আজ সোমবার, ১৫ অক্টোবর ২০১৮ ইং

সিলেটে ঈদবাজারে বৃষ্টির বাগড়া

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৬-১৩ ২২:১৪:১৯

ইমরান আহমদ :: সিলেটে গত কয়েকদিন ধরে ঈদবাজার জমজমাট চলছিল।  ক্রেতাদের আনগোনায় গমগম করছিল পুরো নগর।  তবে বৃষ্টির কারণে কমেছে ক্রেতা সমাগম।  এতে বিক্রি কিছুটা গতি হারিয়েছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা। 

গত দুই দিন ধরে সিলেট নগরে বৃষ্টি হচ্ছে।  কাঠফাটা রোদের পর এই বৃষ্টিতে মানুষ স্বস্তিই পাচ্ছেন।  কিন্তু যারা ঈদের জন্য কেনাকাটা করেননি, তারা কিছুটা বিপাকে পড়েছেন।   বৃষ্টির কারণে তারা বাইরে বেরোতে পারছেন না। 

অন্যদিকে, ব্যবসায়ীরা আশায় ছিলেন শেষমুহুর্তে আরো জমজমাট হবে ঈদবাজার।  ক্রেতার সংখ্যাও বাড়বে।  কিন্তু তাদের সে আশায় গুড়েবালি!

নগরীর বন্দরবাজার, কোর্ট পয়েন্ট, জিন্দাবাজার, চৌহাট্টা, আম্বরখানারসহ বিভিন্ন এলাকার ফুটপাতের দোকানগুলো বৃষ্টির কারণে বন্ধ রাখেন দোকানিরা। আবার অনেকে পলিথিন, ছাতা ও ত্রিপল টানিয়ে বিকিকিনি চালিয়ে যান।

কোর্ট পয়েন্ট এলাকা ফুটপাতে বসা গেঞ্জি ও লুঙ্গি বিক্রেতা আবদুর রহমান সিলেটভিউকে বলেন, “গরিবের আর কি! মরার ওপর খাড়ার ঘা।”

“খাইল বিকাল থাকি বৃষ্টি কপাল খারাপ। বৃষ্টির লাগি তো দোকান বন্ধ রাখছিলাম। আমরা তো রাস্তায় বসি, বন্ধ না রাখলে তো ভিজা যাইব।”

বৃষ্টির কারণে ‘মনমতো’ বিক্রি করতে পারছেন না বলে মন্তব্য করেন জিন্দাবাজারের প্যান্ট বিক্রেতা কবির আহমদ।

ফুটপাত ও রাস্তার উপরের দোকানগুলোর বিক্রেতারা পলিথিন ও ত্রিপল টাঙিয়ে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টিতেও বিক্রি করছিলেন।

বন্দর বাজারের ফুটপাতে জুতা বিক্রেতা ফারুক আহমদ সিলেটভিউকে বলেন, “বার বার তো দোকান বন্ধ রাখা যায় না। তাই পলিথিন দিয়া রাখছি।’’

“কম বৃষ্টি হলে পলিথিন দেওয়া থাকলে কাপড় ভিজে না। বেশি বৃষ্টি হলে ত্রিপল দিয়া ঢাইকা দেই।”

ফুটপাতে বিকিকিনিতে ভাটা পড়লেও শপিংমলগুলোতে ততোটা প্রভাব পড়েনি।  আজ বুধবার সন্ধ্যার পর থেকেই নগরীর শপিংমলগুলোতে ক্রেতাদের ভিড় লক্ষ্য করা গেছে।  বৃষ্টি উপেক্ষা করেই তারা কেনাকাটা করতে বের হন। 

জিন্দাবাজার শুকরিয়া মার্কেটে আসা মিরাবাজারের খলিলুর রহমান সিলেটভিউকে বলেন, “ঈদের বাজার বৃষ্টির কারণে অসুবিধা হচ্ছে ঠিকই। এরপরও ছেলে মেয়েদের জন্য কেনাকাটা করতে হবে।”

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৩ জুন ২০১৮/ইআ/আরআই-কে

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   ই-পাসপোর্ট যুগে প্রবেশ করছে বাংলাদেশ
  •   লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ‘কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স এন্ড এ্যাক্রিডিটেশন’ বিষয়ক কর্মশালা
  •   ৩০ অক্টোবরের পর যেকোনো দিন নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা
  •   ‘সবুজ-শ্যামল পৃথিবী গড়তে বেশী করে গাছ রোপণ করুন’
  •   শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে শিক্ষার মান ঊর্ধ্বমুখী: এমপি সামাদ
  •   মদিনা মার্কেটে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে আলোর ভুবনের দুর্গোৎসব
  •   মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে লায়ন্স ক্লাব অব সিলেট সুরমার ফল বিতরণ
  •   বিশ্বনাথ উপজেলা বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন
  •   ‘ভূয়া সনদে’ বিশ্বনাথে নিয়োগকৃত শিক্ষকদের বাতিলের দাবীতে স্মারকলিপি
  •   মহাসমাবেশ সফলের লক্ষ্যে সিলেট জেলা জাতীয় পার্টির যৌথ সভা
  •   দিরাইয়ে এমপি প্রার্থী ছায়েদ আলীর ব্যানার খুলে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা
  •   এস কে সিনহা’র ‘এ ব্রোকেন ড্রিম’ গ্রন্থ নিষিদ্ধ করার দাবি
  •   মাদক ও জঙ্গি নির্মূলে জনতার সহযোগিতা চাইলেন এসএমপি কমিশনার
  •   পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে সিলেট স্বেচ্ছাসেবকদলের বিক্ষোভ
  •   সিলেটে ৬ মাদক সেবীকে কারাদন্ড
  • সাম্প্রতিক সিলেট খবর

  •   লিডিং ইউনিভার্সিটিতে ‘কোয়ালিটি এ্যাসিউরেন্স এন্ড এ্যাক্রিডিটেশন’ বিষয়ক কর্মশালা
  •   ‘সবুজ-শ্যামল পৃথিবী গড়তে বেশী করে গাছ রোপণ করুন’
  •   শেখ হাসিনার দক্ষ নেতৃত্বে শিক্ষার মান ঊর্ধ্বমুখী: এমপি সামাদ
  •   মদিনা মার্কেটে সুবিধাবঞ্চিত শিশুদের নিয়ে আলোর ভুবনের দুর্গোৎসব
  •   মাদ্রাসার শিক্ষার্থীদের মাঝে লায়ন্স ক্লাব অব সিলেট সুরমার ফল বিতরণ
  •   বিশ্বনাথ উপজেলা বঙ্গবন্ধু শিশু-কিশোর মেলার পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠন
  •   ‘ভূয়া সনদে’ বিশ্বনাথে নিয়োগকৃত শিক্ষকদের বাতিলের দাবীতে স্মারকলিপি
  •   মহাসমাবেশ সফলের লক্ষ্যে সিলেট জেলা জাতীয় পার্টির যৌথ সভা
  •   দিরাইয়ে এমপি প্রার্থী ছায়েদ আলীর ব্যানার খুলে নিয়েছে দুর্বৃত্তরা
  •   এস কে সিনহা’র ‘এ ব্রোকেন ড্রিম’ গ্রন্থ নিষিদ্ধ করার দাবি
  •   মাদক ও জঙ্গি নির্মূলে জনতার সহযোগিতা চাইলেন এসএমপি কমিশনার
  •   পুলিশি বাধা উপেক্ষা করে সিলেট স্বেচ্ছাসেবকদলের বিক্ষোভ
  •   সিলেটে ৬ মাদক সেবীকে কারাদন্ড
  •   সিলেট মহানগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের শোক
  •   গোয়াইনঘাটের লুনি হাওর গ্রামের মসজিদের ভূমি দখলের অভিযোগ