আজ বুধবার, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮ ইং

সাধারণ চিনি থেকে ২০০ গুন বেশি মিষ্টি: বাড়াবে না ডায়াবেটিকস

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-১১-২৫ ০০:০৬:১২

সাইফুর রহমান, সিকৃবি প্রতিনিধি :: একটি ভেষজ উদ্ভিদ যা সাধারণ চিনির তুলনায় ২০০ (দুইশত) গুণ বেশি মিষ্টি কিন্তু তা ডায়াবেটিসের জন্য কোন ক্ষতিকারক নয়, বরং এন্টি-ডায়াবেটিস হিসাবে কাজ করবে। বিজ্ঞানের ভাষায় নাম ‘Stevia Rebaudiana’ এটি প্রাকৃতিক নন-সুক্রোজ এবং জিরো ক্যালোরিক হার্ব জাতীয় গাছ। যা গ্রহণে কোনো অবস্থাতেই রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বৃদ্ধি করবে না। ষ্টিভিয়ার জিরো ক্যালোরিক মিষ্টি উপাদান ছাড়াও মানবদেহের জন্য রয়েছে নানাবিধ উপকারী গুণাগুণ। এটি একই সাথে এন্টি-ডাইবেটিস ও জীবাণুনাশক হিসাবে কাজ করবে পাশাপাশি হূদরোগ, ক্যান্সার ও স্থূলতা নিয়ন্ত্রণে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা পালন করবে এবং হজমে সহায়তা ও ত্বকের একনি/ডারমাটিটিস একজিমার জন্যও এটি উপকারী।

বাংলাদেশসহ বিভিন্ন দেশে ডায়াবেটস রোগীদের ক্ষেত্রে সাধারণ চিনির পরিবর্তে কৃত্রিম মিষ্টকারক হিসাবে সাইক্লোমেট যৌগ ব্যবহার হয়ে আসছে। কিন্তু সেগুলো ব্যবহারে রয়েছে মারাত্মক প্বার্শপ্রতিক্রিয়া। লিভারসহ শরীরের নানা গুরুত্বপূর্ণ অঙ্গের মারাত্মক ক্ষতিসহ মুত্রথলিতে ক্যান্সার তৈরি করে। এছাড়া ফুসফুস, লিভার এবং লিম্ফ্যাটিক সিস্টেমেও টিউমার তৈরি করে থাকে। দীর্ঘদিন ইনসুলিন ব্যবহারের ফলে ডায়াবেটিস রোগীর শরীরে ইনসুলিন প্রতিরোধক ব্যবস্থা গড়ে উঠে। ফলে হয় ইনসুলিনের মাত্রা বাড়াতে হয় অথবা ইনসুলিন আর ডায়াবেটিস রোগীর গ্লুকোজ নিয়ন্ত্রণে সহায়ক ভূমিকায় কাজ করে না। সেই সব ক্ষেত্রে ষ্টিভিয়া প্রাকৃতিক উপাদান হওয়ায় সাইক্লোমেট যৌগ বা ইনসুলিনের মত পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া নেই। যেহেতু এটি প্রাকৃতিক নন-সুক্রোজ এবং জিরো ক্যালোরিক মিষ্টি উপাদান তাই মিষ্টিকারক হিসাবে মিষ্টি জাতীয় খাদ্যে এবং পানীয়তে ব্যাপক হারে ব্যবহার করা যেতে পারে।

তারই ধারাবাহিকতায় বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের পদার্থ বিজ্ঞানের প্রফেসর ড. মো. খায়রুল হাসান ভূঞা ও ফার্মাকোলজি বিভাগের প্রফেসর ড. কাজি রফিকুল ইসলামের তত্ত্বাবধানে দানাদার ষ্টিভিয়ার ভেষজ গুনাগুন নির্ণয়ে গবেষণা কার্যক্রম পরিচালনা হয়ে আসছে। ইঁদুরের উপর প্রাথমিক গবেষণার ফলাফল থেকে বোঝা যায় তাদের প্রস্তুতকৃত দানাদার ক্রিস্টাল ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণে ভূমিকা রাখতে পারবে। ইঁদুর গুলির স্বাভাবিক খাবার সহ ল্যাবরেটরির পরিবেশেও অভ্যস্ত হওয়ার পর Alloxan ইনজেকশন দিয়ে টাইপ টু ডায়াবেটিস করা হয় এবং গ্লুকোজ পরীক্ষা করা হয়। ষ্টিভিয়া চিনি সুস্থ ইঁদুরকে খাওয়ানোর পরেও রক্তে গ্লুকোজের মাত্রা বৃদ্ধি পায় নাই। তাই নৈমিত্তিক চাসহ বিভিন্ন খাবারের সাদা চিনির পরিবর্তে ষ্টিভিয়া চিনি ব্যবহার করলে টাইপ-২ ডায়াবেটিস আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা কমে যাবে বলে ধারণা করেন তারা।

উল্লেখ্য, গবেষণা প্রবন্ধটি লিখতে সহযোগিতা করেছেন এমএস শিক্ষার্থী ইসরাত জাহান, আসাদুজ্জামান আসাদ ও শেখ রাসেল আহমেদ এবং প্রফেসর ড. কাজী রফিকুল ইসলাম ও ড. মো. খায়রুল হাসান ভূঞা।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/২৫ নভেম্বর ২০১৮/এসআর/এসডি

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সিলেটে এবার ভোটের মাঠে মুক্তাদির পত্নী জাকিয়া
  •   সুষ্ঠু নির্বাচনের বিশ্বাস ভেঙে গেছে: ড. কামাল
  •   প্রধানমন্ত্রীকে স্বাগত জানিয়ে ১০নং ওয়ার্ডে আওয়ামী লীগের প্রচার মিছিল
  •   ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ তৈরি করাই আমাদের লক্ষ্য: প্রধানমন্ত্রী
  •   সিলেট নগরীতে হাতপাখার গণসংযোগে মাওলানা রেদওয়ানুল হক
  •   ভাতালিয়ায় ধানের শীষের সমর্থনে গণসংযোগ, পথসভা
  •   চুনারুঘাটে এমসি কলেজ ছাত্রশিবিরের নেতাসহ দুজনে কারাগারে
  •   নগরীর বাগবাড়িতে ড. মোমেনের গণসংযোগ
  •   নাইওরপুলে এসএমপি কার্যালয়ের সামনে অগ্নিকান্ড
  •   নগরীর ১১নং ওয়ার্ডে মুক্তাদিরের নির্বাচনী উঠান বৈঠক অনুষ্ঠিত
  •   আদালতে হাজিরা শেষে বিভিন্ন এলাকায় মুক্তাদিরের গণসংযোগ শুরু
  •   কানাইঘাট রাজাগঞ্জ বাজারে মতিন চৌধুরী পথসভা অনুষ্ঠিত
  •   ‘বাংলাদেশকে যেনো কারাগারে পরিণত হয়েছে’
  •   জুড়ীতে বিএনপির দুইজন গ্রেফতার
  •   জুড়ীতে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপি প্রার্থির অভিযোগ