আজ সোমবার, ২০ জানুয়ারী ২০২০ ইং

তিনি রাজপথের মুজিবপ্রেমী!

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০১-১২ ১২:৫৭:৫২

আশীষ দে :: সিলেট নগরীর কোর্টপয়েন্ট, চৌহাট্টা, আলিয়া মাদরাসা মাঠ কিংবা রিকাবীবাজার পয়েন্টসহ সিলেটের সকল রাজপথে আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের সকল সভা-সমাবেশে যার সরব উপস্থিতি ব্যাপকভাবে লক্ষ্য করা যায় তিনি সিলেটের আওয়ামী পরিবারে অত্যন্ত সুপরিচিত ব্যক্তি, নাম দ্বিজেন্দ্র লাল শর্মা।  এই দ্বিজেন্দ্র লােরে কাজই হচ্ছে রাজপথ, কিংবা মাঠে ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণগুলো নি:স্বার্থভাবে মানুষকে শুনিয়ে বেড়ানো। বঙ্গবন্ধুর প্রায় সবগুলো ভাষণই তার মুখস্থ, ঠোটস্থ। ভাষণ শুনে কেউ টাকা পয়সা দিতে চাইলে তিনি তা নেন না বলে শোনা যায়।

এদিকে, দ্বিজেন্দ্র লাল শর্মা মাঠে ময়দানে ভাষণ দেন বলে কেউই তাকে পাত্তা দিতে চান না।   উল্টো তাকে "পাগল টাইপ" মানুষ বলে আখ্যা দেন অনেকেই। অবশ্য আমিও উনাকে পাগল বলি- তবে তিনি স্বার্থের পাগল নন, মুজিব নামটির পাগল। তিনি ভুমি দখল,টিলা কর্তন, মাদক ব্যাবসার পাগল নন বরং মুজিব আদর্শের পাগল। তাই এরকম পাগল দ্বারা সমাজের আর যাই হোক- ক্ষতি হবার নয়।

দিরাইয়ের ঘাগাটিয়া গ্রামে জন্ম নেয়া দ্বিজেন্দ্র লাল শর্মা ১৯৭১ সালের স্বাধীনতা যুদ্ধে একজন নাবালক ছিলেন, কিন্তুু তত্কালীন সময়ে বঙ্গবন্ধু প্রদত্ত প্রত্যেকটি ভাষণ তার কিশোর মনকে ব্যাপকভাবে নাড়া দিয়ে যায়। তিনি বনে যান একজন পাগল।  যে পাগল জাতির পিতা শেখ মুজিবুর রহমানকে বুকে লালন করে নি:স্বার্থ, নিষ্কলুষ ভালোবাসায়। দ্বিজেন্দ্র লাল ১৯৮৪ সালে এস.এস.সি পাস করলেও আর্থিক অস্বচ্ছলতার কারণে আর পড়ালেখা চালিয়ে যেতে পারেন নি। পরবর্তীতে ১৯৮৮ সাল থেকে দীর্ঘদিন যাবত সিলেট কোতোয়ালি থানায় মুহুরি হিসেবে কাজ করেন এই মুজিবপ্রেমী।

বঙ্গবন্ধুর জন্ম শতবর্ষে এই নিস্কলুষ মুজিবপ্রেমীর জন্য রইল অজস্র ভালোবাসা।


শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   শাবিতে টং পুননির্মাণের দাবি জানালো ছাত্রফ্রন্ট
  •   ভর্তি ছাড়া কোনো শিক্ষার্থী হলে থাকতে পারবে না: শাবি ভিসি
  •   শাহজালালে শিগগিরই চালু হচ্ছে ই-গেট
  •   শোকাহত শাহাব উদ্দিনের পাশে সিলেট মহানগর বিএনপি
  •   অনুমোদন ছাড়া চিকিৎসকের নাম-পদবী ব্যবহার নয়
  •   সিলেটে যুবদলের মকসূদকে গ্রেফতার করেছে র‍্যাব
  •   এমইউ’র আইন ও বিচার বিভাগের স্প্রিং টার্মের শিক্ষার্থীদের অরিয়েন্টেশন সম্পন্ন
  •   হ্যারি-মেগানকে জনসনের শুভেচ্ছা
  •   কুলাউড়ায় সরকারী বনাঞ্চলে বন কর্মকর্তার যোগসাজশে গাছ কাটার ধুম!
  •   গ্যাসের মজুত আর মাত্র ১১ বছর
  •   প্রধানমন্ত্রীর ত্রাণ তহবিল থেকে নগরীর ৩নং ওয়ার্ডে শীতবস্ত্র বিতরণ
  •   শাবিপ্রবিতে শহীদ আসাদ দিবস পালিত
  •   মৃত ঘোষণার পর মায়ের কোলে নড়ে উঠল নবজাতক!
  •   আজান দিয়েও ভোটারদের কেন্দ্রে আনা যাচ্ছে না
  •   ভারতের বাজেটের চেয়েও বেশি সম্পদ ৬৩ ধনীর হাতে
  • সাম্প্রতিক মুক্তমত খবর

  •   শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে রাজনীতি এবং সংকট: সাম্প্রতিক ভাবনা
  •   শীতকালীন প্রকৃতি ও মানব জীবনের পরিবেশ দর্শন
  •   এ যুগের অগ্নিকন্যা ফজিলাতুন্নেছা বাপ্পি
  •   ওয়াজ, পু‌জা মিথ আর মিথ্যার রাজনীতি
  •   এম এ মান্নান এক বিস্ময়কর যোদ্ধার জীবন
  •   ক্ষণজন্মা এক ব্যক্তিত্ব আল্লামা ফুলতলি (রাহ.)
  •   শতাব্দীর উজ্জ্বল নক্ষত্র আল্লামা ছাহেব ক্বিবলাহ ফুলতলী
  •   ‘পেঁয়াজ ডুবিয়ে নয় চুবিয়েই হোক রান্না’
  •   শরীর ও মন ভালো রাখার অন্যতম মাধ্যম 'দৌঁড়'
  •   বাংলাদেশ ছাত্রলীগ ৭২বছরের অপ্রতিরোধ্য অভিযাত্রা
  •   প্রেম-পেশা আর ভালবাসার মা‌ঝি-জীবন
  •   আমি কেন বিশ্ববিদ্যালয় সুনামগঞ্জ শহরের দক্ষিণে হওয়ার পক্ষে
  •   নাদেলের কাছে সৈয়দ হকের খোলা চিঠি
  •   অভিনন্দন নাদেল ভাই
  •   ঢাবি ভিসি কি ক্যাম্পাসে লাশ দেখতে চেয়েছিলেন?