আজ বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০ ইং

ফ্ল্যাট কেনা ও বাড়ি নির্মাণে ৯০০ টাকা কিস্তিতে ২০ বছর মেয়াদে ঋণ

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-০২-২৮ ০০:২৩:২৫

আবাসন খাতে জমি বা ফ্ল্যাট কেনা ও বাড়ি নির্মাণ বা মেরামতে দীর্ঘমেয়াদী ঋণ দিচ্ছে বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স কর্পোরেশন (বিএইচবিএফসি)। ৯ শতাংশ সরল সুদে এই ঋণ পরিশোধ করা যাবে সর্বোচ্চ ২০ বছরে। আর প্রতি লাখে মাসিক কিস্তি দিতে হবে মাত্র ৯০০ টাকা।

হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স কর্পোরেশন সরল সুদে ঋণ দিচ্ছে। আর মাসিক কিস্তিও কম। বাংলাদেশ হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স কর্পোরেশনের এমন ঋণ কার্যক্রম নিয়ে কথা বলেন কর্পোরশনের ডিজিএম মোহাম্মদ খায়রুল ইসলাম।

তিনি জানান, পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ঋণ দেওয়া হয়ে থাকে। নগর এলাকায় যারা জমি বা প্লট কিনতে চান তাদের জন্য ‘নগর বন্ধু’, জেলা পর্যায়ে যারা ঋণ নিতে চান তাদের জন্য ‘পল্লীমা’, দেশের বাইরে থাকা যেসব প্রবাসীরা ঋণ নিতে চান তাদের জন্য ‘প্রবাস বন্ধু’, যারা নিজেদের স্থাপনা আরো ভালো করতে চান তাদের জন্য ‘আবাসন উন্নয়ন’ আর সবশেষে যারা নিজেদের স্থাপনা মেরামত করতে চান তাদের জন্য ‘আবাসন মেরামত’ নামের পাঁচটি প্যাকেজ রয়েছে।

৫ বছর মেয়াদী ঋণের জন্য প্রতি মাসে দুই হাজার ৭৬ টাকা, ১০ বছরে মাসিক ১ হাজার ২৬৮ টাকা, ১৫ বছরের জন্য মাসিক ১ হাজার ১৪ টাকা আর ২০ বছরের জন্য প্রতি মাসে কিস্তি আসবে সর্বনিম্ন ৯০০ টাকা।

খায়রুল ইসলাম বলেন, আমাদের প্রতিষ্ঠান দেশের একমাত্র রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান যেটি আর্থিক খাতে ঋণ দেয়। আমরা এক সংখ্যার অংকে সরল সুদে ঋণ দিয়ে থাকি। মোট পাঁচটি ক্যাটাগরিতে ফ্ল্যাটের ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ৮০ লাখ আর জমির ক্ষেত্রে সর্বোচ্চ ১ কোটি টাকা পর্যন্ত আমরা ঋণ দিয়ে থাকি।

বাংলাদেশি নাগরিকরা এটি সর্বোচ্চ ২০ বছরে এবং যারা প্রবাসে আছেন তারা সর্বোচ্চ ২৫ বছরে মাসিক কিস্তিতে এই ঋণ পরিশোধ করতে পারবেন। ১৮ থেকে ৬৫ বছর বয়সী বাংলাদেশের যেকোন নাগরিক শর্ত সাপেক্ষে এই ঋণ সুবিধা নিতে পারবেন।

ব্যাংকের তুলনায় কর্পোরেশন থেকে ঋণ নেওয়া সুবিধা ও লাভজনক উল্লেখ করে প্রতিষ্ঠানটির এই কর্মকর্তা বলেন, যেহেতু এটা একটি রাষ্ট্রায়ত্ত প্রতিষ্ঠান তাই এটির সুধ সরকার কর্তৃক নির্ধারিত হয়। গ্রাহক প্রতি মাসে যে কিস্তি পরিশোধ করবেন সেটি থেকে আমরা আসলের অংকও নিয়ে থাকি।

এছাড়াও ব্যাংক সাধারণত দুই অঙ্কের সংখ্যার সুদে ঋণ দেয়। তাই ব্যাংকের তুলনায় আমাদের থেকে ঋণ নেওয়া লাভজনক। অন্যদিকে ব্যাংকে সাধারণত তিন মাস কিস্তি বকেয়া পড়লেই কর্তৃপক্ষ মামলা-মোকদ্দমা বা অন্যান্য আইনানুগ পদক্ষেপে চলে যায়। কিন্তু আমাদের এখানে সর্বোচ্চ ২৪ কিস্তি পর্যন্ত বকেয়ার সুবিধা দেওয়া হয় গ্রাহকদের। তাই তুলনামূলকভাবে বিচার করলে হাউজ বিল্ডিং ফাইন্যান্স কর্পোরেশন থেকে ঋণ নেওয়া সুবিধার ও লাভজনক।

খায়রুল ইসলাম আরো বলেন, অনেক প্রতিষ্ঠান আছে যারা ঋণ দেয় কিন্তু প্রপার্টি কিনতে হবে তাদের পছন্দনীয় জায়গা থেকে। আমাদের এখানে এ ধরনের বাধ্যবাধকতা নেই, আমরা শুধু অর্থ ঋণ দিয়ে থাকি। গ্রাহকের যেখানে সুবিধা মনে হবে তিনি এই অর্থ দিয়ে সেখানেই প্রপার্টি কিনতে পারবেন।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   ‘বাংলাদেশের অগ্রগতির মুলে রয়েছে বাঙালি সংস্কৃতি ধারণ ও লালন’
  •   বড়লেখায় সরকারি কলেজ মাঠ দখল করে বাণিজ্য মেলা, পাঠদান ব্যাহত
  •   শাবিতে জাতীয় ছাত্রদলের নতুন কমিটি গঠন
  •   ‘দেশের মানুষজন ঘনঘন উমরাহ যায়, এত টাকা পায় কোথায়?’
  •   মাতৃভাষা দিবসে সিলেট বিএনপির কর্মসূচী
  •   শাবিতে জাতীয় ছাত্রদলের ১৫তম কাউন্সিল অনুষ্ঠিত
  •   সিলেট আর্ট এন্ড অটিস্টিক স্কুলের পরিচালনা পরিষদের সাধারণ সভা
  •   ‘আননূর’র ২ দিনব্যাপী বার্ষিক প্রতিযোগিতার বর্ণিল আয়োজন
  •   কমলগঞ্জে ব্যবসায়ীদের বিক্ষোভ ও পথসভা
  •   ‘‘প্রধানমন্ত্রী বললেন, ‘সিলেটের মানুষের জন্য ড্রিমলাইনার আনলাম’’
  •   মাজারে আসাদের জন্য বিশেষ ব্যবস্থা চান মেয়র আরিফ
  •   সিলেটের রাহীকে ক্ষেতে দৌড়াতে বললেন ভারতের শামি!
  •   সিলেট নগরীর ৫টি এলাকায় বাস-মিনিবাস চলাচলে নিষেধাজ্ঞা
  •   সিলেট জেলা আইনজীবী সমিতির ৫ কোটি টাকার বাজেট অনুমোদিত
  •   আজাদ কাপ ফুটসালের তৃতীয় রাউন্ডের জাদুকাটা ও লোভাছড়া গ্রুপের খেলা সম্পন্ন
  • সাম্প্রতিক অর্থনীতি খবর

  •   ফের বাড়ল স্বর্ণের দাম
  •   ‘নগদ’র পেছনে লেগেছে ‘বিকাশ’!
  •   শেয়ারবাজারের অবস্থা আজও ভালো
  •   রাষ্ট্রপতিকে উকিল নোটিস দিল গ্রামীণফোনের মালিক কোম্পানি!
  •   স্টেক হোল্ডার্স সম্মেলন: বাংলাদেশ-ভারত বাণিজ্য ঘাটতি নিরসনের আহবান
  •   এবারও বিশ্ব শান্তি দিবস পালন করবে জেএমআই গ্রুপ
  •   হালট্রিপের এজেন্টদের ভার্চুয়াল ক্রেডিট কার্ড দেবে ইবিএল
  •   দাম কমবে যেসব পণ্যের
  •   দাম বাড়বে যেসব পণ্যের
  •   বাজেট পেশ করলেন প্রধানমন্ত্রী!
  •   ১৮% ব্যয় বাড়িয়ে ৫ লাখ ২৩ হাজার কোটি টাকার বাজেট
  •   এবার ঈদে আসছে ১৭ হাজার কোটি টাকার নতুন নোট
  •   ২০৩০ সালের মধ্যে মাথাপিছু আয়ে ভারতকে ছাড়িয়ে যাবে বাংলাদেশ
  •   ডিনামাইট গুড়িয়ে দেবে বিজিএমই ভবন
  •   ৬৩০ কোটি টাকায় হবে ১১ মডার্ন ফায়ার সার্ভিস স্টেশন