আজ সোমবার, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৯ ইং

পেয়াজের উচ্চমূল্য: ভোক্তা হিসেবে আমাদের কি দায় নেই?

সিলেটভিউ টুয়েন্টিফোর ডটকম, ২০১৯-১১-১৪ ১৭:১২:৩৫

শাকিল জামান :: পেয়াজের উচ্চমূল্য নিয়ে চারিদিকে হায়! হায়! সব গেলো! এমন রব উঠে গেছে। বর্তমান প্রেক্ষাপট এমনই। পেয়াজ প্রতি কেজি ২০০ টাকাও বিক্রি হচ্ছে যা মাস দুয়েক আগেও ছিলো কল্পনাতীত।

কেনো বেড়ে গেলো পেয়াজের দাম? এর পেছনে সরকার কিংবা ভোক্তা হিসেবে আমাদের কি কোনো দায় আছে? এটা নিয়ে আমরা ভাবছি না। আমাদের ভাবনায় শুধু কীভাবে বাইরে থেকে পেয়াজ আমদানি করে বাজারকে স্থিতিশীল করা যায়। নিজে স্বনির্ভর না হয়ে অন্যের উপর নির্ভরশীল থেকে আসলেই কি স্থিতিশীল বাজার আশা করা উচিত?

সমস্যার মূলে না গিয়ে বার বার কীভাবে উপর থেকে বাজার নিয়ন্ত্রণ করা যায় সেই চেষ্টাই করা হয়েছে। ভারত পেয়াজ রপ্তানি করছে না তবে মায়ানমার থেকে আমদানি করো, মায়ানমার রপ্তানি না করলে ভিয়েতনাম দেখো। এভাবেই অন্যের উপর দিয়েই আমরা সমস্যা সমাধানের চেষ্টা চালাচ্ছি অথচ আমরা কৃষি প্রধান দেশ।

এমন তো না যে আমাদের দেশে পেয়াজ উৎপাদন হয় না। তাহলে সমস্যা কোথায়? কেনো আমাদের চাষীরা পেয়াজ উৎপাদন করছে না?

সমস্যা আমরা নিজেরাই। যখন চাষীরা পেয়াজ উৎপাদন করে তখন সরকারের থেকে পর্যাপ্ত ভর্তুকি পায় না ফলে উৎপাদন খরচ তুলনামূলক বেশি হয়। বাজারে যখন বিক্রি করতে নিয়ে যায় তখন দেখা যায় এরচেয়ে কমদামে বিদেশী পেয়াজ বিক্রি হচ্ছে। ফলে চাষীরা ক্ষতিগ্রস্থ হয়। নিজের পকেটের টাকা খুইয়ে চাষীরা উৎপাদন করে খাওয়াবে এমন তো হতে পারে না।

তাহলে করণীয় কি ছিলো?

সরকারের উচিত ছিলো পেয়াজ চাষীদের পর্যাপ্ত ভর্তুকির ব্যবস্থা করা যাতে তাদের উৎপাদন খরচ কম হয় এবং দেশে উৎপাদিত পেয়াজ বাজারে বাইরে থেকে আমদানিকৃত পেয়াজের সাথে প্রতিযোগিতায় টিকতে পারে। কিন্তু না, সরকার সেটা করে নি।

আচ্ছা, সেটা না হয় করলো না। তাহলে দেশের চাষীরা যাতে বাঁচতে পারে সেজন্য বাইরে থেকে আমদানি বন্ধ কেনো করলো না? দেশীয় পণ্যকে যদি সুরক্ষা না দেয়, দেশের চাষীদের যদি সুরক্ষা না দেয়া হয় তবে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষক কীভাবে পরেরবার পেয়াজ চাষের দু:সাহস দেখাবে?

ভোক্তা হিসেবে আমরা যখন দেখি ৫ টাকা কমে বিদেশী পেয়াজ পাওয়া যায় তখন কিন্তু আর দেশী পেয়াজ কিনি না। ফলে দেশি পেয়াজের বাজার ধীরে ধীরে ধ্বংস হয়ে গেছে। আমরা পুরোপুরি অন্য দেশের উপর নির্ভরশীল হয়ে পড়েছি। এখন এই হাউকাউ করে কোনো লাভ নাই।

আমাদের আবার সেই মূলে যেতে হবে। নিজেদের পণ্য নিজেদেরকে উৎপাদন করতে হবে। নিজেদের পণ্য নিজেদের কিনতে হবে। দেশীয় পণ্যকে সুরক্ষা দিতে সরকারকে নীতিমালা করতে হবে।

আমাদের মানসিকতা বদলাতে হবে। দুই টাকা বেশি দিয়ে দেশী পণ্য কিনতে হবে। এই দুই টাকা বাইরে কোথাও যায় না। আপনার আমারই এক ভাই তার পরিশ্রমের বিনিময়ে এই টাকা দিয়ে ঘরে চাল কিনে। আমরা দুই টাকা বাঁচানোর জন্য বাইরে থেকে আমদানিকৃত পণ্য কিনি। আর পরবর্তীতে যখন তাদের উপর নির্ভরশীল হয়ে যাই, তারা দাম বাড়িয়ে দেয় অথবা রপ্তানি বন্ধ করে আমাদের বাজারকে অস্থিতিশীল করে দেয়।

শেষকথা হচ্ছে- সরকারের নীতিনির্ধারক এবং আমাদের উদ্যোক্তা ও ভোক্তা সকলকে একটা বিষয়ে ঐকমত্য হতে হবে। কৃষি আমাদের শিকড়। শিকড়কে অস্বীকার করে, শিকড় থেকে বেরিয়ে গিয়ে শার্ট-প্যান্ট বানানোর অর্থনীতি দিয়ে দেশকে স্থিতিশীল করা যাবে না।

লেখক: নিজস্ব প্রতিবেদক, সিলেটভিউ২৪ডটকম।

শেয়ার করুন

আপনার মতামত দিন

সর্বশেষ খবর

  •   সোসাইটি ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশন সিলেটের উদ্যোগে শহীদদের শ্রদ্ধা নিবেদন
  •   ব্রাদার্স ইউনিটি সিলেট এর শ্রদ্ধা নিবেদন
  •   বঙ্গবন্ধু স্মৃতি সংসদ ও স্মৃতি পাঠাগার ছাত্র ফেডারেশনের শ্রদ্ধাঞ্জলি
  •   বাংলাদেশ: বিশ্বের বিস্ময়
  •   সিলেট জেলার শ্রেষ্ঠ শিক্ষক ফেঞ্চুগঞ্জের শহিদুজ্জামান
  •   শহীদদের স্মরণে কুলাউড়ার হাসিখুশি রক্তদান সংস্থার পুষ্পমাল্য অর্পণ
  •   চৌহাট্টায় শ্রমিক লীগের দুই পক্ষে সংঘর্ষ
  •   দিরাইয়ে গভীর শ্রদ্ধাঞ্জলির মধ্যদিয়ে মহান বিজয় দিবস পালন
  •   এবার ভারতের জামিয়ার ক্যাম্পাসে ঢুকে শিক্ষার্থীদের পেটাল পুলিশ
  •   শহীদ মিনারে গোয়াইনঘাট উপজেলা আওয়ামী লীগের শ্রদ্ধাঞ্জলি
  •   শহীদ মিনারে বিএনপি-যুবলীগ নেতাকর্মীদের হাতাহাতি
  •   ৩১ তোপধ্বনিতে বিশ্বনাথে বিজয় দিবস পালনের শুভ সূচনা
  •   বিচ্ছুরণের সেরা দশে সিকৃবি শিক্ষার্থীদের বিজয়
  •   মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে শহীদ মিনারে সিলেট চেম্বারের শ্রদ্ধাঞ্জলি
  •   শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে কুলাউড়া স্বেচ্ছাসেবক লীগের পুষ্পমাল্য অর্পণ
  • সাম্প্রতিক ফিচার খবর

  •   জেনে নিন জাতীয় পতাকা ব্যবহারের নিয়ম
  •   বুদ্ধিজীবী দিবস নিয়ে কিছু কথা
  •   মহানবী (সা.)-এর স্মৃতিধন্য মসজিদ
  •   নিরন্তর পথ চলায় সিলেটের আলি হুসেন!
  •   মাগো তুমি কেমন আছো# সুব্রত দাস
  •   কন্যা সন্তান পিতা-মাতার জন্য যে সুসংবাদ নিয়ে আসে
  •   মাত্র ১৫ হাজার টাকায় ঘুরে আসুন প্রাচ্যের স্কটল্যান্ড ও সুইজারল্যান্ড
  •   বিজয়ের মাসে বাঙালির ইতিহাস-ভাবনা
  •   সর্বস্থরের জনগনের অংশগ্রহণের মাধ্যমেই এইডস নির্মূল সম্ভব
  •   বঙ্গবন্ধুর আদর্শের সৈনিক আজাদুর রহমান আজাদ
  •   সরকারি পরীক্ষায় পাশ না করলে হবে না বিয়ে !
  •   ‘বড়ই অভিশপ্ত সেই ব্যক্তি, যে মূল্য বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে পণ্যদ্রব্য গুদামজাত করে রাখে’
  •   যেসব দেশে গ্রামের জন্য কোন জায়গাই নেই
  •   আজানের মধুর ধ্বনি শুনতে অমুসলিমদের ভিড়
  •   খামারিদের সংগঠন, নেতৃত্ব ও ডেইরি উন্নয়ন বিষয়ক ভাবনা