আজ বুধবার, ১২ অগাস্ট ২০২০ ইং

দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ৩০ লক্ষ টাকা ব্যয়ে নির্মাণ করা হবে প্রেসক্লাব ভবন

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০৯-১১ ২১:০৯:৫৮

দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি :: যিনি জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার পর থেকেই গোটা সুনামগঞ্জ উন্নয়নে আলোকিত, যার বদৌলতে নির্বাচনী এলাকা দক্ষিণ সুনামগঞ্জ-জগন্নাথপুর উপজেলা উন্নয়নের জোয়ারে ভাসছে। যার উন্নয়নের ছোঁয়ায় বিকশিত হচ্ছে সুনামগঞ্জের প্রতিটি এলাকা। যে মানুষটির একমাত্র কাজই জনগণের উন্নয়নে, দেশের উন্নয়নে নিজেকে বিলিয়ে দেয়া, যার উন্নয়ন গত ১০০ বছরের উন্নয়নকে হার মানিয়েছে, যার জন্য সকল প্রকার সুযোগ সুবিধায় ভরপুর হচ্ছে গোটা জেলার মানুষ তিনি আমাদের এই হাওরাঞ্চলের উন্নয়নের অগ্রদূত, উন্নয়নের মহারথী, হাওররত্ন বাংলাদেশ সরকার পরিকল্পনামন্ত্রী  এম এ মান্নান।

এম এ মান্নানের উন্নয়নের চিত্র হিসেবে আমাদের চোখের সামনে প্রতিয়মান হচ্ছে টেক্সটাইল ইন্সটিটিউট, বঙ্গবন্ধু মেডিকেল কলেজ, বিটাক, সুনামগঞ্জ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, সুনামগঞ্জ সদর মেডিকেল হাসপাতালকে বহুতল ভবনে উন্নতিকরণ, সুনামগঞ্জ-সিলেট মহাসড়ক প্রশস্তকরণে ১৫০ কোটি টাকা বরাদ্ধ, জগন্নাথপুরে ড্রেনের জন্য ৫০ কোটি টাকা বরাদ্ধ, ২৮ কোটি টাকা ব্যায়ে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নির্মাণ, জেলার স্কুল কলেজগুলোকে সরকারিকরণ, স্কুল -কলেজে নতুন নতুন একাডেমিক ভবন নির্মাণ,  কারিগরী শিক্ষা কেন্দ্র নির্মাণ পরিকল্পনা  ইত্যাদি ইত্যাদি। বাংলাদেশের একমাত্র মন্ত্রী হিসেবে এম এ মান্নানই তার নির্বাচনী আসনের সাধারণ মানুষের কথা চিন্তা করে ১০০ কোটি বরাদ্দ দিয়েছেন স্যানিটেসন ও টিউবওয়েলের জন্য। যা সাধারণ মানুষ আগে কল্পনাও করতে পারেনি। ভূতুড়ে রাস্তাঘাট আলোকিত করা হচ্ছে সৌর বিদ্যুৎ ল্যাম্প পোস্টের মাধ্যমে। প্রতিটি ঘরে ঘরে পৌঁছে গেছে সোনার কাটি বিদ্যুৎ। রাস্থাঘাট, শিক্ষা, স্বাস্থ্য, সবক্ষেত্রেই ঘটছে বিপ্লব। এক কথায় সুনামগঞ্জের সার্বিক উন্নয়নেই এম এ মান্নানের অবদান অনস্বীকার্য।

তারই ধারাবাহিকতায় নজীরবিহীন ইতিহাস স্থাপন করেছেন দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাব ভবন নির্মানের জন্য ৩০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দিয়ে। দেশের কোন উপজেলায় এমন ভবন নির্মানের নজির খোজে পাওয়া যাবে না। নিজে উদ্যোগ নিয়েই সাংবাদিকতার উৎকর্ষ সাধনের জন্য সবাইকে মিলিত করে ভবন নির্মাণ কথা বলেন। আর আমরাও এসে যাই একবৃত্তে।

পড়ন্ত বিকালে আবহাওয়াটাও বেশ ভালো। পাখিদের কিচির মিচির শব্দে পরিবেশটা মাতোয়ারা, হিজল বাড়ির আরফান আলী বৈঠক খানায় মানুষের মিলনমেলা ঠিক তখনই খবর আসে প্রেসক্লাবের জন্য ৩০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়া হয়েছে। আমরা সাংবাদিকরা আনন্দিত, উদ্বেলিত হই। ছুটে যাই হিজল বাড়ির সেই আরফান আলী বৈঠক খানায়; আর হাওরত্নের হাত থেকে গ্রহণ করি আমাদের বরাদ্দের চিঠি। প্রেসক্লাব ভবনটি উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা পাশেই নির্মাণ হওয়ার মধ্যদিয়ে স্বপ্ন পূরন হবে আমাদের।

এ ব্যাপারে দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি কাজী এম জমিরুল ইসলাম মমতাজ বলেন, আমাদের প্রেসক্লাবে ৩০ লক্ষ টাকা বরাদ্দ দেয়ায় আমরা পরিকল্পনামন্ত্রী মহোদয়ের কাছে চিরকৃতজ্ঞ।  আল্লাহ উনাকে আমাদের মাঝে রহমত হিসেবে প্রেরণ করেছেন। এরকম মানুষ এ পৃথিবীতে বিরল। আল্লাহ রাব্বুল আলামিন আমাদের অভিভাবক পরিকল্পনামন্ত্রী মহোদয়কে নেক হায়াত দান করেন।

জেলা প্রশাসক মো: আব্দুল আহাদ বলেন, দক্ষিণ সুনামগঞ্জ প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণের জন্য বরাদ্দের চিঠি পেয়েছি। অচিরেই প্রেসক্লাব ভবন নির্মাণের কাজ শুরু করা হবে।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সাম্প্রতিক সুনামগঞ্জ খবর

  •   সুনামগঞ্জ সদরে ভাতার বহি বিতরণ
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে বন্যায় রাস্তাঘাটের বেহাল দশা
  •   জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে দিরাইয়ে প্রস্তুতিমূলক সভা অনুষ্ঠিত
  •   সুনামগঞ্জ শহরে দিনেদুপুরে মুক্তিযোদ্ধার বাসায় চুরি
  •   সুনামগঞ্জে হত্যা মামলায় ছয় জনকে চার্জশিট থেকে বাদ দেয়ার অভিযোগ
  •   সারা দেশে এক বিলিয়ন গাছের চারা রোপণ করা হবে: পানি সম্পদ সচিব
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে ট্রাক সিএনজির মুখোমুখি সংঘর্ষে আহত ৬
  •   দোয়ারাবাজারে বাংলাবাজার-নোয়ারাই রাস্তা সংস্কারের দাবিতে মানববন্ধন
  •   দক্ষিণ সুনামগঞ্জে শতাধিক ঘরবাড়ি নদী ভাঙ্গনের হুমকিতে
  •   জগন্নাথপুরে পুলিশসহ আরো ৩ জনের করোনাভাইরাস সনাক্ত