আজ সোমবার, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০ ইং

‘মৌলভীবাজার জেলাটি যেন এখনো অপূর্ণাঙ্গ’

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০২০-০৯-১৪ ২২:৪১:০৭

২৫ লাখ জনসংখ্যা নিয়ে বিশেষ বৈশিষ্ট্যের কারণে মৌলভীবাজার একটি ঐতিহ্যমন্ডিত জেলা। দেশের কৃষ্টি, সভ্যতা, সংস্কৃতিতে জেলায় রয়েছে বৈচিত্র্যময় পরিবেশ। চা-বাগান সমূহের দৃষ্টিনন্দন দৃশ্য এবং মূল্যবান প্রাকৃতিক সম্পদ। আদিবাসীদের স্বতন্ত্র সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য, অভ্যন্তরীণ উন্নত যোগাযোগ ব্যবস্থা, অবকাঠামোগত সুবিধা, প্রাকৃতিক অপার সৌন্দর্য সমাহারে এ জেলাটি অন্যান্য জেলার তুলনায় অনেকটাই ভিন্ন। এ ভিন্নতা ছাড়াও মৌলভীবাজার জেলার অন্যান্য আকর্ষণের মধ্যে রয়েছে লাউয়াছড়া জাতীয় উদ্যান, বাংলাদেশ চা গবেষণা ইনষ্টিটিউট, মনু ব্যারেজ, মাধবপুর চা-বাগান লেক, মনিপুরী পল্লী, প্রাকৃতিক গ্যাস ট্রান্সমিশন প্লান্ট, কমলা/লেবু/আনারস বাগান ইত্যাদি। এছাড়া পাহাড়, টিলা, সংরক্ষিত বনাঞ্চল, হাওড়/বাওড়/বিল, ঝর্ণা, নদ-নদী পরিবেষ্টিত এবং জীববৈচিত্র্যে সমৃদ্ধ। সব কিছু বিবেচনায় জাতীয় অর্থনীতিতে এই জেলার অবদান কম নয়।

এতকিছু সত্ত্বেও মৌলভীবাজার জেলাটি যেন এখনো অপূর্ণাঙ্গ রয়ে গেছে। বঙ্গবন্ধু কন্যা, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বিদ্যানন্দিনী দেশরত্ন শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সারাদেশে যখন শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়নের জোয়ার বইছে ঠিক অজানা কারণে মৌলভীবাজার জেলাটি শিক্ষাক্ষেত্রে উন্নয়ন বঞ্চিত। এই অঞ্চলে বহু শিক্ষার্থী মেধার স্বাক্ষর রেখে বাংলাদেশের অন্যন্য বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়তে যায়। তাছাড়া নিজ জেলায় বিশ্ববিদ্যালয় না থাকায় অনেক অভিভাবক তাদের সন্তানদের উচ্চ শিক্ষা দিতে আগ্রহ দেখান না। ফলে সুযোগের অভাবে অকালেই ঝরে যায় কিছু মেধাবী মুখ। তাছাড়া অঞ্চলভিত্তিক উচ্চ শিক্ষাগত ভারসাম্য আনয়নের জন্য মৌলভীবাজারে একটি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ এখন সময়ের দাবি।

মাননীয় প্রধানমন্ত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনার কাছে আমাদের মৌলভীবাজারবাসীর আকুল আবেদন, আমাদের জেলায় একটি বিশ্ববিদ্যালয় এবং মেডিকেল কলেজ প্রদান করে আমাদেরকে উচ্চশিক্ষা অর্জনের সুযোগ করে দিবেন। যথাযথ কর্তৃপক্ষের প্রতি আমাদের বিনীত অনুরোধ থাকবে উচ্চ শিক্ষা সবার দোরগোড়ায় পৌছে দিতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

-এস এম জাকির হোসাইন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন