আজ বুধবার, ১২ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

ব‌হে তৃ‌প্তিধারা, জীবনের উঠোনময়

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৬-২৮ ১৪:৫১:৪২

লেখক

মুন‌জের অাহমদ চৌধুরী :: ভূলের কারনে যা হারায় সেট‌া কখ‌নো অাস‌লে ছিলই না তোমার।পথ হারা‌তে পা‌রে, কিন্তু গন্তব্য হা‌রি‌য়ে যাব‌ার নয়। অার ভালবাসা কোন অ‌র্থেই হা‌রি‌য়ে ফেলবার বা জোড়া লাগাবার কোন জি‌নিস নয়।

তৃ‌প্তি অার অান‌ন্দের ম‌ধ্যে পার্থক্য‌ রেখাটা পড়‌তে পারা মান‌ু‌ষের জন্য পৃ‌থিবীটা ক‌ঠিন, ত‌বে অ‌-জেয় নয়। চো‌খের দেখা দৃশ্যও কখ‌নো অসত্য হয়।

অাবার, প্রবল সকল সুন্দ‌রেই মি‌থ্যে থা‌কে। সত্য ও সুন্দর একসা‌থে বলা সহজ হ‌লেও সত্য অার সুন্দ‌রে একসা‌থে হ‌লে সংঘাত অা‌সে। অসুন্দর সেখানে অাঘাত হা‌নেই। অাবার অসুন্দ‌রের ঝড়ে সম্প‌র্কের টি‌কে থাকবার যে অনুভূ‌তি,‌ সেটাই  ভালবাসা।

জীবন কখ‌নো অামা‌দের অান‌ন্দের অধ্যায় খু‌লে পড়ায়, কখ‌নো বেদনার । অামরা যে যে ভা‌বেই দিনযাপন ক‌রি না কেন,‌ যে পেশায়, যে দে‌শে, সবখা‌নে। দিন‌শে‌ষে কিন্তু অামাদের সবাই‌কে সমস্যা-সংকট পোহা‌তে হয়। অান‌ন্দের মুহুর্তগু‌লির উদযাপ‌নের শ্রেনী‌ বা রু‌চিভেদ হয়‌তে‌া অামা‌দের সবাই‌কে "এক কাতা‌র"- এ‌ অান‌তে পা‌রে না। কিন্তু, দুঃ‌খের মুহুর্তগু‌লি অামা‌দের খুব সহ‌জেই এক কর‌তে পা‌রে। দুঃ‌খের বা শো‌কের সে বড় এক অদ্ভুত ক্ষমতা।

সমব্যাথা বুঝবার সম‌বেদনার এক ধর‌নের অদ্ভুত রক‌মের সংক্রমনতা অাছে, অন্যের একই ধর‌নের ব্যাথ‌াগুলি‌কে ছুঁয়ে যাব‌ার।

একটা সময়, স‌য়ে যায় পুর‌নো দুঃখ। পুর‌নো ক্ষত সে‌রে উঠবার অভিজ্ঞতালব্ধ পথটি তখন প্রেরনা হ‌য়ে ফি‌রে অা‌সে। জীবন এ‌গি‌য়ে চ‌লে তখন পরবর্তী সংক‌টের সা‌থে লড়াই করবার জন্য।

অার এই সংক‌টের সা‌থে নৈ‌তিকতা নি‌য়ে লড়াই করবার পথ বে‌য়ে জীবন শুদ্ধ হয়। তৃ‌প্তির উৎস অার পথ তখন জীবন‌কে পুর্নাঙ্গ‌তা দেয়। তখন সময় অামা‌দের ক্ষমাশীলতা শেখায়, মার্জনার মহত্বের অধ্যায়‌টি পড়ায় মমতায়।

এই যে এক একটা লড়াই সংগ্রা‌মের পর,খা‌নিকক্ষ‌নের যুদ্ধ‌ বিরতী...‌সেটা প‌রিন‌তি নয়।

মৃত্যুর মুহুর্ত অব‌ধি,জীব‌নের প্রবলতম প‌রিন‌তি হ‌লো ' গ‌তি' । দুঃ‌খকে অভার‌টেক ক‌রে, সংকট‌কে ভেদ ক‌রে জীব‌নের প্র‌য়োজ‌নে বা অান‌ন্দের কাজ‌টি ক‌রে অাত্মা‌কে তৃপ্ত করবার প্র‌য়োজ‌নে ছু‌টেঁ চলা,লড়াই‌য়ের ময়দান না ফে‌লে না পালা‌নো- সেইটাই জীবন।
ক‌র্মের প্র‌তি ভালবাসা,‌বি‌বে‌কের দায়গু‌লির প্র‌তি দায়বদ্ধতা জীবন‌কে গ‌তির লড়াই‌য়ে দাড় ক‌রি‌য়ে দেয়। ম‌নে রাখি সবসময় ক্ষমাশীলতা, মান‌বিকতা  শুধু  একটা 'অার্ট ' না। অার্ট হ‌লে সবাই অ‌ভিন‌য়ের চেষ্টা কর‌তো। সেটা ইশ্ব‌রেরও দান।

কাউ‌কে পরামর্শ দেবার যোগ্যতা বা ধৃষ্টতা কোনটাই অামার নেই। সুন্দর অাসলে খুউব সাধার‌নে থা‌কে। সাধারন মানুষগু‌লিই অসাধারন সব কাজগু‌লি ক‌রে। অা‌পোষ কর‌তে পারা অার না পারার বিষয়টা মেরুদ‌ন্ডে থা‌কে। শেষব‌ধি তৃপ্তি নি‌য়ে বে‌চেঁ থাকবার থাকবার চেষ্টা ক‌রি।‌হে‌রে যাওয়া এবং পে‌রে য‌াওয়ার মধ্যখা‌নে কিছু নেই। জীব‌নের এটা বড় ট্রা‌জে‌ডি।

পুরুষ হিসে‌বে নয়, মানুষ হি‌সে‌বে ভা‌বি নি‌জে‌কে। অার  পুরুষ বে‌শি সা‌প্নিক, পুরুষ কিছুটা দায়িত্বহীন প্রকৃ‌তিগতভা‌বেই। অাবার নারীর ম‌ধ্যে যেম‌নি লক্ষী রূপ থা‌কে, তেম‌নি থা‌কে উর্বশী রূপও। জীবন  অাস‌লে নদীর ম‌তোন। কখ‌নো পদ্মার ম‌তো প্রমত্ত ত‌টিনীর রূপ থাকে, কখ‌নো স্রোতহীন। অাবার, প্র‌ত্যেক‌ জীব‌নেরও জোয়ার-ভাটার ক্ষন অা‌সে, প্র‌তি‌টি অায়ূস্মা‌নের এক‌টি শ্রেষ্ঠ সময় নির্ধারন ক‌রে দেন করুনাময়।

তবু ব‌লি, জীব‌নের মহাসড়‌কে একব‌ার ট্রাক-অাউট হ‌লেই শেষ। অতএব, অ‌ভিষ্ট গন্ত‌ব্যের পা‌নে লড়াই‌য়ে নি‌জের গ‌তি ধ‌রে রেখ বন্ধু। সাম‌লে রে‌খো অাবে‌গের পাল। দেখ‌বে, জীবন তোমা‌কে ঠকা‌বে না। কখ‌নোই, কোনভা‌বেই।

ফার্ষ্টবয়‌দের যে দে‌শে অাত্মহত্য‌াও কর‌তে হয়, সে‌দে‌শেও ‌বি‌বে‌কের কা‌ছে সৎ থাকবার অানন্দ তোমা‌কে তৃপ্ত কর‌বে।

জীব‌নে‌র সা‌থে ম‌নের যে কখ‌নো ভিন্নমত সেটাই বাস্তবতা। জীবন নি‌জেই  অামার কা‌ছে মা‌ঝে ম‌ধ্যে অানন্দ নি‌তে অা‌সে।


লেখক: সাংবাদিক, যুক্তরাজ্য প্রবাসী।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   শ্রীমঙ্গলে ঐক্যফ্রন্ট প্রার্থীর নির্বাচনী প্রচারে বাধা দেয়ার অভিযোগ
  •   সিলেট থেকেই ঐক্যফ্রন্টের নির্বাচনী প্রচারণা শুরু
  •   মাজার জিয়ারত করলেন ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দরা
  •   রাজনগরে ভোক্তা অধিকার আইনবিষয়ক সেমিনার অনুষ্ঠিত
  •   এনইইউবিতে সিএসই সোসাইটির উদ্যোগে ‘রবো ফেস্টিভ্যাল’ অনুষ্ঠিত
  •   ধানের শীষের বিজয় নিশ্চিত করতে গোয়াইনঘাট বিএনপি ঐক্যবদ্ব: হাকিম চৌধুরী
  •   সিলেট এসে পৌছেছেন ঐক্যফ্রন্টের নেতৃবৃন্দ
  •   সিলেট-২ আসনে প্রার্থীতা ফিরে পেলেন এনামুল হক সরর্দার
  •   দেশের মানুষ পরিবর্তন চায়: মুক্তাদির
  •   সিলেটে ঐক্যফ্রন্টের পথসভায় মাইকের সংযোগ বিচ্ছিন্ন করলো পুলিশ
  •   নগরীর কালিঘাট-মহাজনপট্টি এলাকায় মাওলানা রেদওয়ানুলের গণসংযোগ
  •   আরিফকে নিয়ে যা বললেন ড. মোমেন
  •   নৌকার সমর্থনে বিদ্যুৎ শ্রমিকলীগ বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সভা
  •   মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীকে চিঠি: বাংলাদেশের নির্বাচন পরিস্থিতি নিয়ে কংগ্রেসম্যান উইলসনের উদ্বেগ
  •   শাবিতে মাভৈঃ এর নতুন কমিটি গঠন
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   মুক্তিযুদ্ধের স্মৃতিকথা: মার্চ থেকে ডিসেম্বর, ১৯৭১
  •   কুঁড়ে ঘরেই মুক্তিযুদ্ধের বাংলাদেশ দেখেন একজন ওদুদ
  •   ফিরে দেখা : পার্বত্য শান্তি চুক্তির ২১ বছর
  •   বিশ্ব আবার স্কুলে যাচ্ছে!
  •   বাংলাদেশি পাসপোর্ট নিয়ে শততম দেশভ্রমণ করলেন কাজী আজমেরী
  •   নিখোঁজ বঙ্গবন্ধু স্যাটেলাইট-১ এর সন্ধানে
  •   দূর্গোৎসব শুধু নতুন কাপড় পরিধানের জন্য নয়
  •   কাঁদবে রুপালি গিটার কাঁদবে রুপালি প্রজন্ম
  •   আপনার লেখা আরও ভালো করতে ৭টি কলাকৌশল
  •   নামিদামি স্কুলে পড়লেই কি শিশুরা মেধাবী হয়?
  •   রেলের উন্নয়নে বৃটিশদের ছাড়িয়ে গেল বর্তমান সরকার
  •   একজন বোকামানবের জন্ম কিংবা একটা গাধাকে ভালোবাসার গল্প
  •   সিলেট টু ঢাকা: ভার্চুয়াল যুগ; ননভার্চুয়াল ভালোবাসা
  •   আজ বিশ্ব শিক্ষক দিবস
  •   বিশ্বের সবচেয়ে উঁচু ভবন ‘বুর্জ খলিফা’র অজানা ইতিহাস