আজ বৃহস্পতিবার, ০৪ জুন ২০২০ ইং

বানিয়াচংয়ে ‘বানিয়াচং এডুকেশন নেটওয়ার্ক’র খাদ্যসামগ্রী বিতরণ

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৪-০৯ ২১:১৯:৪০

বানিয়াচং প্রতিনিধি :: করোনাভাইরাস মোকাবিলায় সরকারি নির্দেশনার পর ২৫ মার্চ থেকে দেশের ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রয়েছে। ২৬ মার্চ থেকে সরকারি-বেসরকারি সব অফিসও বন্ধ হয়ে গেছে। এরপর যোগাযোগ ব্যবস্থাও রয়েছে বিচ্ছিন্ন। একই সঙ্গে ঘর থেকে বের না হওয়ার নির্দেশনা রয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। তাই অতি প্রয়োজন ছাড়া ঘর থেকে বের হচ্ছে না মানুষ। আর্থিকভাবে সচ্ছলরা নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্য মজুদ করলেও দিনমজুরদের সে সুযোগ নেই। তাই সারাদশের ন্যায় বিপাকে পড়েছেন হবিগঞ্জের বানিয়াচং উপজেলার খেটে খাওয়া মানুষ। যদিও আর্থিকভাবে অনেক সচ্ছল পরিবার অসহায়দের পাশে দাড়াচ্ছেন। বিভিন্ন সময় বিভিন্ন এলাকায় বিতরণ করছেন ত্রাণ। এই সংকটময় মুহুর্তে চাল, ডাল, তেল, পেয়াজ, আলুসহ হরেক রকমের দ্রব্যসামগ্রী বিতরণ করলেন বানিয়াচং এডুকেশন নেটওয়ার্ক (বেন) এর সদস্যরা। 

বৃহস্পতিবার (৯ এপ্রিল) সন্ধ্যা ৬ টার দিকে বানিয়াচং এডুকেশন নেটওয়ার্ক এর সভাপতি চার্টার্ড অ্যাকাউন্টেন্ট মুশতাক আহমেদ এর দিকনির্দেশনায় এবং সাধারণ সম্পাদক সাহাব আল দীন এর পরিচালনায় বানিয়াচংয়ের ৬২ টি পরিবারের মাঝে এই দ্রব্যসামগ্রী বিতরণ করেন তারা। এছাড়াও খাদ্যসামগ্রী বিতরণকালে সংগঠনের সদস্য আজহার উদ্দিন শিমুল, এইচ এম খায়রুজ্জামান রাজীব, হাসান মোহাম্মদ পিয়াস ও জসিম উদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।   
বেন এর সভাপতি মুশতাক আহমেদ সিলেটভিউকে বলেন, ভোগে সুখ নাই, ত্যাগেই প্রকৃত সুখ। এই আতংকের মধ্যে লন্ডনে অবস্থান করেও দেশের মানুষের জন্য সামান্য কিছু করতে পেরে স্বস্থিবোধ করছি। পুরো দেশ আজ করোনাভাইরাসে স্তব্দ হয়ে গেছে। বিত্তবানদের অবস্থা ভালো থাকলেও বিপাকে পড়েছেন এলাকার খেটে খাওয়া মানুষ। তাই এই মুহুর্তে তাদের পাশে দাঁড়ানো আমাদের দায়ীত্ব বলে আমি মনে করি। তাদের পাশে দাঁড়াতে পেরে নিজেক সৌভাগ্যবান মনে হচ্ছে।  তিনি আরও বলেন, এই করোনা পরিস্থিতিতে দেশের সকল বিত্তবানরা যদি অসহায়দের পাশে দাঁড়ান তাহলে বেঁচে যাবেন দেশের সকল অসহায় মানুষেরা। এছাড়াও এলাকার অসহায় মানুষদের জন্য বানিয়াচং এডুকেশন নেটওয়ার্ক এর সহায়তা অব্যাহত থাকবে বলে জানান তিনি।    সিলেটভিউ২৪ডটকম/৯ এপ্রিল ২০২০/জেইউ/এসএইচ   

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন