আজ সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

সুনামগঞ্জ শহরে প্রবেশ করেছে বন্যার পানি, পরিস্থিতি অবনতির আশংকা

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৭-১১ ২২:২৩:১৩

সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: টানা বর্ষণ আর পাহাড়ী ঢলে সৃষ্ট বন্যার পানি সুরমা নদীর বিপদসীমা  ১০০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়ে এখন শহরমূখী। বন্যার পানি সুরমা নদী উপচে শহরের অন্তত ৭টি পয়েন্ট, মধ্যবাজার, পশ্চিমবাজার এলাকাসহ বিভিন্ন পাড়ামহল্লায় প্রবেশ করতে শুরু করেছে। আগামী কয়েকদিন টানা বৃষ্টিপাত হলে বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হতে পারে বলে আশংকা করেছে পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) রাত ৯টা পর্যন্ত বিপদসীমার রেডিং পয়েন্ট ৭.২০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়ে ৮.২০ সেন্টিমিটারে পৌঁছেছে। রাতে বৃষ্টিপাত অব্যাহত থাকলে নদীর পানি শহরের উঁচু উঁচু স্থানে প্রবেশ করার আশঙ্কা রয়েছে বলে জানিয়েছেন পানি উন্নয়ন বোর্ড সূত্র।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় শহরের নবীনগর, ধোপাখালি, ষোলঘর, কাজিরপয়েন্ট, উকিলপাড়া, পশ্চিম আরপিননগর, পশ্চিম তেঘরিয়া, পশ্চিম হাজীপাড়া, বড়পাড়া, সাববাড়ীঘাট, জেলরোড, মধ্যবাজার এলাকায় পানি প্রবেশ করেছে। ফলে পানি যানবাহন চলাচলে প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করছে। বেশি সম্যায় আছেন শহরের নবীনগর ও বড়পাড়া বস্তি ও সাববাড়ীঘাট ও উত্তর আরপিননগর এলাকার মানুষ। প্রায় পানিবন্দি অবস্থায় রয়েছেন তারা।  

এদিকে মধ্যবাজার ও বিভিন্ন পয়েন্টের দোকানে বন্যার পানি ঢুকার আশঙ্কা করছেন ব্যবসায়িরা। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে মালামালের ক্ষয়ক্ষতি হতে পারে বলে জানান তারা।

শহরের পশ্চিম হাজীপাড়া এলাকার দুলাল মিয়া বলেন, আমার বাড়ীর আশেপাশে পানি। বাসার সামনের রাস্তা কোমর পানি। এভাবে পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকলে বাসায় পানি ঢুকতে পারে। পাশের বস্তি এলাকার মানুষ বিপাকে আছেন। প্রায় ঘরেই পানি ঢুকে গেছে।

মধ্যবাজার এলাকার এক ব্যবসায়ি হেলাল উদ্দিন বলেন, আমার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে লক্ষ লক্ষ টাকার মালামাল। যেভাবে পানি বৃদ্ধি পাচ্ছে মনে হচ্ছে রাতেই দোকানে পানি ঢুকবে। এতো টাকার মালামাল কোথায় রাখি।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী আবু বক্কর ছিদ্দিকী ভূইয়া বলেন, সুরমা নদীর পানি বিপদসীমার ১০০ সেন্টিমিটার ছাড়িয়েগেছে। আগামী তিন দিন বৃষ্টিপাত হবে, পরিস্থিতি আরো খারাপ হতে পারে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১১ জুলাই ২০১৯/এসএনএ/পিডি

@

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   মৌলভীবাজার জেলার শ্রেষ্ঠ সহকারী শিক্ষক ফখর উদ্দীন
  •   সাবেক ছাত্রনেতা হিসেবে তুমি সফল: নাসিরকে আবু নছর
  •   ছাতকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় কসমেটিকসসহ তিন চোরাকারবারি আটক
  •   হবিগঞ্জে মোবাইল চার্জ দিতে গিয়ে স্কুলছাত্রের মৃত্যু
  •   সিলেটে সেই তিন নেতাকে নিয়ে হাপিত্যেশ
  •   কোনো ষড়যন্ত্রই শেখ হাসিনার ক্ষমতা চিরস্থায়ী করতে পারবে না: নজীব
  •   মাসুক উদ্দিন আহমদকে সিলেট আইনজীবী সমিতির ফুলেল শুভেচ্ছা
  •   ৭০ বছর পর ফিরে আসা নেকড়েকে পিটিয়ে হত্যা
  •   মাধবপুর প্রেসক্লাবের সঙ্গে নবাগত ওসির মত-বিনিময়
  •   সিলেট উইমেন চেম্বারের উদ্যোগে ৫ দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ কর্মশালা সম্পন্ন
  •   সরকার জনগণের বাসস্থানের অভাব পূরণে কাজ করে যাচ্ছে: মাহমুদ-উস-সামাদ চৌধুরী
  •   সিলেটে বিজয়ের বইমেলা ও যুদ্ধদিনের স্মৃতি ‘৭১ উদ্বোধন
  •   বোরহান উদ্দিন মাজার জিয়ারত করলেন মহানগর আ.লীগ নেতৃবৃন্দ
  •   পিয়াজের দাম বৃদ্ধিতে মন্ত্রীর বিরুদ্ধে মামলা
  •   ওসমানীনগর মহিলা আ.লীগের সভাপতি সুমি, সম্পাদক মুক্তা
  • সাম্প্রতিক সুনামগঞ্জ খবর

  •   ছাতকে বিপুল পরিমাণ ভারতীয় কসমেটিকসসহ তিন চোরাকারবারি আটক
  •   কমরেড বরুণ রায় আজীবন শোষন-বৈষম্যের বিরুদ্ধে লড়াই করেছেন
  •   ১০ বছর পর বাংলাদেশ লন্ডন আমেরিকার মতো হবে: জগন্নাথপুরে পরিকল্পনামন্ত্রী
  •   জগন্নাথপুরে বেপরোয়া মোটরসাইকেল, নিহত ২
  •   জগন্নাথপুরে মেয়েকে দেশে ফিরিয়ে আনতে মায়ের আকুতি
  •   দিরাইয়ে ফের গলায় ফাঁস লাগানো অবস্থায় শিশুর লাশ উদ্ধার
  •   জগন্নাথপুরে সেতু থাকলেও সড়ক নেই
  •   তাহিরপুরে অবৈধ বালু উত্তোলকারীকে আটকের পড় ছেড়ে দিল পুলিশ
  •   তাহিরপুরে শহীদ সিরাজুলের সমাধি, বন জঙ্গলে ভরপুর
  •   ছাতকে ডাকাতি, অস্ত্রসহ ৫ মামলার পলাতক আসামী গ্রেফতার
  •   কিডনি প্রতিস্থাপনের মাধ্যমে শাখাওয়াত এখন সুস্থ, পেলেন অটোরিকশা
  •   সুনামগঞ্জে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত পুলিশ সদস্য
  •   ছাতকে আ.লীগের বিবদমান দু'গ্রুপ মুখোমুখি, ১৪৪ ধারা জারি
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে পরিবার কল্যাণ সেবা ও প্রচার সপ্তাহের উদ্বোধন
  •   জগন্নাথপুরে সরকারি মডেল মসজিদ নির্মাণ কাজের শুরুতেই অনিয়ম