আজ শনিবার, ৩০ মে ২০২০ ইং

লামা'র রক্তে করোনার প্রতিষেধক?

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৫-০৭ ২০:৫৮:৪৫

ডা. সাঈদ এনাম  :: লামা (Llama) মরুভূমির উটের থেকে ছোট আর আমাদের দেশের রাম ছাগলের চেয়ে সামান্য বড় একটি প্রাণী। গায়ের পশম ভেড়ার মতো। দক্ষিণ আমারিকায় এর বিচরণ। খামারে লালন পালন করা হয়। এর মাংস খান স্থানীয়রা। ইদানীং করোনাভাইরাসের এন্টিবডি তৈরির জন্যে লামা রক্ত র‍স নিয়ে গবেষণা শুরু হয়েছে।

গবেষণাটি বিখ্যাত মেডিকেল জার্নাল CELL এ গত মঙ্গলবার প্রকাশিত হয়। এ নিয়ে ইতিমধ্যে হইচই পড়ে গেছে।

গত ৫ বছর পূর্বে বেলজিয়ামের একটি গবেষণাগারে একইভাবে একটি লামার দেহে ইনজেকশনের মাধ্যমে SARS (সার্স) ও (MARS) মার্স ভাইরাস দেয়া হয়েছিল।

গবেষণায় ব্যবহৃত সেই লামা'র নাম দিয়েছিলেন গবেষকরা উইন্টার। উইন্টারে বয়স ছিল তখন মাস নয় মাস।

সার্স ও মার্স ভাইরাসের সংক্রমণে উইন্টারের রক্তে এসব ভাইরাসের বিরুদ্ধে কার্যকরী এন্টিবডি তৈরি হয়। উইন্টারের এই এন্টিবডি গবেষণাগারে সফল ভাবে সার্স ও মার্স ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করার প্রমাণ পাওয়া গিয়েছে।

আজকের বিশ্বে মহামারী হিসেবে আবির্ভূত কোভিড-১৯ রোগের ভাইরাস যার নাম SARS COV -2 (সার্স কোভ -২) ভাইরাস কেও কয়েকদিন আগে উইন্টার নামের সেই লামার দেহে একইভাবে ইনজেকশনের মাধ্যমে পুশ করা হয়েছিল।

ফলাফলে দেখা গিয়েছে সার্স ও মার্স করোনাভাইরাস এর মতো তার দেহে SARS COV-2 করোনাভাইরাস কে নিষ্ক্রিয় কারী এন্টিবডি তৈরি হয়েছে। এই এন্টিবডি গবেষণাগারে সফলভাবে কোভিড-১৯ এর ভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করছে। এ নিয়ে গতকাল লিখিত গবেষণাটি প্রকাশ করেছেন গবেষক দল।

লামা'র রক্তে তৈরি হওয়া সেই এন্টিবডিকে কাজে লাগিয়ে কিভাবে মানবদেহে কোভিড-১৯ রোগ সৃষ্টিকারী ভাইরাস "SARS COV-2 করোনাভাইরাসকে নিষ্ক্রিয় করা যায় সে নিয়ে গবেষণা শুরু করছেন বিজ্ঞানীরা। দেখা যাক কী হয় ভবিষতে!

লেখক : সহকারী অধ্যাপক, সিলেট মেডিকেল কলেজ, সিলেট

সিলেটভিউ২৪ডটকম/৭ মে ২০২০/মিআচৌ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন