়া-দাওয়া।

এদিকে, ঈদের মধ্যেই জলাবদ্ধতায় থাকতে হচ্ছে হবিগঞ্জ পৌরসভার বাসিন্দাদের। কারণ সোমবার রাতভর ও মঙ্গলবার (০৪ মে) দিনভর বৃষ্টির কারণে পানিবন্দি হয়ে পড়েছেন পৌরসভার প্রায় এক তৃতীয়াংশ এলাকার মানুষ। একই সঙ্গে বিভিন্ন এলাকার রাস্তায় কাদা জমে যায়। পানিতে তলিয়ে গেছে শহরের প্রধান সড়কসহ অধিকাংশ রাস্তা। ঈদ আনন্দ যেন মলিন করতে চলেছে জলাবদ্ধতা।

শহরের বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা যায়, জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও বাস ভবন, পানি উন্নয়ন বোর্ড, পুলিশ সুপারের বাসভবন, সার্কিট হাউজ, ফায়ার সার্ভিস কার্যালয়, শায়েস্তানগর, ইনাতাবাদ, চৌধুরীবাজার, সার্কিট হাউজ রোড, নোয়াহাটি, পুলিশ সুপারের বাস ভবন, ডাকঘর এলাকা, বগলবাজার, উত্তর শ্যামলী, নোয়াবাদ, মোহনপুর, শ্যামলী, পুরাতন হাসপাতাল সড়ক, কালিগাছ তলা, দিগন্তপাড়াসহ বিভিন্ন এলাকায় আকস্মিক হাটু পরিমাণ পানি জমে যায়। একই সাথে ড্রেনের ময়লা-আবর্জনাযুক্ত পানিতে ভরে গেছে চারপাশ। ময়লা আবর্জনাযুক্ত পানির কারণে বাসা থেকে বের হতে পারছেন না কেউই। গুরুত্বপূর্ণ কাজে ভের হতে হচ্ছে হাটু পরিমাণ ময়লা পানি মুড়িয়ে। অনেক বাসা-বাড়িতে পানি ঢুকে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হয়েছে। এতে নিত্য প্রয়োজনীয় জিনিস পত্রের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলেও জানান অনেকে।

পৌরবাসীর অভিযোগ, পানিনিষ্কাশনের সুব্যবস্থা না থাকায় একটু বৃষ্টি হলেই শহরে জলাবদ্ধতা দেখা দেয়। বছরের পর বছর পৌরবাসী জলাবদ্ধতার সঙ্গে যুদ্ধ করে আসলেও সমস্যা সমাধানে উদাসীন পৌর কর্তৃপক্ষ।

এ ব্যাপারে শহরের শায়েস্তানগর এলাকার বাসিন্দা মো. ইমরান আহমেদ বলেন- ‘শায়েস্তানগর এলাকা পানিতে ডুবতে ভারি বর্ষণের প্রয়োজন হয় না। সামান্য বৃষ্টিই যতেষ্ট এই এলাকা পানিতে তলিয়ে যাওয়ার জন্য।’

তিনি বলেন- ‘এখানে অনেক ব্যবসায়ি আছেন। তাদেরকে বর্ষা মৌসুমে নিয়মিত জলাবদ্ধতার সাথে সংগ্রাম করে চলতে হয়।’

ফায়ার সার্ভিস এলাকার বাসিন্দা মতিউর রহমান বলেন- ‘পৌর কর্তৃপক্ষ কি করছে, তা বোঝার কোন উপায় নেই। বছরের পর বছর জলাবদ্ধতার মধ্যে বসবাস করলেও কর্তৃপক্ষের কোন মাথা ব্যথাই নেই। শুধু দ্রুত সমস্যা সমাধান হবে বলে আশ্বাসই প্রদান করে যাচ্ছে।’

পুড়ান বাজার (বগলা বাজার) এলাকার ব্যবসায়ি আশোতুষ বণিক বলেন- ‘বগলা বাজার শহরের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এলাকা। এখানে প্রতিদিন লাখ লাখ টাকার ব্যবসা-বাণিজ্য হচ্ছে। অথচ এখানের সবগুলো রাস্তা একেবারে ভাঙা। আর সব সময়ই লেগে থাকে জলাবদ্ধতা।’

তিনি বলেন- ‘বিষয়টি নিয়ে অনেকবার ব্যবসায়িরা মেয়রের সাথে আলোচনা করেছি। কিন্তু ফলপ্রসু কিছুই হয়নি।’

এ ব্যাপারে বাংলাদেশ পরিবেশ আন্দোলন (বাপা)’র হবিগঞ্জ জেলার সাধারণ সম্পাদক তোফাজ্জল সোহেল বলেন- ‘পৌরসভার ড্রেনগুলো দীর্ঘদিন ধরে পরিস্কার করা হচ্ছে না। ফলে পানি নিষ্কাশন না হওয়ায় এভাবে সামান্য বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা দেখা দেয়।’

তিনি বলেন- মাত্র ৩/৪ ঘন্টা বৃষ্টি হলে হবিগঞ্জ পৌরসভার এক তৃতীয়াংশ এলাকা পানিতে তলিয়ে যায়। অথচ পৌর কর্তৃপক্ষ বিষয়টি নিয়ে কার্যকর কোন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে না।’

এ ব্যাপারে হবিগঞ্জ পৌরসভার ভারপ্রাপ্ত মেয়র দিলীপ দাস জানান, হবিগঞ্জ পৌর এলাকার জলাবদ্ধতা নিরসন করতে আমরা কাজ করে যাচ্ছি। পরিকল্পিত ভাবে ড্রেনেজ ব্যবস্থা করে এ সমস্যার সমাধান করা হবে।

অভিযোগ করে তিনি বলেন- ‘পৌর সভার জলাবদ্ধতার কারণে অনেক ক্ষেত্রে নাগরিকরাই দায়ি। কারণ তারা ড্রেনের মধ্যে ময়লা ফেলে নির্দিষ্ট স্থানে ময়লা ফেললেই এ সমস্যা তীব্র আকার ধারণ করতো না।’

সিলেটভিউ২৪ডটকম/ ০৫ জুন ২০১৯/ কেএস/ শাদিআচৌ

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   চালকের জন্মদিনে গাড়ি উপহার দিলেন আনুশকা শেঠি
  •   যুক্তরাষ্ট্রের চালানো অভিযানে ওসামা বিন লাদেনের ছেলে হামজা নিহত: ট্রাম্প
  •   পিযুষের মুক্তির দাবি জানালেন পংকজ দেবনাথ
  •   ১৭ লাখ ৯০ হাজার টাকার জাল নোটসহ রোহিঙ্গা যুবক আটক
  •   রাজশাহীর সারদায় পৌঁছেছেন প্রধানমন্ত্রী
  •   শ্রমিক-পুলিশ সংঘর্ষে কাঁচপুর রণক্ষেত্র
  •   ভুল সংশোধনের কথা বলে লিখে নিল ১৩ শতক জমি
  •   রোগ থেকে সেরে ওঠার পর স্বাভাবিক পর্যায়ে ফিরে আসতে করণীয়
  •   কোনও ক্যাডার বাহিনী পোষা যাবে না, নেতাকর্মীদের শেখ হাসিনা
  •   সাজা শেষে ৪১ হাজার অভিবাসীকে ফেরত পাঠালো মালয়েশিয়া
  •   শীঘ্রই আমিরাতের আজমানে বাংলাদেশ স্কুল প্রতিষ্ঠা হচ্ছে
  •   মুসার দায়ের কুপে আহত পুলিশ সদস্য এখন কিছুটা আশংকামুক্ত
  •   শাহজালাল কারাতে ট্রেনিং সেন্টারের শিক্ষার্থীদের সনদ বিতরণ
  •   কুমারগাঁওয়ে রেস্টুরেন্টে বাস শ্রমিকদের হামলা-ভাঙচুর, আহত ১
  •   দুবাইয়ে সড়ক দুর্ঘটনায় কানাইঘাটের আলতাফ নিহত
  • সাম্প্রতিক হবিগঞ্জ খবর

  •   মুসার দায়ের কুপে আহত পুলিশ সদস্য এখন কিছুটা আশংকামুক্ত
  •   যেভাবে 'সন্ত্রাস' উপাধি লাভ করেন নবীগঞ্জের ছাত্রলীগ নেতা মুসা
  •   লাখাইয়ে বঙ্গবন্ধু ও বঙ্গমাতা গোল্ডকাপ ফুটবল টুর্নামেন্টের উদ্বোধন
  •   মাধবপুরে মোটরসাইকেলের সিটের নিচ থেকে ফেনসিডিল উদ্ধার
  •   পুলিশের উপর হামলাকারী মুসার ৪ স্বজন আটক
  •   চুনারুঘাটের প্রবীন রাজনীতিবিদ মুসলিম চেয়ারম্যানের ১৩তম মৃত্যু বার্ষিকী আজ
  •   নবীগঞ্জে সাবেক ছাত্রলীগ নেতাকে গ্রেফতার করতে গিয়ে আহত ওসি ও এসআই
  •   নবীগঞ্জের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মনসুর আলী খানের মাতার ইন্তেকাল
  •   মাধবপুরে পুলিশের গাড়ীতে ডাকাতি, মালামাল লুট
  •   মাধবপুরে ডাকাত ‘পিচ্চি’ সুমন গ্রেফতার
  •   মাধবপুরে গাঁজাসহ ২ পাচারকারী গ্রেফতার
  •   হবিগঞ্জ সদর হাসপাতালের কোয়ার্টারে চুরি
  •   মাধবপুরে নারীসহ কৃষকলীগের যুগ্ম আহবায়ক সাদ্দাম আটক
  •   আজমিরীগঞ্জে সড়ক দূর্ঘটনায় ব্যবসায়ি নিহত
  •   লাখাইয়ে ‘পতাকা উৎসব’