আজ বৃহস্পতিবার, ১৮ অক্টোবর ২০১৮ ইং

কানাডার মাটিতে বাংলাদেশীদের সবুজ বাগান

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৭-২৪ ১৮:৪৭:৫৮

মোয়াজ্জেম সাজু, কানাডা থেকে :: গ্রীষ্মের এই সময়টাতে কানাডার মন্ট্রিয়ালে যাদের বাড়িতে জায়গা রয়েছে তাদের বেশিরভাগ বাড়ির আঙ্গিনায় নানা জাতের সবজি চাষ করে বিদেশের মাটিতে পরিচিত করছেন প্রবাসী বাংলাদেশিরা।

নিত্যদিনের কাজের ফাঁকে চাষ করা এসব তাজা সবজি দেখতে যেমন সতেজ এবং খেতেও অনেক সুস্বাদু। গ্রীষ্মের এই সময়টাতে বাড়ির আঙিনার উৎপাদিত সবজিতে রয়েছে দেশীয় স্বাদ। কোন ধরনের কীটনাশক ছাড়া সবজি চাষ করা যায় এবং সবজি ফ্রিজেও সংরক্ষণ করে সারা বছর খেতে পারেন তারা।

টমেটো, আলু, বেগুন, শসা, ফুলকপি, বাঁধাকপি, ডাঁটা, ঢেঁডশ, বরবটি এসব সব্জির চাষ করা হয়।এবং ফলন ও খুব ভাল হয়।এছাড়া শাকের মধ্যে রয়েছে লাল শাক, পুঁই শাক এবং লাউ শাক। সবজি উৎপাদন যাদের বেশি হয় তারা নিজের চাহিদা মিটিয়ে আত্মীয়-স্বজনদের মাঝে বিলিয়ে দেন। এসব সবজি চাষের সময় জুন মাস থেকে সেপ্টেম্বরের মাসের মাঝামাঝি সময় পর্যন্ত করা যায়।

মৌলভীবাজারের শামস উদ্দিন জানান- কানাডার বিভিন্ন গ্রোসারীর শপে বাংলাদেশের তরিতরকারি পাওয়া গেলেও স্বাদ খুবই কম। তাই নিজের চাষ করা সবজিতে স্বাদ বেশি এবং অনেক তৃপ্তি পাওয়া যায় তাই আমরা কাজকর্মের পাশাপাশি সবজি চাষ করি।    

বাংলাদেশি বেশিরভাগ সবজিরর বিজ কানাডায় পাওয়া যায় এবং চাষাবাদের উপকরণও পাওয়া যায় এখানকার বাজারে। তাদের কৃষি উপকরণ উন্নত থাকায় সবজী চাষে তেমন পরিশ্রম হয়না। সঠিকভাবে পরিচর্যা করলে ফলনও হয় বেশ ভাল।

সিলেট গোলাগঞ্জের নিয়াজ উদ্দিন জানান, আমি ২০০৫ সালে কানাডায় এসে ঘরের পিছনের একটু যায়গাতে আমি প্রথমে দুইটি টমেটোর গাছ লাগিয়ে সবজির চাষের কাজ শুরু করি। আমরা জুন জুলাই মাসের অপেক্ষায় থাকি। বর্তমানে নিয়াজ উদ্দিনের বাগানে পনের জাতের সবজি রয়েছে এবং প্রতিবছর ফলনও বেশ ভাল হয়। তিনি জানিয়েছেন এসব সবজি দোকানে তুললে অনেক সময় কাড়াকাড়ি লেগে যায়।

গ্রীষ্মের এই সময়টাতে বাড়ির সামনে ও পেছনের আঙিনায় বাংলাদেশিরা সবজি চাষ করেন বেশ সুনাম অর্জন করছেন কানাডার মাটিতে। 

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২৪ জুলাই ২০১৮/এমএস/ডিজেএস

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সুনামগঞ্জে হস্তশিল্প ও পণ্য প্রদর্শনী মেলায় নিম্নমানের পণ্য, বাড়তি দাম
  •   চামড়া শিল্পের বিষ্ময়কর উন্নয়নে সরকারের অবদান
  •   অটিজম মোকাবেলায় সরকারের সাফল্য
  •   ডিজিটাল বাংলাদেশ: শেখ হাসিনার উপহার
  •   আইয়ুব বাচ্চু আর নেই
  •   টিলাগড়ে ছাত্রলীগ কর্মী হত্যা: অপেক্ষা বিচারের
  •   কুমিল্লা সফরে যাচ্ছে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ
  •   সি‌লে‌টে সমা‌বে‌শের অনুম‌তি পেয়েছে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট
  •   বালাগঞ্জে গ্রাম আদালতের ‘কমিউনিটি মতবিনিময় সভা’ অনুষ্ঠিত
  •   বালাগঞ্জের বোয়ালজুড় ও ইলাসপুর বাজারে মন্টুর গণসংযোগ
  •   যুক্তরাজ্যের ইস্ট লন্ডন যুবলীগের বিবৃতি
  •   আমরা একটি শান্তির বাংলাদেশ গড়তে চাই: ড. মোমেন
  •   শেখ রাসেলের যত কথা
  •   পাবলিক ফিগার, এজন্য এত কথা সহ্য করি: পিয়া
  •   ঢাবির ভর্তি পরীক্ষা: 'গ' ইউনিটে ফেল, 'ঘ' ইউনিটে প্রথম!
  • সাম্প্রতিক প্রবাস জীবন খবর

  •   জার্মানির মিউনিখে দুর্গাপূজা উপলক্ষে নানা আয়োজন
  •   ইতালিতে পালেরমো আ.লীগের বর্ধিত সভা অনুষ্ঠিত
  •   বঙ্গবন্ধুর বই নিয়ে কানাডা মহিলা আ.লীগের আলোচনা সভা
  •   বেলজিয়ামে কাউন্সিলর পদে বাংলাদেশি শায়লা শারমীনের জয়
  •   বার্সেলোনায় বিশ্বনাথ আইডিয়েল এসোসিয়েশনের বর্ণিল অভিষেক
  •   প্যারিসে অধ্যক্ষ আব্দুল মুকিত স্মরণে শোক সভা
  •   বেলজিয়ামের স্থানীয় সরকার নির্বাচনে বাংলাদেশী প্রার্থীর জয়
  •   টরেন্টো স্কুল বোর্ড ট্রাস্টি নির্বাচনে ফেরদৌস বারীকে ১২টি কমিউনিটির সমর্থন
  •   মাদ্রিদে দুর্গোৎসব ও শারদ মেলা
  •   পর্তুগালে গোল্ডেন রেসিডেন্ট ভিসার সুযোগ
  •   স্পেনে বাংলাদেশ ‘উন্নয়ন মেলা’ ১৬ অক্টোবর
  •   ব্রিটেনে সিলেটের দুই তরুনের সাফল্য লাভ
  •   সৌদিআরব পুরাতন এয়ারপোর্ট মাদার গাদিম অঞ্জল কমিটির প্রতিবাদ ও নিন্দা
  •   তারেক রহমানের বিরুদ্ধে রায়ের প্রতিবাদে উত্তাল সৌদিআরব
  •   কানাডায় বিএনপির মিছিল