আজ বুধবার, ০৮ জুলাই ২০২০ ইং

জুড়ীতে দুর্বৃত্তের আগুনে পুড়ল বন্ধু পোল্ট্রি ফার্মের দুই হাজার মুরগী

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৬-০১ ১৩:৫৬:৫৯

জুড়ী প্রতিনিধি :: মৌলভীবাজারের জুড়ীতে দুর্বৃত্তের দেয়া আগুনে প্রায় দুুই হাজার লেয়ার মুরগীসহ বন্ধু পোল্ট্রি ফার্ম পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। ঘটনাটি সোমবার গভীর রাতে উপজেলার পশ্চিম জুড়ী ইউনিয়নের আমতৈল গ্রামে ঘটেছে। কুলাউড়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সাদেক কাওছার দস্তগীর ও জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

‘বন্ধু পোল্ট্রি ফার্ম’-এর কর্ণদার দীনবন্ধু সেন ও তাঁর ব্যবসায়ীক অংশীদার মো. শাহজাহান অভিযোগ করেন, রাত প্রায় তিনটায় খবর পেয়ে বাড়ী থেকে ফার্মে এসে দেখি দাউ দাউ করে আগুন জ্বলছে। সাথে সাথে থানায় ফোন দেই। পুলিশ এসে ফায়ার সার্ভিসে খবর দেয়। পরে ফায়ার সার্ভিস এসে আগুন নেভায়। তারা বলেন, আমাদের খামারে ২৫৫০টি মুরগী ছিল। মাস খানেক থেকে মুরগী ডিম দিচ্ছে। খামারের প্রতিবেশি রাধাকান্ত দাস ও মঈন উদ্দিন গং দীর্ঘদিন থেকে খামার বন্ধের জন্য ষড়যন্ত্র করে আসছে। গত ১ মে রাত সাড়ে ৯টায় জুড়ী উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান এম এ মোঈদ ফারুকের নেতৃত্বে একদল সন্ত্রাসী আমাদের লেয়ার মুরগীর খামারে হামলা, ভাংচুর ও লুটপাট করে। তখন প্রায় ৫শ মুরগী মারা যায়। এ ঘটনায় থানায় মামলা করলেও কোন আসামী ধরা পড়েনি। এই চক্র গত ২৪ মে রাতে খামারের পিছনের দিকে আগুন লাগানোর চেষ্টা করে। এরাই আজ খামারে আগুন দেয়। এতে প্রায় দুই হাজার মুরগীসহ খামার পুড়ে ছাই হয়ে যায়। খামারের নিকটবর্তী গুদাম ঘরেও আগুন লাগানো হয়। আমরা ৫ জন অংশীদার ৪০ লাখ টাকা ব্যাংক লোন নিয়ে খামারটি গড়ে তুলি। এখন সব হারিয়ে আমরা নিঃস্ব হলাম।

জুড়ী থানার অফিসার ইনচার্জ মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার বলেন, প্রতিদিন অভিযান করলেও আসামীরা পলাতক থাকায় ধরা পড়ছে না। অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

কুলাউড়া সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার সাদেক কাওছার দস্তগীর বলেন, ঘটনাটি অমানবিক। ঘটনাস্থল পরিদর্শন করি। তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১ জুন ২০২০/এমএএল/ডিজেএস

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন