আজ বুধবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ইং

ব্যালট পেপার হাতে নিয়ে চিন্তা করতে হয় ‘গু’ না ‘গোবর’

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৮-০৭-০৯ ১৯:২৬:২১

আবদুল করিম কিম :: বিশ্বকাপ ফুটবলের উত্তাপ শেষ হতে চলেছে। সেই উত্তাপ থাকা কালেই দেশের তিনটি প্রধান মহানগরে অনুষ্ঠিতব্য সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনের উত্তাপ বাড়তে শুরু করেছে। তিন মহানগরের হোটেল-রেস্তোরায়, রাজনৈতিক ও সামাজিক আড্ডায় সিটি নির্বাচন এখন নাগরিক আলোচ্য। সেই উত্তাপ বাড়িয়ে দিতে গণমাধ্যম কর্মীরাও ব্যস্ত।

স্থানীয় ও জাতীয় দৈনিক পত্রিকাতে প্রায় প্রতিদিন নির্বাচন নিয়ে নানামুখি প্রতিবেদন ও কলাম লিখছেন রাজনৈতিক বিশ্লেষকেরা। বিভিন্ন টিভি চ্যানেলে সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে নানা ধরনের নির্বাচনী অনুষ্ঠান শুরু করেছে। বিভিন্ন শ্রেনীপেশার প্রতিনিধিত্বশীল ব্যাক্তিদের সে সব অনুষ্ঠানের মুক্ত আলোচনায় আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে। আসন্ন সিলেট সিটি কর্পোরেশন নির্বাচন নিয়ে আয়োজিত এসব অনুষ্ঠানে নাগরিক আন্দোলনের একজন সংগঠক হিসাবে আমাকেও আমন্ত্রণ জানানো হয়।

নির্বাচন নিয়ে এসব অনুষ্ঠানে অতিথিদের কাছে নাগরিক সমস্যা, নির্বাচন নিয়ে প্রত্যাশা সহ সংশ্লিষ্ট বিষয়ে বিভিন্ন প্রশ্ন করা হয়। নিজ নিজ অবস্থান থেকে অতিথিরা নিজেদের ভাবনা তুলে ধরেন। সিটি কর্পোরেশন নির্বাচনে মেয়র ও একাধিক কাউন্সিলর পদে নির্বাচন হলেও এসব আলোচনার মূল আগ্রহ থাকে 'মেয়র' নিয়ে। তিনটি সিটিতেই প্রায় কমন একটি প্রশ্ন থাকছে 'কেমন মেয়র চাই?' সীমিত সময়ের অনুষ্ঠানে বেশী কথা বলার সুযোগ থাকে না। সব কথা টিভি অনুষ্ঠানে বলা যায় না। অতিথিরা তাঁদের বক্তব্যে আকাশকুসুম চয়ন করেন। দিনশেষে দেখেন ছাই হয় সব হুতাশে।

আমাদের জাতীয় ও স্থানীয় নির্বাচন ব্যাবস্থা ও নির্বাচনী সংস্কৃতি দেশ ও দশের কল্যাণ করার জন্য নিবেদিতপ্রাণ মানুষের জন্য নয়। এখানকার নির্বাচন একটি বিশেষ শ্রেনীভুক্ত মানুষের জন্য। সেই শ্রেনীভুক্ত মানুষের থাকতে হবে অঢেল কড়ি। নিজের না থাকলেও নির্বাচন উপলক্ষে 'কড়ি' আমদানী করতে হবে। যে কড়ি ফেলবে সেই তেল মাখবে। কড়িও উলুবনে ফেলা যাবে না। অনেক ছক কষে কড়ি ফেলতে হবে। কড়ির পাশাপাশি প্রধান রাজনৈতিক দলসমূহের ছায়ার নিচে থাকতে হবে।

দলীয়ভাবে হোক বা জোটগত ভাবে হোক প্রধান দুইধারার রাজনৈতিক বটগাছের ছায়া না থাকলে নির্বাচনে দাঁড়ানো অর্থহীন। তাই নাগরিকরা আকাশ কুসুম স্বপ্ন নিয়ে কেমন মেয়র চাই বললেও যা সামনে তুলে ধরা হয় তা থেকেই বেঁছে নিতে হয়। অনেকক্ষেত্রে পরিস্থিতি এমন হয় যে, ব্যালট পেপার হাতে নিয়ে চিন্তা করতে হয় 'গু' না 'গোবর'। চিন্তাশীলরা অনেক ভেবে হয়তো 'গোবর' বেঁছে নেন।

লেখক : পরিবেশ সংগঠক

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   আফগানিস্তানের বিপক্ষে থাকছেন না সাকিব!
  •   মধ্য আকাশে বিমানের জ্বালানি শেষ-বিকল ল্যান্ডিং সিস্টেম, অতঃপর...
  •   পাসওয়ার্ড ভুলে গেলে ফোন আনলক করবেন যেভাবে
  •   হঠাৎ বিয়ে নিয়ে বিস্ফোরক মন্তব্য সালমানের
  •   মুসলমান ধর্মে মেয়েদের হাত মেলানো উচিত না, পপির এ বক্তব্য ভাইরাল
  •   রাস্তায় নারীর সঙ্গে করমর্দন করে হিরের আংটি খোয়ালেন চিকিৎসক
  •   যুক্তরাষ্ট্রকে চীনের পাল্টা হুমকি
  •   সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা স্থগিত চেয়ে আবেদন
  •   সিনেমা ভাঙলে মিলন আনন্দ দেয় বিচ্ছেদ কাঁদায়
  •   প্যারিসে জমকালো আয়োজনে সিলেট উৎসব
  •   সিলেট-৩ আসনের জনগণের উন্নয়নে কাজ করতে চাই: মিসবাহ সিরাজ
  •   আর নির্বাচন করবেন না হাফিজ মজুমদার!
  •   সিলেট বিএনপিতে আতঙ্ক!
  •   দল চাইলে সিলেট-২ আসনে চ্যালেঞ্জ নেবেন আমেরিকার সালাম
  •   সিলেটে পুলিশের ৪টি মামলায় বিএনপির আসামি যারা
  • সাম্প্রতিক মুক্তমত খবর

  •   সিনেমা ভাঙলে মিলন আনন্দ দেয় বিচ্ছেদ কাঁদায়
  •   আসন্ন জাতীয় নির্বাচন: জোট ও ভোটের হালচাল
  •   বুক ভরা আশা নিয়ে ঘুমিয়ে থাকো শিশির ভেজা দূর্বাদলে
  •   বাঙালী নিয়ে রামমাধবের ঔদ্ধত্যের থ্রি ডি
  •   সংবিধানে নির্বাচনকালীন সরকার বলে কিছু নেই
  •   মনোনয়ন বঞ্চিত আওয়ামী লীগারদের সামনে কঠিন পরীক্ষা
  •   'জান্নাত' কিনা ধর্মীয় রাজনীতির শিকার হল!
  •   সৈয়দ মহসিন আলী: একজন মানবিক রাজনীতিবিদ
  •   মেয়েদের প্রতিভা খোঁজছে ফিউজা
  •   জামায়াত নাকি যুক্তফ্রন্ট-কাকে বেছে নিবে বিএনপি?
  •   শেখ রেহানার যাপিত জীবন
  •   অনলাইনে নারীবিদ্বেষ
  •   বায়বীয় পরিবর্তনের ডাক মাহীর: রূপরেখাহীন রূপকথা
  •   সমকামিতা এবং প্রিয়ার প্রিয়বচন
  •   সংবাদ সম্মেলনে কেন এত চাটুকারিতা