আজ বৃহস্পতিবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

বন্যার ঝুঁকিতে মৌলভীবাজার শহর

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৬-১৫ ১২:০২:৫৭

মৌলভীবাজার প্রতিনিধি: গত কয়েকদিনের টানা বৃষ্টি আর ভারত থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলে ফের মনু নদের পানি বৃদ্ধি পেতে শুরু করেছে। ফলে জেলার মূল শহর ও তার আশপাশের অন্তত ২০টি স্থানে বাঁধ চুঁইয়ে পানি বের হচ্ছে। এমতাবস্থায় পানিবন্দি হওয়ার আশঙ্কায় শহর জুড়ে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়েছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) বলছে রাতে আরও পানি বাড়লে শহর প্রতিরক্ষা বাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করতে পারে। পানি আরও বাড়লে শহর রক্ষায় বিকল্প ব্যবস্থা নেয়া হবে।

শুক্রবার সকালে দেখা যায়, শহরের সাইফুর রহমান রোডের মনু প্রতিরক্ষা বাঁধের ১০-১৫টি স্থান দিয়ে চুঁইয়ে শহরে পানি প্রবেশ করছে। শহরের ব্যস্ততম এ সড়কের ৩ ফুট উপর স্তরে প্রতিরক্ষা বাঁধের ভেতরে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। এরই মধ্যে নদের নিকটবর্তী কয়েকটি ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে পানি ঢুকে পড়েছে। অনেকে আতঙ্কিত হয়ে দোকানের মালামাল অন্যত্র সরিয়ে নিচ্ছেন। এমন অবস্থার মধ্যে হালকা বৃষ্টিপাত তাদের মধ্যে আরও ভয় তৈরি করেছে।

সাইফুর রহমান রোডের একাধিক ব্যবসায়ীর জানান, প্রতিরক্ষা বাঁধের উপর এই রোডে প্রায় শতাধিক দোকান রয়েছে তার মধ্যে বেশিরভাগ অনেক পুরাতন স্থাপনা। নদীর পানি আর বাড়তে থাকলে যেকোন সময় বাঁধটি ভেঙে যাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে, উজানের পানি নিচ দিয়ে দ্রুত বেগে নামার ফলে শহর ও শহরতলীর আরো ৮টির বেশি স্থান ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে বলে জানা গেছে। এর মধ্যে সব থেকে ঝুঁকিতে রয়েছে সদর উপজেলার চাঁদনীঘাট, দুর্লভপুর, কসবা ও শেরপুর এলাকা। এছাড়া উপজেলার কামালপুর থেকে মোমরুজপুর পর্যন্ত কয়েকটি স্থান ঝুঁকিপূর্ণ রয়েছে।

পাউবো জানায়, মনুর পানি আরো ১ মিটার বৃদ্ধি পেলে শহরে বাঁধ উপচে পানি প্রবেশ করার শঙ্কা রয়েছে। চাঁদনীঘাট ব্রিজে বিপদ সীমার ১৩৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হচ্ছে। উজানে বৃষ্টিপাত হওয়ায় মনুর পানি ক্রমাগত বাড়ছে। ইতিমিধ্যে জেলা প্রশাসক, পুলিশ সুপার, পৌর মেয়র ও পাউবোর প্রকৌশলী জরুরি মিটিংয়ে বসেছেন।

এর আগে মনু নদে সর্বোচ্চ বিপদসীমা ১৮০ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে পানি প্রবাহিত হওয়ার রেকর্ড হয়েছে। যা বিগত ১১ বছরের সর্বোচ্চ পানি প্রবাহ ছিল। তবে শহরের অংশে পানি কম ছিল। মনুর কয়েকটি ভাঙন দিয়ে পানি গ্রামাঞ্চল প্রবাহিত হওয়ার পর সে পানি পুনরায় নদে পড়ছে। ফলে নদীর পানি উজান থেকে নেমে নিম্নাঞ্চলে প্রভাব ফেলছে।

পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রণেন্দ্র শংকর চক্রবর্তী জানান, রাত ৯টা পর্যন্ত পানি বিপদসীমার ১৩৫ সেন্টিমিটার উপর দিয়ে প্রবাহিত হয়। সাইফুর রহমান রোডের গার্ড ওয়াল পুরাতন হওয়াতে বিভিন্ন ফাঁক দিয়ে পানি ঢুকছে। ইতোমধ্যে ডিসি, এসপি, মেয়র ও স্থানীয় ব্যক্তিবর্গসহ এলাকা পরিদর্শন করা হয়েছে। পানি আরও বাড়লে শহর রক্ষায় বিকল্প কিছু ভাবা হবে।

সিলেটভিউ২৪ডটকম/১৫ জুন ২০১৮/ওএফএন/আআ

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   আওয়ামী লীগ নেতা সরওয়ার হোসেনের শোক
  •   হাজিদের মদিনার জিনের পাহাড়ে যেতে নিষেধাজ্ঞা
  •   তুমি চলিয়া গেলে দিয়া মোরে ফাঁকি...
  •   এয়ার ইন্ডিগোতে মশার কামড়ে অতিষ্ঠ যাত্রীরা, ১.৩৫ লক্ষ টাকা জরিমানা!
  •   কর্মচারী পদে ৩৭২ পিএইচডিধারী ও ২ লাখ ইঞ্জিনিয়ারের আবেদন!
  •   ওমরাহ ভিসা নিয়ে ভ্রমণ করা যাবে সৌদি আরবের সব শহর
  •   ৩৩ বছরের কর্মজীবনে এক দিন ছুটি!
  •   বিয়েতে উপহার পাঁচ লিটার পেট্রোল!
  •   দিনটির জন্য প্রায় সাড়ে ৫ বছর অপেক্ষা করেছি : আশরাফুল
  •   কঠিন সিদ্ধান্ত নিতে আমি পছন্দ করি: পরীমণি
  •   বিচিত্র 'বিয়ে', রাত ফুরালেই সঙ্গিনীকে ছেড়ে যায় সঙ্গী!
  •   ইয়াবা বিক্রির টাকা নাশকতায় ‘বিনিয়োগ’!
  •   চিত্রলেখা-উত্তম গুহকে নিয়ে টরন্টোয় প্রাণবন্ত আড্ডা
  •   সিলেট-১ আসনে গণতন্ত্রী পার্টির প্রার্থী ব্যারিস্টার আরশ আলী
  •   সিলেট মহানগর যুবলীগের শোক প্রকাশ
  • সাম্প্রতিক মৌলভীবাজার খবর

  •   বড়লেখায় প্রাথমিক পর্যায়ে শ্রেষ্ঠ শিক্ষক নাজিম উদ্দিন
  •   মৌলভীবাজারে কার্ল মার্কসের জন্ম দ্বিশতবার্ষিকী পালিত
  •   মৌলভীবাজার শহর প্লাবিত হওয়ার আশংকা
  •   কুলাউড়ায় যোগাযোগের অভাবে খাদ্য সংকটে বন্যার্তরা
  •   মৌলভীবাজারে বন্যা: সেনাবাহিনী মোতায়েন
  •   রাজনগরে নিঁখোজ শিশুর ভাসমান লাশ উদ্ধার
  •   মৌলভীবাজারে আগাম ঈদ উদযাপিত!
  •   বড়লেখায় দরিদ্র মানুষের মধ্যে ঈদসামগ্রী বিতরণ
  •   বড়লেখায় আওয়ামী লীগের ইফতার মাহফিল
  •   বড়লেখায় লাইনম্যানের মহানুভবতায় দরিদ্র দম্পতির অন্ধকার ঘরে আলো
  •   মৌলভীবাজারে বানভাসি মানুষের দুর্ভোগ, না খেয়ে রোজা
  •   বড়লেখায় বিদ্যুতের আলোয় আলোকিত ১০১৫ পরিবার